শুটিং স্পট

মিলন-মিলির অতিথি যখন কবুতর!

  তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আশ্বিনের এক পড়ন্ত বিকেল। গন্তব্য রাজধানীর উত্তরার এক শুটিং বাড়ি। সেখানে যেতেই দেখা গেল বাড়ির সামনে অবস্থান করছে অনেক গাড়ি। নিচতলায় কেউ ছিল না, সুনসান নীরবতা চারদিকে। বাড়ির কেয়ারটেকার আগন্তুকের দিকে নজর বুলিয়ে বাইরে চলে যান। দ্বিতীয় তলায় গিয়েও একই চিত্র। এখানেও কেউ নেই। তবে কী শুটিং চলছে না এখানে? এমন সময় বাড়িটির এক কক্ষ থেকে একজন এসে ছাদে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে তাকে অনুসরণ করার ইঙ্গিত করেন। লোকটির পিছু নিয়ে ছাদে পৌঁছতেই এলাহী কাণ্ড। লোকে লোকারণ্য। অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন, ফারহানা মিলির সঙ্গে একঝাঁক স্কুল পড়–য়া শিশু শিল্পী। সবার দৃষ্টি এক জোড়া কবুতরের দিকে। সন্ধ্যা ঘনিয়ে এসেছে তখন। ক্যামেরার সামনে মিলন-মিলির মধ্যে পারিবারিক কিছু বিষয় নিয়ে কথা বলছেন। তারা দুজন স্বামী-স্ত্রী। এ অবস্থায় বাচ্চাগুলো এসে তাদের কথার ইতি টানেন। ক্যামেরার সামনে থেকে সরে যান মিলন ও মিলি। কিন্তু কবুতরগুলো নিয়ে সবার আগ্রহ তুঙ্গে। এত মানুষের উপস্থিতির মধ্যে কবুতরের প্রতি বিশেষ যত্নের কারণ কী?

সন্ধ্যা গড়িয়ে রাত নেমে এলো। সবাই দ্বিতীয় তলায় চলে আসেন বিশ্রামের জন্য। কবুতর দুটিকেও সঙ্গে নিয়ে আসেন কেউ একজন। মিলন পাশের একটি কক্ষে গিয়ে একাকী বিশ্রাম নিতে থাকেন। সেখানে যেতেই কথা হয় তার সঙ্গে। এ সময় সেই কক্ষে প্রবেশ করেন ফারহানা মিলি। তিনিও আলোচনায় যুক্ত হন। জানালেন, অনেকদিন পর মিলনের সঙ্গে এক খণ্ডের নাটকে অভিনয় করছেন। সেই কথার রেশ ধরে মিলন বলেন, তারা কিন্তু স্বামী-স্ত্রীর চরিত্রে এই প্রথম খণ্ডনাটকে অভিনয় করছেন। কথাটি শুনে মিলি বলেন, ‘সংসারের গল্প শুনে ছেলেকে খুব মিস করছি। বাড়ির বাইরে বের হলে সারাক্ষণই ওর কথা মনে হয়। ওর জন্যই আমার যত আয়োজন।’

মিলন পাশে থেকে বলেন, ‘তোমার তো ইচ্ছা করলেই কাছে গিয়ে দেখার সুযোগ আছে। আমার তো তাও নেই। স্ত্রী এবং একমাত্র ছেলে থাকে আমেরিকায়। ইচ্ছা করলেই যখন তখন তাদের সঙ্গে দেখা করতে পারি না। মাঝে মধ্যে বেশ খারাপ লাগে।’ ঠিক এমন সময় পরিচালক এসে দৃশ্যধারণের জন্য তাগাদা দেন দুজনকে। আড্ডার ইতি টেনে দুজনেই মেকআপ কক্ষে চলে যান।

এ নাটকটি পরিচালনা করছেন ইয়ামিন ইলান। নাটকের নাম ‘অতিথি’। একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে নাটকটির রচনা করেছেন জামাল হোসেন। শুটিংয়ে ফাঁকে পরিচালক জানান, এ নাটকে মিলন একজন উচ্চ পদস্থ সরকারি কর্মকর্তা। স্ত্রী সন্তান নিয়ে তার সুখের সংসার। একদিন তাদের বাসার ছাদে এক আহত কবুতর এসে আশ্রয় নেয়। কবুতরটির বেহাল অবস্থা দেখে তাকে আশ্রয় দেয় মিলন। কিন্তু পারিবারিক এক কাজে সপরিবারে মিলন বাসার বাইরে থাকেন কয়েকদিন। এ সময়ের মধ্যেই আহত কবুতরটি বাড়ির নিচে পড়ে যায়। আর সেটি ধরে অন্য পরিবারের লোকেরা রান্না করে খেয়ে ফেলে। এভাবেই নানা ঘটনায় এগিয়ে যায় ‘অতিথি’ নাটকের গল্প। এটি শিগগিরই একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচার হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×