কুরবানির ঈদেও নতুন ছবি মুক্তি নিয়ে শঙ্কা
jugantor
কুরবানির ঈদেও নতুন ছবি মুক্তি নিয়ে শঙ্কা
শিথিল হয়েছে লকডাউন। কিন্তু প্রেক্ষাগৃহের জন্য স্পষ্ট কোনো নির্দেশনা নেই। তাই রোজার ঈদের মতো কুরবানির ঈদেও ছবি মুক্তি নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। বিস্তারিত রয়েছে এ প্রতিবেদনে

  তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক  

১৫ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চলছে কঠোর লকডাউন। যদিও সেটি আজ থেকে আট দিনের জন্য শিথিল করেছে সরকার। ১৫ থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত কঠোর লকডাউন শর্তসাপেক্ষে শিথিল থাকবে। এরপর আবারও ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত কঠোর লকডাউন। মাঝে ৮ দিন শিথিল থাকলেও এ সময়ে বিনোদন কেন্দ্র খোলা থাকবে কি না সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো ধারণা দেওয়া হয়নি।

কেউ মানুক আর না মানুক, কিংবা করোনার ভীতি থাকুক আর না থাকুক, সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী অন্য সবকিছুর সঙ্গে চলমান কঠোর লকডাউনে দেশের সব বিনোদন কেন্দ্রও বন্ধ রয়েছে। ফলে গত রোজার ঈদের মতো আবারও শঙ্কায় পড়েছে কুরবানির ঈদে মুক্তির অপেক্ষায় থাকা বিগ বাজেটের বেশ ক’টি ছবি।

কঠোর লকডাউনে বন্ধ হওয়ার আগে সর্বশেষ সিনেমা হলে শাকিব খান অভিনীত ও অনন্য মামুন পরিচালিত ‘নবাব এলএলবি’ নামে একটি ছবি মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু কপাল খারাপ। মুক্তির মাত্র তিন দিনের মধ্যেই করোনা সতর্কতায় ফের নিশেধাজ্ঞার কারণে সিনেমা হলে তালা লাগাতে বাধ্য হয়েছেন মালিকরা। শাকিবের ছবি দিয়ে বন্ধ থাকা বেশক’টি সিনেমা হল চালু হয়েছিল। আশায় বুক বেঁধেছিলেন হলমালিকরা। কিন্তু সে আশায় গুড়েবালি। অথচ গত রোজার ঈদের আগ থেকেই হলমালিক ও দর্শকরা অপেক্ষা করছিলেন এ নায়কের একেবারে ঝাঁ চকচকে ছবির জন্য। সেটি প্রায় প্রস্তুতও করে ফেলেছিলেন নির্মাতা ওয়াজেদ আলী সুমন। ‘অন্তরাত্মা’ নামে সেই ছবি রোজার ঈদে মুক্তির ঘোষণা দিয়েই শুটিং শুরু হয়েছিল। দৃশ্যায়নের কাজ শেষ হলেও করোনাভাইরাসের কারণে বিদেশে গানের শুটিংয়ে যেতে পারেনি টিম। তাই বাধ্য হয়ে মুক্তির সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে হয়েছে প্রযোজককে। আশা ছিল কুরবানির ঈদে হয়তো পর্দায় ফেলতে পারবেন। কিন্তু সেটা নিয়েও এবার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা, করোনার জন্য ছবির কাজও এখন পর্যন্ত শেষ করতে পারেননি নির্মাতা।

এমনিতেই গত বছরের দুটি ঈদে কোনো নতুন ছবি মুক্তি পায়নি। এ বছরের রোজার ঈদও গেছে ভাটায়। এ সময় মুক্তির ঘোষণায় ছিল শাকিব-বুবলী অভিনীত ও শাহীন সুমন পরিচালিত ‘বিদ্রোহী’, আরেফিন শুভ অভিনীত ‘মিশন এক্সট্রিম’, দীপঙ্কর দীপন পরিচালিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’, সিয়াম ও পূজা অভিনীত ‘শান’, অঞ্জন আইচের পরিচালনায় ‘আগামীকাল’ মাহমুদ দিদার পরিচালিত ও জয়া আহসান অভিনীত ‘বিউটি সার্কাস’, নাদের চৌধুরী পরিচালিত ও সজল এবং পূজা অভিনীত ‘জ্বীন’, এফ আই মানিকের ‘সৌভাগ্য’ ও শামীম আহমেদ রনির পরিচালনায় ‘বিদ্রোহী’সহ আরও কিছু ছবি। কিন্তু কোনো ছবিই এ রোজার ঈদে মুক্তি পায়নি। স্বভাবত সবাই চোখ রেখেছিলেন কুরবানির ঈদের দিকে। সেটিও বোধহয় আর সম্ভব হচ্ছে না।

এদিকে ছবি মুক্তি না দিতে পারার কারণে বড় ধরনের একটি জট তৈরি হচ্ছে। বিশেষ করে উৎসবকে কেন্দ্র করে বিগ বাজেটের ছবিগুলো তৈরি হয়। অথচ দুই বছরে সাতটি উৎসব চলে গেল, ছবিসংশ্লিষ্টরা শূন্য হাতেই বসে রইলেন। তারপরও কুরবানির ঈদে সাহস করে নতুন ছবি মুক্তি দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নির্মাতা অনন্য মামুন। নিরব ও প্রিয়মনিকে নিয়ে নির্মিত ‘কসাই’ নামে একটি ছবি এর জন্য প্রস্তুতও রেখেছেন। অবশ্য এ ছবিটি আগেই ওটিটি প্লাটফরমে মুক্তি পেয়েছে। অন্যদিকে একই পরিচালক পরীক্ষামূলকভাবে শাকিবের ‘নবাব এলএলবি’ দিয়ে করোনাকালে সিনেমা হলের সম্ভাব্যতা যাচাই করেছিলেন। বলা যায় সেটি সফলও হচ্ছিল। এবার আট দিনের জন্য লকডাউন শিথিলের ঘোষণায় কুরবানির ঈদে সিনেমা হল খুলবে কি না, সেটা স্পষ্ট না করায় নতুন ছবি মুক্তি নিয়েও শঙ্কায় আছেন সবাই। অপেক্ষা এখন সময়ের।

কুরবানির ঈদেও নতুন ছবি মুক্তি নিয়ে শঙ্কা

শিথিল হয়েছে লকডাউন। কিন্তু প্রেক্ষাগৃহের জন্য স্পষ্ট কোনো নির্দেশনা নেই। তাই রোজার ঈদের মতো কুরবানির ঈদেও ছবি মুক্তি নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। বিস্তারিত রয়েছে এ প্রতিবেদনে
 তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক 
১৫ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চলছে কঠোর লকডাউন। যদিও সেটি আজ থেকে আট দিনের জন্য শিথিল করেছে সরকার। ১৫ থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত কঠোর লকডাউন শর্তসাপেক্ষে শিথিল থাকবে। এরপর আবারও ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত কঠোর লকডাউন। মাঝে ৮ দিন শিথিল থাকলেও এ সময়ে বিনোদন কেন্দ্র খোলা থাকবে কি না সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো ধারণা দেওয়া হয়নি।

কেউ মানুক আর না মানুক, কিংবা করোনার ভীতি থাকুক আর না থাকুক, সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী অন্য সবকিছুর সঙ্গে চলমান কঠোর লকডাউনে দেশের সব বিনোদন কেন্দ্রও বন্ধ রয়েছে। ফলে গত রোজার ঈদের মতো আবারও শঙ্কায় পড়েছে কুরবানির ঈদে মুক্তির অপেক্ষায় থাকা বিগ বাজেটের বেশ ক’টি ছবি।

কঠোর লকডাউনে বন্ধ হওয়ার আগে সর্বশেষ সিনেমা হলে শাকিব খান অভিনীত ও অনন্য মামুন পরিচালিত ‘নবাব এলএলবি’ নামে একটি ছবি মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু কপাল খারাপ। মুক্তির মাত্র তিন দিনের মধ্যেই করোনা সতর্কতায় ফের নিশেধাজ্ঞার কারণে সিনেমা হলে তালা লাগাতে বাধ্য হয়েছেন মালিকরা। শাকিবের ছবি দিয়ে বন্ধ থাকা বেশক’টি সিনেমা হল চালু হয়েছিল। আশায় বুক বেঁধেছিলেন হলমালিকরা। কিন্তু সে আশায় গুড়েবালি। অথচ গত রোজার ঈদের আগ থেকেই হলমালিক ও দর্শকরা অপেক্ষা করছিলেন এ নায়কের একেবারে ঝাঁ চকচকে ছবির জন্য। সেটি প্রায় প্রস্তুতও করে ফেলেছিলেন নির্মাতা ওয়াজেদ আলী সুমন। ‘অন্তরাত্মা’ নামে সেই ছবি রোজার ঈদে মুক্তির ঘোষণা দিয়েই শুটিং শুরু হয়েছিল। দৃশ্যায়নের কাজ শেষ হলেও করোনাভাইরাসের কারণে বিদেশে গানের শুটিংয়ে যেতে পারেনি টিম। তাই বাধ্য হয়ে মুক্তির সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে হয়েছে প্রযোজককে। আশা ছিল কুরবানির ঈদে হয়তো পর্দায় ফেলতে পারবেন। কিন্তু সেটা নিয়েও এবার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা, করোনার জন্য ছবির কাজও এখন পর্যন্ত শেষ করতে পারেননি নির্মাতা।

এমনিতেই গত বছরের দুটি ঈদে কোনো নতুন ছবি মুক্তি পায়নি। এ বছরের রোজার ঈদও গেছে ভাটায়। এ সময় মুক্তির ঘোষণায় ছিল শাকিব-বুবলী অভিনীত ও শাহীন সুমন পরিচালিত ‘বিদ্রোহী’, আরেফিন শুভ অভিনীত ‘মিশন এক্সট্রিম’, দীপঙ্কর দীপন পরিচালিত ‘অপারেশন সুন্দরবন’, সিয়াম ও পূজা অভিনীত ‘শান’, অঞ্জন আইচের পরিচালনায় ‘আগামীকাল’ মাহমুদ দিদার পরিচালিত ও জয়া আহসান অভিনীত ‘বিউটি সার্কাস’, নাদের চৌধুরী পরিচালিত ও সজল এবং পূজা অভিনীত ‘জ্বীন’, এফ আই মানিকের ‘সৌভাগ্য’ ও শামীম আহমেদ রনির পরিচালনায় ‘বিদ্রোহী’সহ আরও কিছু ছবি। কিন্তু কোনো ছবিই এ রোজার ঈদে মুক্তি পায়নি। স্বভাবত সবাই চোখ রেখেছিলেন কুরবানির ঈদের দিকে। সেটিও বোধহয় আর সম্ভব হচ্ছে না।

এদিকে ছবি মুক্তি না দিতে পারার কারণে বড় ধরনের একটি জট তৈরি হচ্ছে। বিশেষ করে উৎসবকে কেন্দ্র করে বিগ বাজেটের ছবিগুলো তৈরি হয়। অথচ দুই বছরে সাতটি উৎসব চলে গেল, ছবিসংশ্লিষ্টরা শূন্য হাতেই বসে রইলেন। তারপরও কুরবানির ঈদে সাহস করে নতুন ছবি মুক্তি দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নির্মাতা অনন্য মামুন। নিরব ও প্রিয়মনিকে নিয়ে নির্মিত ‘কসাই’ নামে একটি ছবি এর জন্য প্রস্তুতও রেখেছেন। অবশ্য এ ছবিটি আগেই ওটিটি প্লাটফরমে মুক্তি পেয়েছে। অন্যদিকে একই পরিচালক পরীক্ষামূলকভাবে শাকিবের ‘নবাব এলএলবি’ দিয়ে করোনাকালে সিনেমা হলের সম্ভাব্যতা যাচাই করেছিলেন। বলা যায় সেটি সফলও হচ্ছিল। এবার আট দিনের জন্য লকডাউন শিথিলের ঘোষণায় কুরবানির ঈদে সিনেমা হল খুলবে কি না, সেটা স্পষ্ট না করায় নতুন ছবি মুক্তি নিয়েও শঙ্কায় আছেন সবাই। অপেক্ষা এখন সময়ের।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন