ব্ল্যাক উইডোর অপেক্ষায়
jugantor
হলিউড ছবি
ব্ল্যাক উইডোর অপেক্ষায়

  তারা ঝিলমিল ডেস্ক  

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

‘ব্ল্যাক উইডো’- আরও একটি হলিউডি ধামাকা। আসছে শিগগিরই। ছবিটির অপেক্ষায় দীর্ঘদিন ধরেই প্রহর গুনছেন দর্শকরা। সম্ভবত এ ছবির মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ান নারী পরিচালক কেইট শর্টল্যান্ড আবারও আলোচনায় আসতে যাচ্ছেন হলিউডপাড়ায়।

অনেকের ধারণা, এবারের ছবিটি সম্ভবত তার পরিচালিত আলোচিত ছবি ‘সামারসল্ট’, ‘লরি’ এবং ‘বার্লিন সিনড্রোম’কেও ছাড়িয়ে যাবে। ৬ নভেম্বর মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘ব্ল্যাক ইউডো’ ছবিটিতে অভিনয় করেছেন- স্কারলেট জোহানসন, ফ্লোরেন্স পাফ, ডেভিড হারবার, ওটি ফ্যাগবেনলি, উইলিয়াম হার্ট, রে উইনস্টোন, র‌্যাচেল ওয়েইজ প্রমুখ।

আমেরিকান গায়িকা ও অভিনেত্রী স্কারলেট জোহানসন এরই মধ্যে ক্যারিয়ারের ঝুলিতে জমা করেছেন প্রায় তিন ডজন ছবি। যেগুলোর মধ্যে রয়েছে- হোম অ্যালোন থ্রি, দ্য হর্স হুইসপারার, গোস্ট ওয়ার্ল্ড, ম্যাচপয়েন্ট, স্কুপ, দ্য ব্ল্যাক ডালিয়া, দ্য প্রেস্টিজ, দ্য ন্যানি ডায়েরিজ, দ্য স্পিরিট, আয়রনম্যান-টু প্রভৃতি ছবি।

আর তার সঙ্গীত ক্যারিয়ার চলচ্চিত্রের ব্যস্ততায় কিছুটা বাধাগ্রস্ত হলেও ২০১৮ সালের ১ জুন তার সর্বশেষ সিঙ্গেল প্রকাশিত হয় পেটি ইয়র্নের সঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়ে। গানের শিরোনাম ছিল ‘অ্যাপার্ট’। অন্যদিকে ‘দ্য ফলিং’, ‘লেডি ম্যাকবেথ’, ‘মিডসামার’, ‘লিটলউইম্যান’খ্যাত অভিনেত্রী ফ্লোরেন্স পাফ ইংল্যান্ডের টিভি দর্শকদের কাছে বেশি জনপ্রিয়।

আমেরিকান অভিনেতা ডেভিড হারবার হলিউডে বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছেন ‘ওয়ার অব দ্য ওয়ার্ল্ডস’, ‘এভরিডে’, ‘এন্ড অব ওয়াচ’, ‘নাইফ ফাইট’, ‘পার্কল্যান্ড’ ছবিগুলোর মাধ্যমে। আর ‘ডেথ মেশিন’ দিয়ে আলোচনায় আশা র‌্যাচেল ওয়েইজের ঝুলিতে রয়েছে ‘চেইন রিঅ্যাকশন’, ‘আই ওয়ান্ট ইউ’, ‘দ্য ল্যান্ড গার্লস’, ‘দ্য মাম্মি’, ‘দ্য মাম্মি রিটার্নস’, ‘কনফিডেন্স’, ‘দ্য কনস্ট্যান্ট গার্ডেনার’ প্রভৃতি ছবি।

সবচেয়ে অবাক করা বিষয়, ষোলো বছর আগে লেখা শুরু হয়েছিল এ ছবির গল্প। শুরু থেকেই পরিচালকের ইচ্ছানুযায়ী স্কারলেট জোহানসনকে এ ছবির মূল চরিত্রে রাখা হয়েছিল। তার সঙ্গে বহুবার শিডিউল জটিলতার কারণে এ ছবির কাজ বারবার বাধাগ্রস্ত হয়েছিল।

শেষমেশ ২০১৮ সালে চূড়ান্তভাবে ছবিটির কাজ শুরু হয়। নরওয়ে, বুদাপেস্ট, মরক্কো, আটলান্টা, ম্যাকন, জর্জিয়া প্রভৃতি শহরে ছবিটির বিভিন্ন দৃশ্যায়ন সম্পন্ন হয়। চলতি বছরের মে মাসে ছবিটি মুক্তির তারিখ নির্ধারিত থাকলেও কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে এর মুক্তির তারিখ পেছানো হয়।

স্ট্যান লি, ডন রিকো এবং ডন হেকের পাঠকপ্রিয় কমিক বুক ব্ল্যাক ইউডো অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ছবিটির গল্প। যুদ্ধনির্ভর এ ছবি নির্মাণে খরচ হয়েছে প্রায় ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

হলিউড ছবি

ব্ল্যাক উইডোর অপেক্ষায়

 তারা ঝিলমিল ডেস্ক 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

‘ব্ল্যাক উইডো’- আরও একটি হলিউডি ধামাকা। আসছে শিগগিরই। ছবিটির অপেক্ষায় দীর্ঘদিন ধরেই প্রহর গুনছেন দর্শকরা। সম্ভবত এ ছবির মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ান নারী পরিচালক কেইট শর্টল্যান্ড আবারও আলোচনায় আসতে যাচ্ছেন হলিউডপাড়ায়।

অনেকের ধারণা, এবারের ছবিটি সম্ভবত তার পরিচালিত আলোচিত ছবি ‘সামারসল্ট’, ‘লরি’ এবং ‘বার্লিন সিনড্রোম’কেও ছাড়িয়ে যাবে। ৬ নভেম্বর মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘ব্ল্যাক ইউডো’ ছবিটিতে অভিনয় করেছেন- স্কারলেট জোহানসন, ফ্লোরেন্স পাফ, ডেভিড হারবার, ওটি ফ্যাগবেনলি, উইলিয়াম হার্ট, রে উইনস্টোন, র‌্যাচেল ওয়েইজ প্রমুখ।

আমেরিকান গায়িকা ও অভিনেত্রী স্কারলেট জোহানসন এরই মধ্যে ক্যারিয়ারের ঝুলিতে জমা করেছেন প্রায় তিন ডজন ছবি। যেগুলোর মধ্যে রয়েছে- হোম অ্যালোন থ্রি, দ্য হর্স হুইসপারার, গোস্ট ওয়ার্ল্ড, ম্যাচপয়েন্ট, স্কুপ, দ্য ব্ল্যাক ডালিয়া, দ্য প্রেস্টিজ, দ্য ন্যানি ডায়েরিজ, দ্য স্পিরিট, আয়রনম্যান-টু প্রভৃতি ছবি।

আর তার সঙ্গীত ক্যারিয়ার চলচ্চিত্রের ব্যস্ততায় কিছুটা বাধাগ্রস্ত হলেও ২০১৮ সালের ১ জুন তার সর্বশেষ সিঙ্গেল প্রকাশিত হয় পেটি ইয়র্নের সঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়ে। গানের শিরোনাম ছিল ‘অ্যাপার্ট’। অন্যদিকে ‘দ্য ফলিং’, ‘লেডি ম্যাকবেথ’, ‘মিডসামার’, ‘লিটলউইম্যান’খ্যাত অভিনেত্রী ফ্লোরেন্স পাফ ইংল্যান্ডের টিভি দর্শকদের কাছে বেশি জনপ্রিয়।

আমেরিকান অভিনেতা ডেভিড হারবার হলিউডে বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছেন ‘ওয়ার অব দ্য ওয়ার্ল্ডস’, ‘এভরিডে’, ‘এন্ড অব ওয়াচ’, ‘নাইফ ফাইট’, ‘পার্কল্যান্ড’ ছবিগুলোর মাধ্যমে। আর ‘ডেথ মেশিন’ দিয়ে আলোচনায় আশা র‌্যাচেল ওয়েইজের ঝুলিতে রয়েছে ‘চেইন রিঅ্যাকশন’, ‘আই ওয়ান্ট ইউ’, ‘দ্য ল্যান্ড গার্লস’, ‘দ্য মাম্মি’, ‘দ্য মাম্মি রিটার্নস’, ‘কনফিডেন্স’, ‘দ্য কনস্ট্যান্ট গার্ডেনার’ প্রভৃতি ছবি।

সবচেয়ে অবাক করা বিষয়, ষোলো বছর আগে লেখা শুরু হয়েছিল এ ছবির গল্প। শুরু থেকেই পরিচালকের ইচ্ছানুযায়ী স্কারলেট জোহানসনকে এ ছবির মূল চরিত্রে রাখা হয়েছিল। তার সঙ্গে বহুবার শিডিউল জটিলতার কারণে এ ছবির কাজ বারবার বাধাগ্রস্ত হয়েছিল।

শেষমেশ ২০১৮ সালে চূড়ান্তভাবে ছবিটির কাজ শুরু হয়। নরওয়ে, বুদাপেস্ট, মরক্কো, আটলান্টা, ম্যাকন, জর্জিয়া প্রভৃতি শহরে ছবিটির বিভিন্ন দৃশ্যায়ন সম্পন্ন হয়। চলতি বছরের মে মাসে ছবিটি মুক্তির তারিখ নির্ধারিত থাকলেও কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে এর মুক্তির তারিখ পেছানো হয়।

স্ট্যান লি, ডন রিকো এবং ডন হেকের পাঠকপ্রিয় কমিক বুক ব্ল্যাক ইউডো অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ছবিটির গল্প। যুদ্ধনির্ভর এ ছবি নির্মাণে খরচ হয়েছে প্রায় ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।