আলাউদ্দীন আলী অধ্যায়ের শুরু ও শেষের গল্পে আমি আছি

সাবিনা ইয়াসমিন

  বিনোদন ডেস্ক ১৩ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গল্পটি ১৯৭৩ কি ৭৪-এর দিকের। আমি চলচ্চিত্রের গানে মনোযোগী সবে হলাম মাত্র। আলাউদ্দীন আলী তখন খুব বাজাতেন। বেহালায় পারদর্শী ছিলেন তিনি।

ওই সময়ে তিনি একটি ছবিতে সঙ্গীত পরিচালনার সুযোগ পান। সব ঠিকঠাক। খুবই আনন্দিত ছিলেন। কিন্তু শেষ অবধি ছবিটি আর হয়নি।

তবে ওই ছবির জন্য যে একটি গান করেছিলেন তা আজও অনেক জনপ্রিয়। গানটি হচ্ছে ‘ও আমার বাংলা মা তোর’। এ গানটি এখনও বাজতে শুনি। তারপর আলাউদ্দীন আলীর প্রথম ছবির প্রথম গানটি আমিই গাই। এর পরের গল্প তো সবারই জানা।

তবে তার শেষের গল্পটি আমাকে খুব কষ্ট দেয়। ওই যে বললাম প্রথম ছবির প্রথম গান আমিই গেয়েছিলাম, তার শেষ ছবির শেষ গানটিও আমি গেয়েছি। এ গানটির কথা ঠিক মনে নেই। ওই ছবির পরিচালক ছিলেন ছটকু আহমেদ। ওই গানে দ্বৈতভাবে কণ্ঠ দেয় সদ্য প্রয়াত এন্ড্রু কিশোর। ছবিতে তার শেষ গান ছিল সেটি। আলাউদ্দীন আলীর অন্তত চার হাজার গান আমি গেয়েছি। তার কথা বলে শেষ করা যাবে না।

তবে এতটুকু বলতে পারি, উপমহাদেশে সেরা কয়েকজন সঙ্গীতজ্ঞের মধ্যে আলাউদ্দীন আলী অন্যতম এবং আমার কাছে সেরাজন। তার মতো এমন সঙ্গীতজ্ঞ আর আসবে না। তার ধ্যান-জ্ঞান সবই ছিল সঙ্গীতকে ঘিরে। ছিলেন খুব আড্ডাবাজও। আড্ডার সময় আড্ডা, আর গানের সময় গান, অন্য কিছু নয়।

কোনো গান করার আগে তিনি যা করতেন তা মনে পড়লে খুব কষ্ট লাগে। তিনি বলতেন, ‘আরে গান তো শুরু করবই আগে একটু আড্ডা হয়ে যাক’। বলেই রান্নার আয়োজন করতেন, সবাই মিলে খাওয়া শেষ গান রেকর্ডিং হতো। আড্ডার সময় আড্ডায় যেমন মনোযোগী ছিলেন ঠিক তেমনই গান রেকর্ডিংয়ের সময় তিনি হারিয়ে যেতেন গানে। যতক্ষণ না তৃপ্ত হতেন ততক্ষণ পর্যন্ত শিল্পীকে দিয়ে গাওয়াতেন।

আমি মনে করি আলাউদ্দীন আলী মরেনি। তার দেহ বিয়োগ হয়েছে কিন্তু তিনি সব সময় বাংলা গানের মাধ্যমে বেঁচে থাকবেন। এমন গুণী ব্যক্তির মরণ নেই। আমরা হয়তো তার করা নতুন গান পাব না কিন্তু তাকে ঠিকই পাব তার করা সৃষ্টিতে। আমি মনে করতে চাই না, আমি ভাবতেও চাই না, আমাদের প্রিয় একজন আলাউদ্দীন আলী ছিলেন! তিনি আছেন সত্যিই আছেন তার গানের মাঝে শ্রোতা ও শিল্পীদের মাঝে।

শ্রুতি লিখন : হাসান সাইদুল

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত