নতুন পুরোনোর মিশেলে মেতেছিল নাট্যাঙ্গন
jugantor
নতুন পুরোনোর মিশেলে মেতেছিল নাট্যাঙ্গন
ঈদের বিশেষ আয়োজন নিয়ে নাট্যাঙ্গন মেতেছিল। দর্শকও তাই আনন্দ আয়োজনে মশগুল ছিলেন। ঈদের কাজ নিয়ে এখন শুরু হয়েছে নানা হিসাব-নিকাশ। কে এগিয়ে আর কে পিছিয়ে, তা নিয়ে চলছে বিশ্লেষণ। দর্শকও তাদের মতামত ব্যক্ত করছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

  তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক  

১২ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বছর ঘুরে উদযাপিত হয়ে গেল মুসলিমদের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। ঈদের আনন্দকে বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য যেসব অনুষঙ্গ ছিল, তার মধ্যে অন্যতম একটি মাধ্যম হলো নাটক। করোনার কারণে গত দুবছর ধরে প্রায় অর্ধেকের বেশি প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ থাকায় নাটক দিয়েই ঈদ বিনোদনের চাহিদা পূরণ করতে হয়েছে। এবার করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকায় অভিনয়শিল্পী থেকে শুরু করে নির্মাতা ও কলাকুশলীরাও ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন ঈদের নাটক নির্মাণের জন্য। সব মিলিয়ে ঈদ আয়োজনের সাতটি দিন নাটক নিয়ে দর্শকের মধ্যেও ছিল এক ধরনের স্বস্তি। প্রত্যাশা অনুযায়ী দর্শক তাদের পছন্দের নাটক উপভোগ করেছেন স্বাভাবিকভাবেই।

টেলিভিশনের পাশাপাশি ইউটিউবসহ অনলাইন প্লাটফরমগুলোতেও ছিল নতুন নাটকের ছড়াছড়ি। দর্শক এ দুই ফরমেটেই তাদের পছন্দের নাটক উপভোগ করেছেন। এবার ঈদের নাটক নির্মাণ ফিরেছিলেন অনেক প্রথিতযশা নির্মাতা। পাশাপাশি তরুণ একঝাঁক নির্মাতাকেও দেখা গেছে। তরুণদের নির্মিত নাটক নিয়ে দর্শকের আগ্রহও ছিল লক্ষণীয়। সবকিছু ছাপিয়ে আলোচনায় ছিলেন অভিনয়শিল্পীরা।

গত কয়েক বছর ঈদের নাটকে অল্প বিস্তর নতুন নাটকে অভিনয় করলেও এবারের ঈদে খোলস ছেড়ে বেরিয়েছিলেন মোশাররফ করিম। প্রায় প্রতিটি টিভি চ্যানেলেই তার অভিনীত নতুন নাটক প্রচার হতে দেখা গেছে। একখণ্ডের পাশাপাশি ঈদ ধারাবাহিকেও তিনি ছিলেন সপ্রতিভ। তার বিপরীতে যারা অভিনয় করেছেন তাদের অনেকেই আবার নবীন অভিনেত্রী। এতে করে এক ধরনের অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমেই নাটকগুলো তৈরি হয়েছিল বলে বোদ্ধাদের মত। তা ছাড়া চরিত্রের দিক থেকেও বেশ বৈচিত্র্য দেখা গেছে মোশাররফ করিমকে নিয়ে। এ ছাড়া সুনিপুণ অভিনয়শৈলী প্রদর্শনের জন্য এবারও নিজেকে অনন্য এক উচ্চতায় নিয়ে গেছেন এ অভিনেতা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি শুধু মানসম্মত নাটকে অভিনয় করার চেষ্টা করি। বাকিটুকুর বিচারের মালিক দর্শক।’

গত বছরের কুরবানির ঈদে সর্বাধিক নাটকে অভিনয় করে আলোচনায় ছিলেন মীর সাব্বির। কিন্তু গত ঈদে তাকে অভিনয়ে সেভাবে সক্রিয় দেখা যায়নি। কয়েকটি নাটকে অভিনয় করলেও নির্মাণের দিকে বেশি সময় দিতে দেখা গেছে। তবে কুরবানি ঈদে তিনি অভিনয়ে বেশি গুরুত্ব দেবেন, এমনটাই জানিয়েছেন যুগান্তরকে। জাহিদ হাসান ঈদের নাটকে বরাবরই সক্রিয় থাকেন; কিন্তু গত ঈদে তাকে হাতেগোনা কয়েকটি নাটকে অভিনয় করতে দেখা গেছে। ওমরাহ পালনের জন্য সৌদি আরবে ছিলেন এ অভিনেতা। তবে কুরবানির ঈদে তার অভিনয় ব্যস্ততা বাড়বে বলে আভাস পাওয়া গেছে। আরেক সিনিয়র অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীও সক্রিয় ছিলেন ঈদ নাটক নিয়ে। কিন্তু খুব বেশি অলোচনায় ছিলেন না তিনি। জিয়াউল ফারুক অপূর্ব খুব বেশি কাজ না করলেও যেকটি নাটকে অভিনয় করেছেন, তার প্রত্যেকটিই দর্শকের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। বিদেশে অবস্থান এবং বাবার মৃত্যুর কারণে বেশ কিছুদিন শুটিংয়ের বাইরে থাকতে হয়েছিল এ অভিনেতাকে। অন্যদিকে আফরান নিশো বিরতিহীনভাবে অসংখ্য নাটকে অভিনয় করলেও তার প্রতি যে প্রত্যাশা ছিল, তা পূরণে অনেকটাই ব্যর্থ হয়েছেন তিনি।

গত ঈদে সিনিয়রদের টপকে নবীন ও অপেক্ষাকৃত তরুণ অভিনয়শিল্পীদের নাটকের দিকে দর্শকের ঝোঁক ছিল বেশি। তাদের মধ্যে তৌসিফ মাহবুব বেশ ব্যস্ত ছিলেন ঈদের নাটকে। তার অভিনীত নাটক টিভি ও অনলাইন প্ল্যাটফরমে একযোগে প্রচার হয়েছে। ঈদে এর মধ্য থেকে বেশ কয়েকটি নাটকের দর্শক সংখ্যা ছিল প্রত্যাশাতীত। সময়ের আলোচিত অভিনেতা ফারহান আহমেদ জোভান অভিনীত কয়েকটি নাটক বেশ দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে। এ ছাড়া মনোজ প্রামাণিক, মুশফিক ফারহান, এফএস নাঈমরাও ঈদ নাটকে অভিনয় করে আলোচনায় ছিলেন।

অভিনেত্রীদের মধ্যে মেহজাবিন চৌধুরী বরাবরই আলোচনায় ছিলেন। ঈদেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। কমসংখ্যক নাটকে অভিনয় করলেও তার অভিনীত নাটকগুলো দর্শকের হৃদয়ে দাগ কাটতে সক্ষম হয়েছিল। তানজিন তিশাও ছিলেন ঈদের নাটকের আলোচিত অভিনেত্রী। ঈদের আগে বেশ লম্বা সময় অভিনয়ে অনুপস্থিত থাকলেও ঈদের ব্যস্ত সময়ে তাকে নাটকে ফিরতে দেখা গেছে। বিয়ে এবং পারিপার্শ্বিক নানা কারণে কিছুদিন শুটিং না করলেও ঈদের নাটক দিয়ে অভিনয়ে নিয়মিত হওয়ার চেষ্টায় দেখা গেছে সারিকাকে। এবারের ঈদে দুটি নাটকে অভিনয় করলেও মিডিয়ায় আলোচনায় ছিলেন এক সময়ের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী আনিকা কবির শখ। এ ছাড়া কেয়া পায়েল বয়সে তরুণ হলেও জনপ্রিয় অভিনেতাদের বিপরীতে অভিনয় করে বেশ আলোচনা তৈরি করেছেন। কুরবানি ঈদে কারা প্রতিযোগিতায় এগিয়ে থাকবেন, তা নিয়ে এখনই হিসাব-নিকাশ শুরু করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

নতুন পুরোনোর মিশেলে মেতেছিল নাট্যাঙ্গন

ঈদের বিশেষ আয়োজন নিয়ে নাট্যাঙ্গন মেতেছিল। দর্শকও তাই আনন্দ আয়োজনে মশগুল ছিলেন। ঈদের কাজ নিয়ে এখন শুরু হয়েছে নানা হিসাব-নিকাশ। কে এগিয়ে আর কে পিছিয়ে, তা নিয়ে চলছে বিশ্লেষণ। দর্শকও তাদের মতামত ব্যক্ত করছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
 তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক 
১২ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বছর ঘুরে উদযাপিত হয়ে গেল মুসলিমদের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। ঈদের আনন্দকে বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য যেসব অনুষঙ্গ ছিল, তার মধ্যে অন্যতম একটি মাধ্যম হলো নাটক। করোনার কারণে গত দুবছর ধরে প্রায় অর্ধেকের বেশি প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ থাকায় নাটক দিয়েই ঈদ বিনোদনের চাহিদা পূরণ করতে হয়েছে। এবার করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকায় অভিনয়শিল্পী থেকে শুরু করে নির্মাতা ও কলাকুশলীরাও ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন ঈদের নাটক নির্মাণের জন্য। সব মিলিয়ে ঈদ আয়োজনের সাতটি দিন নাটক নিয়ে দর্শকের মধ্যেও ছিল এক ধরনের স্বস্তি। প্রত্যাশা অনুযায়ী দর্শক তাদের পছন্দের নাটক উপভোগ করেছেন স্বাভাবিকভাবেই।

টেলিভিশনের পাশাপাশি ইউটিউবসহ অনলাইন প্লাটফরমগুলোতেও ছিল নতুন নাটকের ছড়াছড়ি। দর্শক এ দুই ফরমেটেই তাদের পছন্দের নাটক উপভোগ করেছেন। এবার ঈদের নাটক নির্মাণ ফিরেছিলেন অনেক প্রথিতযশা নির্মাতা। পাশাপাশি তরুণ একঝাঁক নির্মাতাকেও দেখা গেছে। তরুণদের নির্মিত নাটক নিয়ে দর্শকের আগ্রহও ছিল লক্ষণীয়। সবকিছু ছাপিয়ে আলোচনায় ছিলেন অভিনয়শিল্পীরা।

গত কয়েক বছর ঈদের নাটকে অল্প বিস্তর নতুন নাটকে অভিনয় করলেও এবারের ঈদে খোলস ছেড়ে বেরিয়েছিলেন মোশাররফ করিম। প্রায় প্রতিটি টিভি চ্যানেলেই তার অভিনীত নতুন নাটক প্রচার হতে দেখা গেছে। একখণ্ডের পাশাপাশি ঈদ ধারাবাহিকেও তিনি ছিলেন সপ্রতিভ। তার বিপরীতে যারা অভিনয় করেছেন তাদের অনেকেই আবার নবীন অভিনেত্রী। এতে করে এক ধরনের অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমেই নাটকগুলো তৈরি হয়েছিল বলে বোদ্ধাদের মত। তা ছাড়া চরিত্রের দিক থেকেও বেশ বৈচিত্র্য দেখা গেছে মোশাররফ করিমকে নিয়ে। এ ছাড়া সুনিপুণ অভিনয়শৈলী প্রদর্শনের জন্য এবারও নিজেকে অনন্য এক উচ্চতায় নিয়ে গেছেন এ অভিনেতা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি শুধু মানসম্মত নাটকে অভিনয় করার চেষ্টা করি। বাকিটুকুর বিচারের মালিক দর্শক।’

গত বছরের কুরবানির ঈদে সর্বাধিক নাটকে অভিনয় করে আলোচনায় ছিলেন মীর সাব্বির। কিন্তু গত ঈদে তাকে অভিনয়ে সেভাবে সক্রিয় দেখা যায়নি। কয়েকটি নাটকে অভিনয় করলেও নির্মাণের দিকে বেশি সময় দিতে দেখা গেছে। তবে কুরবানি ঈদে তিনি অভিনয়ে বেশি গুরুত্ব দেবেন, এমনটাই জানিয়েছেন যুগান্তরকে। জাহিদ হাসান ঈদের নাটকে বরাবরই সক্রিয় থাকেন; কিন্তু গত ঈদে তাকে হাতেগোনা কয়েকটি নাটকে অভিনয় করতে দেখা গেছে। ওমরাহ পালনের জন্য সৌদি আরবে ছিলেন এ অভিনেতা। তবে কুরবানির ঈদে তার অভিনয় ব্যস্ততা বাড়বে বলে আভাস পাওয়া গেছে। আরেক সিনিয়র অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীও সক্রিয় ছিলেন ঈদ নাটক নিয়ে। কিন্তু খুব বেশি অলোচনায় ছিলেন না তিনি। জিয়াউল ফারুক অপূর্ব খুব বেশি কাজ না করলেও যেকটি নাটকে অভিনয় করেছেন, তার প্রত্যেকটিই দর্শকের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। বিদেশে অবস্থান এবং বাবার মৃত্যুর কারণে বেশ কিছুদিন শুটিংয়ের বাইরে থাকতে হয়েছিল এ অভিনেতাকে। অন্যদিকে আফরান নিশো বিরতিহীনভাবে অসংখ্য নাটকে অভিনয় করলেও তার প্রতি যে প্রত্যাশা ছিল, তা পূরণে অনেকটাই ব্যর্থ হয়েছেন তিনি।

গত ঈদে সিনিয়রদের টপকে নবীন ও অপেক্ষাকৃত তরুণ অভিনয়শিল্পীদের নাটকের দিকে দর্শকের ঝোঁক ছিল বেশি। তাদের মধ্যে তৌসিফ মাহবুব বেশ ব্যস্ত ছিলেন ঈদের নাটকে। তার অভিনীত নাটক টিভি ও অনলাইন প্ল্যাটফরমে একযোগে প্রচার হয়েছে। ঈদে এর মধ্য থেকে বেশ কয়েকটি নাটকের দর্শক সংখ্যা ছিল প্রত্যাশাতীত। সময়ের আলোচিত অভিনেতা ফারহান আহমেদ জোভান অভিনীত কয়েকটি নাটক বেশ দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে। এ ছাড়া মনোজ প্রামাণিক, মুশফিক ফারহান, এফএস নাঈমরাও ঈদ নাটকে অভিনয় করে আলোচনায় ছিলেন।

অভিনেত্রীদের মধ্যে মেহজাবিন চৌধুরী বরাবরই আলোচনায় ছিলেন। ঈদেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। কমসংখ্যক নাটকে অভিনয় করলেও তার অভিনীত নাটকগুলো দর্শকের হৃদয়ে দাগ কাটতে সক্ষম হয়েছিল। তানজিন তিশাও ছিলেন ঈদের নাটকের আলোচিত অভিনেত্রী। ঈদের আগে বেশ লম্বা সময় অভিনয়ে অনুপস্থিত থাকলেও ঈদের ব্যস্ত সময়ে তাকে নাটকে ফিরতে দেখা গেছে। বিয়ে এবং পারিপার্শ্বিক নানা কারণে কিছুদিন শুটিং না করলেও ঈদের নাটক দিয়ে অভিনয়ে নিয়মিত হওয়ার চেষ্টায় দেখা গেছে সারিকাকে। এবারের ঈদে দুটি নাটকে অভিনয় করলেও মিডিয়ায় আলোচনায় ছিলেন এক সময়ের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী আনিকা কবির শখ। এ ছাড়া কেয়া পায়েল বয়সে তরুণ হলেও জনপ্রিয় অভিনেতাদের বিপরীতে অভিনয় করে বেশ আলোচনা তৈরি করেছেন। কুরবানি ঈদে কারা প্রতিযোগিতায় এগিয়ে থাকবেন, তা নিয়ে এখনই হিসাব-নিকাশ শুরু করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন