করোনা আতঙ্কে বিধ্বস্ত বিশ্ব বিনোদন

দেশি-বিদেশি অনেক ছবির শুটিং বাতিল * বন্ধ হয়ে যাচ্ছে সিনেমাহল * পিছিয়ে যাচ্ছে ছবি মুক্তি * করোনার কবলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন উৎসব: গোটা বিশ্ব তটস্থ করোনাভাইরাসের আক্রমণ ও আতঙ্কে। বিশ্বের দেড় শতাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এ প্রাণঘাতী ভাইরাস। বাংলাদেশে খুব সীমিত হলেও জনজীবনে ছড়িয়ে পড়েছে ‘করোনা’ নামক ভয়ঙ্কর এক আতঙ্ক। শুধু সাধারণ নাগরিক নয়, এর রেশ পড়েছে বিনোদন জগতে। আতঙ্ক শুরু হয়েছে দেশি-বিদেশি তারকাদের মধ্যেও। এরই মধ্যে হলিউড অভিনেতা ও চলচ্চিত্র পরিচালক টম হাঙ্কস এবং তার স্ত্রী অভিনেত্রী রিটা উইলসন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছেন। করোনার ভয়ে নিজেকে গৃহবন্দি করেছেন সন্তানসম্ভবা হলিউড তারকা কেটি পেরি। এসব খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই হলিউড, বলিউড, টলিউড, ঢালিউডসহ সারা বিশ্বের তারকাদের মধ্যে আতঙ্ক চরমে ঠেকেছে। এ ছাড়া বলিউড তারকা সালমান খান, অক্ষয় কুমার, আমির খান, হৃত্বিক রোশন, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, টলিউডের অভিনেতা ও সংসদ সদস্য দেব, এমনকি বাংলাদেশে চলমান মুজিববর্ষে সবচেয়ে আলোচিত ছবি ‘বঙ্গবন্ধু’র শুটিংসহ অধিকাংশ তারকারই শুটিং স্থগিত করা হয়েছে। বিস্তারিত লিখেছেন -

  এসএম শাফায়েত ১৯ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

করোনার কারণে বাতিল হচ্ছে শুটিং

হলিউড

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মার্কিন অভিনেতা ও চলচ্চিত্র পরিচালক টম হাঙ্কস এবং তার স্ত্রী অভিনেত্রী রিটা উইলসনের সংস্পর্শে যাওয়া তারকারাও চরম ঝুঁকিতে রয়েছে বলে জানা গেছে। আর এ কারণে হলিউডে নির্মিতব্য সব ছবির বহির্দৃশ্যের শুটিং ঝিমিয়ে পড়েছে। আপাতত কাজ থেকে নিজেদের গুটিয়ে রেখেছেন ওই দেশের তারকারাও। মূলত টম হাঙ্কস ও তার স্ত্রী রিটার করোনা আক্রান্তের ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর থেকেই এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে সেখানে। তবে তাদের নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো কারণ নেই বলে জানিয়েছেন তার ছেলে চিট হাঙ্কস। কিন্তু তাদের সংস্পর্শে যারা গিয়েছেন তাদের নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার অনেক কারণ রয়েছে। বিশ্বব্যাপী কাঁপন ধরিয়ে দেয়া করোনাভাইরাস মানুষ থেকে মানুষের শরীরে খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। তাই এই দু’জনের সংস্পর্শে যারা গেছেন বা তাদের হাত দেয়া জিনিসপত্রে যারা হাত দিয়েছেন তাদের নিয়ে ঝুঁকি রয়েছে। তারাও হতে পারেন করোনার শিকার। অস্ট্রেলিয়ার গোল্ড কোস্টে ছবির শুটিংয়ের সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন টম হাঙ্কস। তাদের সঙ্গে যে তারকারা ছিলেন তারা কি করোনার আক্রান্ত হওয়ার শঙ্কা মুক্ত? আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, টম হাঙ্কসের সঙ্গে যারা ছিলেন তাদেরও সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। ফলে একই ছবির তারকা বাজ লুহরমান, রুফাস সোয়েল, অস্টিন বাটলার, অলিভিয়া ডিজেঞ্জে, ম্যাগি গিলেনহালও করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন। এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন হলিউডের ‘দ্য ডার্ক টাওয়ার’ ও ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস’খ্যাত অভিনেতা ইদ্রিস এলবা। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে আছেন এ অভিনেতা। অন্যদিকে জেমস বন্ডের নায়িকা ওলহা কোরেল্যাঙ্কোরও করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে, পিছিয়ে যেতে পারে ‘ব্ল্যাক উইডো’ ও ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস’ ফ্রাঞ্চাইজির নবম কিস্তি ‘এফনাইন’। চলচ্চিত্র বিশ্লেষক ও ব্রিটিশ ম্যাগাজিন স্ক্রিন ইন্টারন্যাশনালের উপসম্পাদক লুইস টাট জানিয়েছেন, প্রযোজক-পরিবেশকরা প্রতি মুহূর্তে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। তার দুটি ছবিই পিছিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। মারভেল স্টুডিওসের প্রযোজনা ও ওয়াল্ট ডিজনি স্টুডিওস মোশন পিকচার্সের পরিবেশনায় আসার কথা ‘ব্ল্যাক উইডো’র। অন্যদিকে ইউনিভার্সেল পিকচার্সের পরিবেশনায় মুক্তির কথা রয়েছে ‘এফনাইন’ ছবিটি।

ছবি মুক্তির স্থগিতাদেশের পর এবার ছবির কাজই বন্ধ করেছে টম ক্রুজ অভিনীত বিশ্বখ্যাত আরও একটি সিরিজ চলচ্চিত্র ‘মিশন ইম্পসিবল’। তাদের নতুন কিস্তি ‘মিশন ইম্পসিবল ৭’-এর কাজ চলছিল ইতালিতে। দেশটি এখন করোনার মারাত্মক কবলে। এর মধ্যে দেশটিতে এক হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছে। আর এ কারণে শুটিং পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে টম ক্রুজ অভিনীত এ ছবির। করোনাভাইরাসের কারণে পিছিয়ে গেছে জেমস বন্ড সিরিজের ছবি ‘নো টাইম নো ডাই’। ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এমজিএম, ইউনিভার্সাল এবং প্রযোজক মাইকেল জি. উইলসন ও বারবারা ব্রকলি টুইটারে এক যৌথ বিবৃতিতে সম্প্রতি এ ঘোষণা দেন। তারা জানান, এপ্রিলে নয়, ড্যানিয়েল ক্রেগ অভিনীত এ ছবিটি ১২ নভেম্বর ইংল্যান্ডে ও ২৫ নভেম্বর বিশ্বব্যাপী মুক্তি পাবে। ঘটনা রটনার এ পর্যায়ে জেনিফার অ্যানিস্টোন ও রিজ উইদারস্পুনের জনপ্রিয় টিভি শো ‘মর্নিং শো’র শুটিং দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। জানা গেছে, শোটিতে যারা কাজ করছেন তাদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এপ্রিলে লাস ভেগাসের শো বাতিল করেছেন জোনাস ব্রাদার্স। এ ছাড়া ডিজনি ‘দ্য লিটল মারমেইড, ‘হোম অ্যালোন’, ‘নাইটমেয়ার অ্যালে’সহ বেশ কিছু প্রডাকশনের চলমান শুটিং বন্ধ ঘোষণা করেছে। অপরদিকে, শুধু শুটিং থেকে নয়, নিজেকেই করোনার কারণে একটু গৃহবন্দি করেছেন তারকা কেটি পেরি। সন্তানসম্ভবা এ অভিনেত্রী তার সঙ্গী অরল্যান্ডো ব্লুমকে নিয়ে অস্ট্রেলিয়া ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমিয়েছেন।

বলিউড

বলিউডের কোনো তারকা এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত না হলেও ইন্ডাস্ট্রির বাণিজ্যে করোনার প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। গত সপ্তাহে করোনার ছোবল থেকে রক্ষা পাওয়ার সতর্কতা হিসেবে সালমান খানের ‘রাঁধে : ইউর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’ ছবির থাইল্যান্ড ও আজারবাইজানের শুটিং বাতিল করা হয়েছে। তবে শুধু তিনি একা নন, এ পরিস্থিতির শিকার অন্যান্য তারকারাও। এমতাবস্থায় ভক্ত ও অনুরাগীদের সুক্ষার কথা চিন্তা করে নিজের সব রকম আন্তর্জাতিক সফর স্থগিত করেছেন সালমান খান ও হৃত্বিক রোশন। আগামী ১০ এপ্রিল থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো, ডালাস, সান জোসে, নিউ জার্সি, ওয়াশিংটনে ভক্ত ও অনুরাগীদের সঙ্গে দেখা এবং শুভেচ্ছা বিনিময়ের পরিকল্পনা ছিল হৃত্বিক রোশনের। ঝুঁকি এড়াতে আপাতত তা স্থগিত করেছেন তিনি। সালমান খানও তার একটি কনসার্টে অংশ নিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যেতে চেয়েছিলেন। যা এখন অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। গণমাধ্যমকে এ দুই তারকা জানিয়েছেন, ‘চলমান পরিস্থিতিতে কোথাও ভ্রমণ ও জনসমাগম তথা অনুষ্ঠান আয়োজক একেবারেই ঠিক হবে না। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আয়োজকদের সঙ্গে কথা বলে নতুন তারিখ ঘোষণা করা হবে।’

এদিকে, অক্ষয় কুমারের ছবি ‘লক্ষী বোম’র শুটিং চলছিল বেশ জোর গতিতেই। সিডিউল অনুযায়ী ভারতের রাজস্থানে কিছু গুরুত্বপূর্ণ দৃশ্যের শুটিং হওয়ার কথা ছিল। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গত সপ্তাহেই তা বাতিল করে মুম্বাইয়ে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। জৈসলেমাত্তে চলমান করণ জোহরের ‘তাখাত’ ছবির শুটিং থমকে গেছে। পরবর্তী বিজ্ঞপ্তি না আসা পর্যন্ত এ ছবির শুটিং বন্ধ থাকবে। রাজস্থানের মান্দাওয়াতে শুটিং চলছিল কার্তিক আরিয়ান-কিয়ারা আদভানির ‘ভুল ভুলাইয়া-২’ ছবির শুটিং। করোনাভাইরাসের কারণে ছবির দলকে লক্ষ্ণৌতে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানেও বাদ সাধল করোনা! ১২ মার্চ সেখান থেকেও শুটিং স্থগিত করে ফিরিয়ে আনা হয় পুরো দলকে। অন্যদের মতো নিজের ও নিজের শুটিং ইউনিটের কথা ভেবে ছবির শুটিং বাতিল করেছেন বলিউড স্টার শাহিদ কাপুর। এক টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘সামাজিকভাবে সচেতন থাকা প্রয়োজন। গোটা বিশ্ব এখন লড়াই করছে করোনার বিরুদ্ধে। পরিচ্ছন্ন থাকা এবং সচেতন থাকাই এ রোগ মোকাবেলার একমাত্র পদ্ধতি। সে কারণে শুটিং বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল জার্সির টিম। কারণ তারা মনে করছে যে একত্রিত হয়ে শুটিং হলে কোনো রকম সমস্যা হতেই পারে। সেক্ষেত্রে আগে থেকেই সতর্ক থাকতে চাইছেন সবাই। তাই আপাতত ছবির শুটিং বন্ধ করা শ্রেয়। সবাই বাড়িতে সাবধানে থাকুন এবং পরিবারের সঙ্গে থাকুন।’

করোনার ভয়ে একে একে যখন সব শুটিং বন্ধ হয়ে যাচ্ছে তখন শুটিংয়ে ব্যস্ত আমির খান ও কারিনা কাপুর খান। নিজের জন্মদিনে ‘লাল সিং চাড্ডা’র শুটিং সেট থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি পোস্ট করেন আমির খান। এদিকে গত দু’দিন আগে সামগ্রিক সবকিছু বিবেচনা করে বলিউডের সব ধরনের সিনেমা ও মুম্বাইকেন্দ্রিক টিভি নাটকের শুটিং বাতিল করেছেন স্থানীয় সিনেমা ও টিভি সংগঠনগুলো। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ আদেশ বলবৎ থাকবে।

অন্যদিকে, করোনা আক্রান্ত না হলেও আতঙ্কে কাবু অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া। সম্প্রতি তিনি জানিয়েছেন, হাতে হাত মিলিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় নয়, করোনা থেকে বাঁচতে একে অপরকে নমস্কার জানান। নিজের ইনস্টাগ্রামে তার বার্তাও দেন প্রিয়াঙ্কা। তবে শুধু প্রিয়াংকা নন, করোনা থেকে বাঁচতে ভারতীয় ঐতিহ্য মেনে নমস্কার করে অভিবাদন জানানোর কথা বলেছেন সালমান খান এবং অনুপম খেরও। করোনা নিয়ে একটি ছবি শেয়ার করেছেন বলিউডের আরেক তারকা কাজল। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, ‘ডিডিএলজে’ ছবির ট্রেনের দৃশ্যে শাহরুখ খানের হাতে স্যানিটাইজার ঢেলে দিচ্ছেন কাজল। এদিকে, করোনাভাইরাসের ভয়ে প্যারিসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে না যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে সফর বাতিল করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন।

ঢালিউড

করোনাভাইরাস আতঙ্কে অনেকটা থমকে গেছে বাংলাদেশি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিও। এর প্রভাবে স্থগিত হয়ে গেছে বছরের সবচেয়ে আলোচিত ছবি ‘বঙ্গবন্ধু’র শুটিং। মুজিববর্ষকে সামনে রেখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনভিত্তিক ছবি ‘বঙ্গবন্ধু’ নির্মাণ করার প্রায় সবকিছুই চূড়ান্ত করেছেন ভারতীয় নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল। মুজিববর্ষের প্রথম দিন (১৭ মার্চ) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) মহরতের মাধ্যমে শুটিং শুরুর পরিকল্পনা ও প্রস্তুতি ছিল। ১৮ মার্চ থেকে টানা ৩ এপ্রিল পর্যন্ত এটির শুটিং চলার কথা বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে। ছবিতে শুটিংয়ের জন্য যাবতীয় প্রস্তুতিও নিয়ে রেখেছিলেন এর অভিনয়শিল্পীরা। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে সেটি আপাতত হচ্ছে না। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আগামী সেপ্টেম্বর থেকে কাজ শুরু করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে, করোনার কারণে দেশে প্রথম শুটিং বন্ধের ঘোষণা আসে জিয়াউল ফারুক অপূর্ব-নুসরাত ফারিয়ার ‘যদি...কিন্তু...তবুও’ ছবির শুটিং সেট থেকে। গত ১০ মার্চ বিকাল থেকে ১৫ দিনের জন্য শুটিং স্থগিত করেন পরিচালক শিহাব শাহীন। শুটিংয়ের নির্ধারিত দিন সকাল থেকে শুটিং স্পটে হাজিরও ছিল পুরো দল। এর মধ্যেই ঘোষণা দেয়া হয় শুটিং স্থগিতের। যদিও এ বন্ধের সময়সূচি আরও বাড়তে পারে বলেও জানা গেছে।

একই পরিস্থিতিতে দেশ কিংবা দেশের বাইরে সব ধরনের শুটিং বাতিল করেছেন অভিনেতা আবদুন নূর সজল। তিনি বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস নিয়ে কঠিন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় আমাদের নিজ দায়িত্বে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা জরুরি। যেন শুধু করোনা না, কোনো জীবাণু দেহে বাসা বাঁধতে না পারে। এজন্য পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ও ওজু খুব কার্যকরী পন্থা। অবশ্য এটি মুসলমাদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য অন্যান্য ধর্মাবলম্বীরা নিজ নিজ ধর্মানুযায়ী পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকলেই ভাইরাস থেকে দূরে সরে থাকা সম্ভব।’

অন্যদিকে, খুলনা থেকে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির শুটিং শেষ করে ঢাকায় বাকি কাজ করার কথা থাকলেও সেটা বাতিল করেছেন ছবিটির পরিচালক দীপঙ্কর দীপন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরে নতুন সময় নির্ধারণ করে শুটিং শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। এ ছাড়া শিডিউলকৃত কয়েকটি ছবি ও নাটকের শুটিং স্থগিত করা হয়েছে। ফলে আগামী ঈদুল ফিতরে বড় ও ছোট পর্দায় বেশ বড় একটা ঘাটতি তৈরি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

টলিউড

করোনাভাইরাস আতঙ্ক বিশ্বব্যাপী বিনোদন জগৎকে বিপন্ন করে তুলেছে। এমন পরিস্থিতিতে ভারতের কলকাতা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সব ধরনের শুটিং বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর আগে ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনেক নির্মাতা ও কলাকুশলী শুটিং থেকে বিরতি নিয়েছেন। এরই মধ্যে বাংলাদেশে শুটিং বাতিল করেছেন চিত্রনায়ক দেব। ২২ মার্চ ‘কমান্ডো’ ছবির শুটের জন্য বাংলাদেশে আসার কথা ছিল তার। এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘কমান্ডো’ ছবির পোস্টার দিয়ে বাংলাদেশে প্রথম কাজ করার আনন্দ শেয়ার করেছিলেন এ নায়ক। করোনাভাইরাস তার সে আনন্দকে মাটি করে দিয়েছে। এদিকে বাংলাদেশি অভিনেতা মোশাররফ করিম কলকাতার বিভিন্ন লোকেশনে সেখানকার ছবি ‘ডিকশনারি’র শুটিং করে গত দুই দিন আগে ঢাকা ফিরেছেন। ওখানকার শুটিংগুলো কিছুটা উদ্বিগ্নের মধ্যে হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন। কলকাতায় করোনাভাইরাস সংকটের মধ্যে ৩০ মার্চ পর্যন্ত টলিউডের শুটিং বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রযোজক, পরিচালক ও কলাকুশলীরা। এ ছাড়া নাটক ও রিয়েলিটি শোর কাজও বন্ধ থাকবে- এমনটাই জানা গেছে। শুটিং বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে সেখানকার টিভি চ্যানেলগুলো বেশ সংকটে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিভিন্ন দেশে বন্ধ হচ্ছে সিনেমাহল পিছিয়ে যাচ্ছে ছবি মুক্তি

চীন থেকে শুরু করে ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়া, বাংলাদেশ; এ রকম বহু দেশের সিনেমা থিয়েটার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কারণ জনসমাগমের কারণে করোনাভাইরাস আরও দ্রুত ছড়ায়। সিনেমা হল জনসমাগমের অন্যতম ক্ষেত্র। তাই হলগুলো বন্ধ করা ছাড়া বিকল্প উপায়ও নেই। তাদের মতো অবস্থায় বিপদ এড়াতে কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছে ভারতের বিভিন্ন রাজ্য সরকার। চলতি মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে দেশের তিন রাজ্যে; জম্মু কাশ্মীর, কেরালা ও দিল্লির সব সিনেমাহল। আর এর মধ্যেই দেশজুড়ে মুক্তি পেয়েছে ইরফান খানের কামব্যাক ফিল্ম ‘আংরেজি মিডিয়াম’। সবকিছু পজেটিভ থাকলেও দর্শকদের কিন্তু ভিড় নেই সিনেমাহলে। করোনাভাইরাসের কারণে আপাতত ছবিটি ব্যবসা করতে না পারায় এর জেরে ছবিটির নির্মাতারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পুনঃমুক্তি দেয়ার। এদিকে সৌদি আরবেও সব সিনেমা হল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। দেশটির জেনারেল অথরিটি ফর অডিওভিজুয়াল মিডিয়ার এক বিবৃতিতে এ ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এমন অবস্থায় বিশ্বের প্রায় সব দেশের সরকার নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে। জনসমাগম এড়ানোর জন্য বিভিন্ন অনুষ্ঠান, সম্মেলন বাতিল করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের ছোবল লেগেছে দেশ সেরা নায়ক শাকিব খান অভিনীত ছবি ‘শাহেনশাহ’তেও। মুক্তির পর এ ছবিটি দেখতে খোদ শাকিব খানের ভক্তরা শঙ্কাবোধ করছেন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ২০ মার্চ সাইমন-অপুর ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’ ছবির মুক্তি পেছানো হয়েছে। শাহরিয়ার নাজিম জয় পরিচালিত ‘আমার মা’ ছবি মুক্তি স্থগিত করা হয়েছে। সেই সঙ্গে মুক্তি পেছানো হয়েছে নির্মাতা ও পরিচালক মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ ছবিটি। এটি ১৩ মার্চ মুক্তির কথা ছিল। এ দুঃসময়ে ‘নীল মুকুট’ ছবিটিও মুক্তি দিতে চান না নির্মাতা কামার আহমাদ সাইমন। ২৭ মার্চ মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল এ ছবির। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে জারি করা সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে জনসমাগম এলাকা এড়িয়ে চলতে। আর সিনেমা হল মানে অবধারিতভাবে অনেক মানুষের সমাগম। স্বাভাবিকভাবে এটি করোনাভাইরাসের ঝুঁকিযুক্ত এলাকা। এ অবস্থায় সারা দেশের হলগুলোতেও কিছুটা প্রভাব পড়তে শুরু করেছে।

করোনার কবলে মঞ্চ নাটক ও উৎসব

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি বৃহৎ আকার ধারণ করার আগেই জনসচেতনতার কথা মাথায় রেখে গতকাল থেকে দেশের সব স্থানে নাটক প্রদর্শনী, মহড়া ও এর কার্যক্রম স্থগিত করেছে বাংলাদেশ গ্র“প থিয়েটার ফেডারেশন। এ খবর নিশ্চিত করেছেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক কামাল বায়েজিদ। অন্যদিকে দক্ষিণ ফ্রান্সের কান শহরে আয়োজন করা হয় বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ ‘কান চলচ্চিত্র উৎসব’। এবারের উৎসব অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ১২ থেকে ২৩ মে পর্যন্ত। করোনাভাইরাসের কারণে এ বছরের কান উৎসবের দিন কাটছে সংশয়ে। সাম্প্রতিক এমন পরিস্থিতি বিবেচনায় বাতিল করা হল আগামী ২২-২৩ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামিতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ‘আলট্রা সঙ্গীত উৎসব’। এ মহামারীর কারণেই স্থগিত হল ‘বেইজিং আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’। ১৯ থেকে ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত হওয়ার কথা ছিল ‘দশম বেইজিং আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’। সেই সঙ্গে ‘রেড সি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’র এবারের সিডিউল ছিল ১২-২১ মার্চ পর্যন্ত। এটি সৌদি আরবে হওয়ার কথা ছিল। করোনাভাইরাসের কারণে আপাতত এসব আয়োজন বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ। এসব উৎসব ছাড়াও আরও কয়েকটি আয়োজন বাতিল ও স্থগিত হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব- হিউম্যান রাইটস ফোরাম, থেসালোনিকি ডকুমেন্টারি উৎসব। করোনাভাইরাসের সংক্রমিতের সংখ্যার মতোই এমন খবরের ফর্দ বাড়ছে।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত