নাট্যাঙ্গনে চলছে শেষ সময়ের প্রস্তুতি
jugantor
নাট্যাঙ্গনে চলছে শেষ সময়ের প্রস্তুতি

  তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক  

৩০ জুন ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আর মাত্র ৯ দিন পরই কুরবানির ঈদ। এ সময় বরাবরই টিভি চ্যানেলগুলো হরেক রকমের নাটক অনুষ্ঠান প্রচারের দিকে বেশি নজর দেয়। তার মধ্যে নাটকের আধিক্য লক্ষণীয়। এখন অবশ্য ওটিটি প্ল্যাটফরমও সঙ্গে প্রচারমাধ্যম হিসাবে যুক্ত হয়েছে। সব মিলিয়ে নির্মাতা ও কলাকুশলীরা এখন দারুণ ব্যস্ত নাটক নিয়ে। বলা যায় শেষ সময়ের প্রস্তুতি চলছে এখন নাট্যাঙ্গনে।

গত রোজার ঈদের পর থেকে এ ঈদ পর্যন্ত একটি বড় পরিবর্তন লক্ষ করা যাচ্ছে। গত ঈদে যেমন নবীন ও তরুণ অভিনয়শিল্পীদের প্রাধান্য ছিল বেশি। কুরবানির ঈদে সিনিয়র অভিনয়শিল্পীরাও চালকের আসনে রয়েছেন। বিশেষ করে মোশাররফ করিম স্বরূপে হাজির হচ্ছেন নাটক নিয়ে। প্রায় সব ধরনের চরিত্রেই অভিনয় করেছেন আগামী ঈদের নাটকে। এক ডজনেরও বেশি নাটকে তার শুটিং সম্পন্ন হয়েছে। বাকি যে কদিন আছে এর মধ্যেও কয়েকটি একখণ্ডের নাটকে অভিনয়ের কথা রয়েছে। আগামী ঈদের নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে এ অভিনেতা বলেন, ‘আগামী ঈদে আমার অভিনীত নাটকগুলোয় গল্পের বৈচিত্র্য আছে। আমি নিজেও চরিত্রগুলো ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি। দর্শক কীভাবে নেবেন আমার অভিনয় সেটা জানার অপেক্ষায় আছি।’

আরেক জ্যেষ্ঠ অভিনেতা জাহিদ হাসানও ঈদের নাটকে অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। রোজার ঈদের আগে ওমরাহ পালনের জন্য দীর্ঘ সময় সৌদি আরবে অবস্থান করেছিলেন তিনি। যার কারণে তাকে তখন সেভাবে অভিনয় করতে দেখা যায়নি। কুরবানির ঈদের নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে জাহিদ হাসান বলেন, ‘দর্শকদের কথা মাথায় রেখেই অভিনয় করছি ঈদের নাটকে। যেকটি নাটকে এ পর্যন্ত অভিনয় করেছি, তার সবকটি গল্পেই বৈচিত্র্য আছে। আশা করছি নাটকগুলো উপভোগ্যই হবে।’

সারা বছরই নাটকে অভিনয়ের ব্যস্ততা থাকে অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বের। ঈদ এলে সে ব্যস্ততা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। রোজার ঈদের কিছুদিন আগে অপূর্বের বাবা মারা যান। যার কারণে তিনি প্রত্যাশার চেয়েও কম নাটকে অভিনয় করেছিলেন। এবার কোনো ধরনের বিরতি নেই। তাই তিনি রোজার ঈদের পর থেকেই কুরবানির ঈদের নাটকে অভিনয় শুরু করেছেন। এ প্রসঙ্গে অপূর্ব বলেন, ‘ঈদের আগের দিন পর্যন্ত আমার শুটিং আছে। কারণ যে পরিমাণ নাটকে অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছি তার অর্ধেকও শেষ করতে পারব না। তবে যেসব নাটকে অভিনয় করেছি সেগুলো নিয়ে আমি আশাবাদী যে দর্শক তা গ্রহণ করবেন।’

অভিনেতা ও নির্মাতা মীর সাব্বির ২০২১ সালের রোজার ঈদে সর্বোচ্চ সংখ্যক নাটকে অভিনয় করেছিলেন। তবে চলতি বছরের রোজার ঈদে তিনি অভিনয়ে সক্রিয় থাকলেও এবারের ঈদে নাটক নির্মাণের কারণে ঈদের নাটকে কিছুটা কম সময় দিচ্ছেন। তারপরও তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নাটক ঈদে প্রচার হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। টিভি নাটকের আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা আফরান নিশোও বরাবরের মতো নাটকেই শুধু অভিনয় করে যাচ্ছেন। ঈদেও তার উপস্থিতি থাকবে টিভি থেকে শুরু করে অনলাইন মাধ্যমগুলোতে। তারও বিশাল সংখ্যক দর্শক রয়েছে। এদিকে অভিনেত্রীদের মধ্যে এবারও কাজের বিবেচনায় শীর্ষস্থানেই থাকছেন মেহজাবিন চৌধুরী। তিনি একখণ্ডের নাটকেই শুধু অভিনয় করে যাচ্ছেন। এ ছাড়া সাবিলা নূর, তানজিন তিশা, কেয়া পায়েল, সাফা কবিররা নারী অভিনেত্রীদের মধ্যে আলোচনায় থাকবেন বলে ভাবছেন নাটকসংশ্লিষ্টরা। আগামী ঈদের নাটকে তাই নবীন-প্রবীণের মিশেলে এক চমৎকার সমন্বয় দেখা যাবে বলে অনুমান করছেন দর্শকমহল।

নাট্যাঙ্গনে চলছে শেষ সময়ের প্রস্তুতি

 তারা ঝিলমিল প্রতিবেদক 
৩০ জুন ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আর মাত্র ৯ দিন পরই কুরবানির ঈদ। এ সময় বরাবরই টিভি চ্যানেলগুলো হরেক রকমের নাটক অনুষ্ঠান প্রচারের দিকে বেশি নজর দেয়। তার মধ্যে নাটকের আধিক্য লক্ষণীয়। এখন অবশ্য ওটিটি প্ল্যাটফরমও সঙ্গে প্রচারমাধ্যম হিসাবে যুক্ত হয়েছে। সব মিলিয়ে নির্মাতা ও কলাকুশলীরা এখন দারুণ ব্যস্ত নাটক নিয়ে। বলা যায় শেষ সময়ের প্রস্তুতি চলছে এখন নাট্যাঙ্গনে।

গত রোজার ঈদের পর থেকে এ ঈদ পর্যন্ত একটি বড় পরিবর্তন লক্ষ করা যাচ্ছে। গত ঈদে যেমন নবীন ও তরুণ অভিনয়শিল্পীদের প্রাধান্য ছিল বেশি। কুরবানির ঈদে সিনিয়র অভিনয়শিল্পীরাও চালকের আসনে রয়েছেন। বিশেষ করে মোশাররফ করিম স্বরূপে হাজির হচ্ছেন নাটক নিয়ে। প্রায় সব ধরনের চরিত্রেই অভিনয় করেছেন আগামী ঈদের নাটকে। এক ডজনেরও বেশি নাটকে তার শুটিং সম্পন্ন হয়েছে। বাকি যে কদিন আছে এর মধ্যেও কয়েকটি একখণ্ডের নাটকে অভিনয়ের কথা রয়েছে। আগামী ঈদের নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে এ অভিনেতা বলেন, ‘আগামী ঈদে আমার অভিনীত নাটকগুলোয় গল্পের বৈচিত্র্য আছে। আমি নিজেও চরিত্রগুলো ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি। দর্শক কীভাবে নেবেন আমার অভিনয় সেটা জানার অপেক্ষায় আছি।’

আরেক জ্যেষ্ঠ অভিনেতা জাহিদ হাসানও ঈদের নাটকে অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। রোজার ঈদের আগে ওমরাহ পালনের জন্য দীর্ঘ সময় সৌদি আরবে অবস্থান করেছিলেন তিনি। যার কারণে তাকে তখন সেভাবে অভিনয় করতে দেখা যায়নি। কুরবানির ঈদের নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে জাহিদ হাসান বলেন, ‘দর্শকদের কথা মাথায় রেখেই অভিনয় করছি ঈদের নাটকে। যেকটি নাটকে এ পর্যন্ত অভিনয় করেছি, তার সবকটি গল্পেই বৈচিত্র্য আছে। আশা করছি নাটকগুলো উপভোগ্যই হবে।’

সারা বছরই নাটকে অভিনয়ের ব্যস্ততা থাকে অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বের। ঈদ এলে সে ব্যস্ততা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। রোজার ঈদের কিছুদিন আগে অপূর্বের বাবা মারা যান। যার কারণে তিনি প্রত্যাশার চেয়েও কম নাটকে অভিনয় করেছিলেন। এবার কোনো ধরনের বিরতি নেই। তাই তিনি রোজার ঈদের পর থেকেই কুরবানির ঈদের নাটকে অভিনয় শুরু করেছেন। এ প্রসঙ্গে অপূর্ব বলেন, ‘ঈদের আগের দিন পর্যন্ত আমার শুটিং আছে। কারণ যে পরিমাণ নাটকে অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছি তার অর্ধেকও শেষ করতে পারব না। তবে যেসব নাটকে অভিনয় করেছি সেগুলো নিয়ে আমি আশাবাদী যে দর্শক তা গ্রহণ করবেন।’

অভিনেতা ও নির্মাতা মীর সাব্বির ২০২১ সালের রোজার ঈদে সর্বোচ্চ সংখ্যক নাটকে অভিনয় করেছিলেন। তবে চলতি বছরের রোজার ঈদে তিনি অভিনয়ে সক্রিয় থাকলেও এবারের ঈদে নাটক নির্মাণের কারণে ঈদের নাটকে কিছুটা কম সময় দিচ্ছেন। তারপরও তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নাটক ঈদে প্রচার হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। টিভি নাটকের আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা আফরান নিশোও বরাবরের মতো নাটকেই শুধু অভিনয় করে যাচ্ছেন। ঈদেও তার উপস্থিতি থাকবে টিভি থেকে শুরু করে অনলাইন মাধ্যমগুলোতে। তারও বিশাল সংখ্যক দর্শক রয়েছে। এদিকে অভিনেত্রীদের মধ্যে এবারও কাজের বিবেচনায় শীর্ষস্থানেই থাকছেন মেহজাবিন চৌধুরী। তিনি একখণ্ডের নাটকেই শুধু অভিনয় করে যাচ্ছেন। এ ছাড়া সাবিলা নূর, তানজিন তিশা, কেয়া পায়েল, সাফা কবিররা নারী অভিনেত্রীদের মধ্যে আলোচনায় থাকবেন বলে ভাবছেন নাটকসংশ্লিষ্টরা। আগামী ঈদের নাটকে তাই নবীন-প্রবীণের মিশেলে এক চমৎকার সমন্বয় দেখা যাবে বলে অনুমান করছেন দর্শকমহল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন