ওপারেই ব্যস্ত জয়া

  তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জয়া

দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। শুধু দেশে বললে ভুল হবে, এ মুহূর্তে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতেও জয়ার প্রভাব অনেক বেশি।

সেখানকার স্থানীয় অনেক প্রতিষ্ঠিত নায়িকার চেয়েও বেশি কাজ জয়ার হাতে। তাই বলা যায় বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশেই সমানতালে জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী। তবে কলকাতায় ব্যস্ত হলেও ঢাকায় তার হাতে নেই কোনো ছবির কাজ। এই ‘নেই’টাকে অবশ্য ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন তার দর্শক ভক্তরা।

কারণ জয়া যে ধরনের ছবিতে অভিনয় করেন, সে রকম ছবি বাংলাদেশে খুব কমই তৈরি হয়। অবশ্য এ ‘ধরন’টাকে আলাদা করতে রাজি নন এ অভিনেত্রী।

তার মতে, যে ছবিতে গল্প আছে, যে চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ আছে সেটি বাণিজ্যিক কিংবা শৈল্পিক, যাই হোক না কেন, হাতে যদি সময় থাকে তাহলে সেখানে অভিনয় করতে তার আপত্তি নেই। তা ছাড়া বাণিজ্যিক ছবিও যে শৈল্পিকভাবে নির্মিত হতে পারে, এটাই বিশ্বাস করেন তিনি। বাংলাদেশে সেটির উদাহরণ তো তার অভিনীত সবগুলো ছবিতেই পাওয়া গেছে।

কলকাতার ছবির বিষয়ে তো কথাই নেই। সেখানকার বাণিজ্যিক কিংবা শৈল্পিক যা-ই হোক না কেন- সব ছবিই বাজেটসমৃদ্ধ এবং দৃষ্টিনন্দন তত্ত মেনেই তৈরি করা হয়। এ কারণেই হয়তো কলকাতার ছবিতে জয়ার ব্যস্ততা বেশি।

বাংলাদেশে অবশ্য জয়া অভিনীত দুটি ছবি মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। মাহমুদ দিদারের পরিচালনায় ‘বিউটি সার্কাস’ ও নুরুল আলম আতিকের পরিচালনায় ‘পেয়ারা সুবাস’ নামে দুটি ছবিতে অভিনয় করেছেন জয়া। কিন্তু কবে নাগাদ ছবি দুটি মুক্তি পাবে এখনও সেই নির্দিষ্ট দিন তারিখ জানা নেই পরিচালকদের।

‘বিউটি সার্কাস’ ছবিটি মুক্তির বিষয়ে এর নির্মাতা বলেছেন দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বুঝে এটি মুক্তি দেয়া হবে। অন্যদিকে ‘পেয়ারা সুবাস’ ছবিটি বর্তমানে সম্পাদনার টেবিলে রয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিচালক।

গত বছর মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দেবী’ ছবিটি প্রযোজনা করেন জয়া। একই বছরের শেষ দিকে ‘ফুড়ুৎ’ নামে একটি ছবি প্রযোজনা করবেন বলেও ঘোষণা দিয়েছেন। চলতি বছরই এ ছবির শুটিং শুরু করার কথা থাকলেও এখনও পর্যন্ত সে রকম কোনো ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে না।

দেশের ছবিতে কাজ না করলেও কলকাতা কিন্তু ‘দ্বিতীয় কাজের বাড়ি’ বানিয়ে ফেলেছেন জয়া। কেউ কেউ অবশ্য এটিকে তার ‘প্রথম বাড়ি’ও বলে থাকেন।

প্রথম কিংবা দ্বিতীয় যা-ই হোক না কেন, দেশের অন্যসব নায়িকাদের চেয়ে জয়া যে এগিয়ে সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না। বিশেষ করে কলকাতার প্রতিষ্ঠিত অনেক নায়িকার চেয়েও সেখানে এগিয়ে আছেন তিনি। ওখানকার যেসব পরিচালকের ছবিতে কাজ করছেন জয়া, তাদের তালিকা দেখলেই বিষয়টি সম্পর্কে ধারণা সহজ হয়ে যায়।

কলকাতার প্রথিতযশা পরিচালক কৌশিক গাঙ্গুলির সঙ্গে জয়ার সখ্য বেশ পুরনো। সে সুবাদেই এ পরিচালকের পরবর্তী ছবি ‘অর্ধাঙ্গিনী’তে জায়গা করে নিয়েছেন জয়া।

একই পরিচালকের ‘বিসর্জন’ ও ‘বিজয়া’ ছবিতেও দেখা গেছে তাকে। ‘অর্ধাঙ্গিনী’ ছবিতে কিন্তু কেন্দ্রীয় চরিত্রেই অভিনয় করছেন তিনি। অবশ্য এখানে তাকে কলকাতার চূর্ণি গাঙ্গুলির সঙ্গে পর্দা ভাগ করে নিতে হচ্ছে। ২৩ অক্টোবর থেকে এ ছবির শুটিং শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে কলকাতার অতনু ঘোষ পরিচালিত ‘রবিবার’ ছবিতেও শুটিং করছেন জয়া। এ ছবিতে প্রথমবার প্রসেনজিতের সঙ্গে অভিনয় করছেন তিনি। কলকাতার জনপ্রিয় এ নায়কের সঙ্গে অভিনয় করার নাকি দীর্ঘদিনের ইচ্ছা ছিল জয়ার।

প্রসেনজিৎ নাকি চেয়েছিলেন জয়ার সঙ্গে কাজ করতে। দু’জনের ইচ্ছা পূরণের মধ্য দিয়েই চলছে রবিবারের শুটিং। একই পরিচালকের ‘বিনিসুতোয়’ নামে একটি ছবিতে কাজ করেছেন জয়া। সেই ছবি থেকেই জয়ার প্রতি মুগ্ধ অতনু। এই মুগ্ধতা থেকেই পরবর্তী ছবি ‘রবিবার’-এ জয়ার সঙ্গেই পথ চলছেন অতনু।

অন্যদিকে গত সেপ্টেম্বরে কলকাতার ‘ভূতপরী’ নামে আরও একটি ছবির শুটিং করেছেন। সৌকর্য ঘোষাল পরিচালিত, সুরিন্দর ফিল্মস ও কোয়েল মল্লিক নিবেদিত এ ছবিটির নাম ভূমিকায় রয়েছেন বাংলাদেশি এ অভিনেত্রী। শুটিংচলতি এ তিনটি ছবিই প্রমাণ করে কলকাতার জয়ার ব্যস্ততা।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×