ওয়েবে ঝুঁকছেন তারকারা
jugantor
ওয়েবে ঝুঁকছেন তারকারা

  সোহেল আহসান  

১৫ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তথ্যপ্রযুক্তির উন্নতির ছোঁয়া লেগেছে বিনোদন বিশ্বেও। এক সময় টিভি পর্দায় নাটক-সিনেমা দেখলেও বিনোদনপিয়াসীরা এখন অনলাইনে তাদের পছন্দের গল্প কিংবা অভিনয়শিল্পীর কাজ খোঁজেন। তাই দেশি তারকা অভিনয়শিল্পীরাও ব্যাপকভাবে ঝুঁকছেন অনলাইন নাটক কিংবা সিরিজে।

একুশ শতকের শুরু থেকেই বিনোদন দুনিয়ার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে কাজ করার প্রবণতা তৈরি হতে থাকে বাংলাদেশের বিনোদন কর্মীদের। সে সময়ই বেসরকারি টিভি চ্যানেলের আবির্ভাব ঘটে বাংলাদেশে।

এ ধরনের টিভি চ্যানেলের সংখ্যা পর্যায়ক্রমে বৃদ্ধি পেতে থাকলে অনুষ্ঠানেও নিত্যনতুন চিন্তার বহিঃপ্রকাশ ঘটতে দেখা যায়। কিন্তু কয়েক বছর ধরেই টিভি চ্যানেলগুলোর বেশিরভাগ অনুষ্ঠান দায়সারাভাবে নির্মাণ এবং মাত্রাতিরিক্ত বিজ্ঞাপন প্রচারের কারণে দর্শক টিভি চ্যানেল থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে শুরু করে। তাছাড়া টিভি চ্যানেলের আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণেও নির্মাতারা বিকল্প পথ খুঁজতে থাকেন।

এমন অবস্থায় নির্মাতা ও প্রযোজকরা বিকল্প মাধ্যম হিসেবে ওয়েব ফরমেটে ঝুঁকতে শুরু করেন। শুরুতে হাতেগোনা কয়েকটি ওয়েব প্ল্যাটফর্ম কাজ করলেও এখন অনেক প্ল্যাটফর্ম সক্রিয় রয়েছে। তাছাড়া ভিনদেশি প্ল্যাটফর্মগুলোও অর্থলগ্নি করছে ওয়েব কনটেন্ট তৈরি করার বিষয়ে।

এতে করে বিজ্ঞাপন যন্ত্রণামুক্ত থেকে সুবিধাজনক সময়ে দর্শক পছন্দের নাটক কিংবা অনুষ্ঠানটি মোবাইল ফোন থেকেই দেখতে পাচ্ছেন। এভাবে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে অনলাইন বিনোদন দুনিয়া। নবীন অভিনয়শিল্পী থেকে শুরু করে শীর্ষ অভিনয়শিল্পীরা হরদম অভিনয় করছেন ওয়েব নাটক, শর্ট ফিল্ম ও সিরিজে।

করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সব প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ হয়ে গেলে দর্শক বিকল্প মাধ্যম হিসেবে ওয়েবের দিকে ঝুঁকেছেন। এ সুযোগে ওয়েব নাটক কিংবা সিনেমা বানিয়ে দর্শকের পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নিচ্ছে ওয়েব প্ল্যাটফর্মগুলো।

শোনা যাচ্ছে দেশের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান অভিনীত ‘নবাব এলএলবি’ নামের একটি নতুন ছবি অনলাইনে মুক্তি পাবে। এটি যদি দর্শকের পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নেয় তাহলে হয়তো ছবির লগ্নিকারক ও নির্মাতারা অনলাইনেই ছবি মুক্তি দেবেন বলে আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া নাটকের অভিনয়শিল্পী ও নির্মাতারা এখন নিয়মিত ওয়েব সিরিজ ও ওয়েব ফিল্মে কাজ করছেন।

অনেক তারকাশিল্পী টিভি নাটকের চেয়ে ওয়েব মাধ্যমেই বেশি সময় দিচ্ছেন। সম্প্রতি আবু হায়াত মাহমুদের পরিচালনায় ‘ভালো বাসা’ নামের একটি ওয়েব সিরিজে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম ও জাকিয়া বারী মম। এটি কলকাতার একটি ওয়েব পোর্টালে মুক্তি পাবে। গত মাসের মধ্যভাগে এটির শুটিং সম্পন্ন করা হয়। ওয়েব সিরিজে অভিনয় প্রসঙ্গে মম বলেন, ‘আমি সবার আগে গল্প ও চরিত্রের দিকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করি। সেটি যে মাধ্যমই হোক না কেন। তবে কয়েক বছর ধরে ওয়েব সিরিজ কিংবা কনটেন্টের কাজের চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে। আমি বছর দু’য়েক আগে ওয়েব শর্ট ফিল্মে অভিনয় করেছিলাম।

কলকাতার একটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেলেও দেশীয় দর্শকরা সেটি আগ্রহ নিয়ে দেখেছেন। ভালো চরিত্র পেলে ওয়েব মাধ্যমে কাজ করতে কোনো আপত্তি নেই।’ মোশাররফ করিম বলেন, ‘যেহেতু দর্শক এখন এ মাধ্যমেও পছন্দের বিষয় দেখতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন তাই আমিও মাঝে মধ্যে ওয়েব সিরিজ কিংবা অন্য কনটেন্টে কাজ করে যাচ্ছি।’

এদিকে চলতি মাসের প্রায় পুরোটা সময় ভারতীয় একটি ওয়েব প্ল্যাটফর্মের জন্য নির্মিত ‘তকদির’ নামে একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। এ মাধ্যমে কাজ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ইন্টারনেটেই এখন দর্শকরা তাদের পছন্দের শিল্পীর কাজ দেখছেন। টিভিতে নির্দিষ্ট সময়ে বসে দেখার মতো সুযোগ অনেকের হয় না। তাই ইন্টারনেটে সুবিধামতো সময়ে দেখছেন সব। এ কারণে এ মাধ্যমের প্রতি আগ্রহ বাড়ছে সবার। আমিও তার ব্যতিক্রম নই। তবে টেলিভিশনের কাজের প্রতিও আমার সমান আগ্রহ রয়েছে।’

বন্ধন বিশ্বাসের পরিচালনায় ‘জাল’ নামের একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক নিরব। সঙ্গে ছিলেন লাক্স সুন্দরী মিম মানতাসা। এ মাধ্যমে নিরব একেবারেই নতুন। তিনি বলেন, ‘আমি তো ছবির জগতের শিল্পী। তবে এখন শুধু ছবিতেই অভিনয় করছি। কিন্তু হঠাৎ করেই ওয়েব সিরিজে কাজের প্রস্তাব পাই। দর্শক যেহেতু ওয়েব সিরিজ আগ্রহ নিয়ে দেখছেন তাই আমিও আগ্রহ নিয়েই কাজটি করেছি।’

টিভি নাটকের এ সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিন তিশাও সম্প্রতি ওয়েব সিরিজে কাজ করেছেন। সঞ্জয় সমাদ্দারের পরিচালনায় এটির নাম ‘শিকল’। এ প্রসঙ্গে তানজিন তিশা বলেন, ‘অনেক দিন ধরেই ওয়েব সিরিজে অভিনয়ের প্রস্তাব পাচ্ছি। গল্পের কারণেই বিলম্ব হচ্ছিল। আমার মনের মতো একটি চরিত্রে অভিনয় করেছি। নতুন অভিজ্ঞতা। সব মিলিয়ে ভালোই হয়েছে কাজটি।’

একই নির্মাতার পরিচালনায় ‘ট্রল’ নামের ওয়েব সিরিজে গত মাসে অভিনয় করেছেন টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। ওয়েবে কাজ করা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘গল্পের কারণেই ওয়েব সিরিজটিতে অভিনয় করেছি। তাছাড়া ওয়েবের দিকেই সবার নজর এখন। এটাকে এড়িয়ে যাওয়ার কোনো উপায় নেই।’ এদিকে চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি এবং চিত্রনায়ক সিয়ামও সম্প্রতি একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন।

এভাবে ওয়েব ফরমেটে নাটক-সিনেমার শীর্ষ অভিনয়শিল্পীদের অনেকেই কাজ করে যাচ্ছেন। যেভাবে অভিনয়শিল্পী ও সংশ্লিষ্টরা যুক্ত হচ্ছেন অনলাইনভিত্তিক নাটক ও শর্ট ফিল্মে, তাতে করে এক সময় পুরো বিনোদন জগৎটাই হয়তো অনলাইননির্ভর হয়ে পড়তে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা অভিমত ব্যক্ত করেছেন।

ওয়েবে ঝুঁকছেন তারকারা

 সোহেল আহসান 
১৫ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তথ্যপ্রযুক্তির উন্নতির ছোঁয়া লেগেছে বিনোদন বিশ্বেও। এক সময় টিভি পর্দায় নাটক-সিনেমা দেখলেও বিনোদনপিয়াসীরা এখন অনলাইনে তাদের পছন্দের গল্প কিংবা অভিনয়শিল্পীর কাজ খোঁজেন। তাই দেশি তারকা অভিনয়শিল্পীরাও ব্যাপকভাবে ঝুঁকছেন অনলাইন নাটক কিংবা সিরিজে। 

একুশ শতকের শুরু থেকেই বিনোদন দুনিয়ার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে কাজ করার প্রবণতা তৈরি হতে থাকে বাংলাদেশের বিনোদন কর্মীদের। সে সময়ই বেসরকারি টিভি চ্যানেলের আবির্ভাব ঘটে বাংলাদেশে।

এ ধরনের টিভি চ্যানেলের সংখ্যা পর্যায়ক্রমে বৃদ্ধি পেতে থাকলে অনুষ্ঠানেও নিত্যনতুন চিন্তার বহিঃপ্রকাশ ঘটতে দেখা যায়। কিন্তু কয়েক বছর ধরেই টিভি চ্যানেলগুলোর বেশিরভাগ অনুষ্ঠান দায়সারাভাবে নির্মাণ এবং মাত্রাতিরিক্ত বিজ্ঞাপন প্রচারের কারণে দর্শক টিভি চ্যানেল থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে শুরু করে। তাছাড়া টিভি চ্যানেলের আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণেও নির্মাতারা বিকল্প পথ খুঁজতে থাকেন।

এমন অবস্থায় নির্মাতা ও প্রযোজকরা বিকল্প মাধ্যম হিসেবে ওয়েব ফরমেটে ঝুঁকতে শুরু করেন। শুরুতে হাতেগোনা কয়েকটি ওয়েব প্ল্যাটফর্ম কাজ করলেও এখন অনেক প্ল্যাটফর্ম সক্রিয় রয়েছে। তাছাড়া ভিনদেশি প্ল্যাটফর্মগুলোও অর্থলগ্নি করছে ওয়েব কনটেন্ট তৈরি করার বিষয়ে।

এতে করে বিজ্ঞাপন যন্ত্রণামুক্ত থেকে সুবিধাজনক সময়ে দর্শক পছন্দের নাটক কিংবা অনুষ্ঠানটি মোবাইল ফোন থেকেই দেখতে পাচ্ছেন। এভাবে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে অনলাইন বিনোদন দুনিয়া। নবীন অভিনয়শিল্পী থেকে শুরু করে শীর্ষ অভিনয়শিল্পীরা হরদম অভিনয় করছেন ওয়েব নাটক, শর্ট ফিল্ম ও সিরিজে।

করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সব প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ হয়ে গেলে দর্শক বিকল্প মাধ্যম হিসেবে ওয়েবের দিকে ঝুঁকেছেন। এ সুযোগে ওয়েব নাটক কিংবা সিনেমা বানিয়ে দর্শকের পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নিচ্ছে ওয়েব প্ল্যাটফর্মগুলো।

শোনা যাচ্ছে দেশের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান অভিনীত ‘নবাব এলএলবি’ নামের একটি নতুন ছবি অনলাইনে মুক্তি পাবে। এটি যদি দর্শকের পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নেয় তাহলে হয়তো ছবির লগ্নিকারক ও নির্মাতারা অনলাইনেই ছবি মুক্তি দেবেন বলে আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া নাটকের অভিনয়শিল্পী ও নির্মাতারা এখন নিয়মিত ওয়েব সিরিজ ও ওয়েব ফিল্মে কাজ করছেন।

অনেক তারকাশিল্পী টিভি নাটকের চেয়ে ওয়েব মাধ্যমেই বেশি সময় দিচ্ছেন। সম্প্রতি আবু হায়াত মাহমুদের পরিচালনায় ‘ভালো বাসা’ নামের একটি ওয়েব সিরিজে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম ও জাকিয়া বারী মম। এটি কলকাতার একটি ওয়েব পোর্টালে মুক্তি পাবে। গত মাসের মধ্যভাগে এটির শুটিং সম্পন্ন করা হয়। ওয়েব সিরিজে অভিনয় প্রসঙ্গে মম বলেন, ‘আমি সবার আগে গল্প ও চরিত্রের দিকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করি। সেটি যে মাধ্যমই হোক না কেন। তবে কয়েক বছর ধরে ওয়েব সিরিজ কিংবা কনটেন্টের কাজের চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে। আমি বছর দু’য়েক আগে ওয়েব শর্ট ফিল্মে অভিনয় করেছিলাম।

কলকাতার একটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেলেও দেশীয় দর্শকরা সেটি আগ্রহ নিয়ে দেখেছেন। ভালো চরিত্র পেলে ওয়েব মাধ্যমে কাজ করতে কোনো আপত্তি নেই।’ মোশাররফ করিম বলেন, ‘যেহেতু দর্শক এখন এ মাধ্যমেও পছন্দের বিষয় দেখতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন তাই আমিও মাঝে মধ্যে ওয়েব সিরিজ কিংবা অন্য কনটেন্টে কাজ করে যাচ্ছি।’

এদিকে চলতি মাসের প্রায় পুরোটা সময় ভারতীয় একটি ওয়েব প্ল্যাটফর্মের জন্য নির্মিত ‘তকদির’ নামে একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। এ মাধ্যমে কাজ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ইন্টারনেটেই এখন দর্শকরা তাদের পছন্দের শিল্পীর কাজ দেখছেন। টিভিতে নির্দিষ্ট সময়ে বসে দেখার মতো সুযোগ অনেকের হয় না। তাই ইন্টারনেটে সুবিধামতো সময়ে দেখছেন সব। এ কারণে এ মাধ্যমের প্রতি আগ্রহ বাড়ছে সবার। আমিও তার ব্যতিক্রম নই। তবে টেলিভিশনের কাজের প্রতিও আমার সমান আগ্রহ রয়েছে।’

বন্ধন বিশ্বাসের পরিচালনায় ‘জাল’ নামের একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক নিরব। সঙ্গে ছিলেন লাক্স সুন্দরী মিম মানতাসা। এ মাধ্যমে নিরব একেবারেই নতুন। তিনি বলেন, ‘আমি তো ছবির জগতের শিল্পী। তবে এখন শুধু ছবিতেই অভিনয় করছি। কিন্তু হঠাৎ করেই ওয়েব সিরিজে কাজের প্রস্তাব পাই। দর্শক যেহেতু ওয়েব সিরিজ আগ্রহ নিয়ে দেখছেন তাই আমিও আগ্রহ নিয়েই কাজটি করেছি।’

টিভি নাটকের এ সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিন তিশাও সম্প্রতি ওয়েব সিরিজে কাজ করেছেন। সঞ্জয় সমাদ্দারের পরিচালনায় এটির নাম ‘শিকল’। এ প্রসঙ্গে তানজিন তিশা বলেন, ‘অনেক দিন ধরেই ওয়েব সিরিজে অভিনয়ের প্রস্তাব পাচ্ছি। গল্পের কারণেই বিলম্ব হচ্ছিল। আমার মনের মতো একটি চরিত্রে অভিনয় করেছি। নতুন অভিজ্ঞতা। সব মিলিয়ে ভালোই হয়েছে কাজটি।’

একই নির্মাতার পরিচালনায় ‘ট্রল’ নামের ওয়েব সিরিজে গত মাসে অভিনয় করেছেন টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। ওয়েবে কাজ করা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘গল্পের কারণেই ওয়েব সিরিজটিতে অভিনয় করেছি। তাছাড়া ওয়েবের দিকেই সবার নজর এখন। এটাকে এড়িয়ে যাওয়ার কোনো উপায় নেই।’ এদিকে চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি এবং চিত্রনায়ক সিয়ামও সম্প্রতি একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন।

এভাবে ওয়েব ফরমেটে নাটক-সিনেমার শীর্ষ অভিনয়শিল্পীদের অনেকেই কাজ করে যাচ্ছেন। যেভাবে অভিনয়শিল্পী ও সংশ্লিষ্টরা যুক্ত হচ্ছেন অনলাইনভিত্তিক নাটক ও শর্ট ফিল্মে, তাতে করে এক সময় পুরো বিনোদন জগৎটাই হয়তো অনলাইননির্ভর হয়ে পড়তে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা অভিমত ব্যক্ত করেছেন।