সালমান ও ক্যাটরিনা

সম্পর্কের রসায়ন

প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  হাসান সাইদুল

ক্যাটরিনা কাইফ, বলিউডের অন্যতম আবেদনময়ী অভিনেত্রী। অত্যন্ত জনপ্রিয় এ অভিনেত্রীর বলিউড যাত্রা ছিল ফ্লপ সিনেমা দিয়ে। কাইজার গুস্তাদ পরিচালিত বহুল সমালোচিত ‘বুম’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে পদচারণা তার। ২০০৩ সালে এ ছবিতে সাইন করার সময় বলিউড কেন, ভারতই ক্যাটরিনার কাছে ছিল অজানা-অচেনা কোনো গল্পের মতো দৃশ্যে। প্রথম ছবিতেই হোঁচট খেয়ে চলচ্চিত্র থেকে মুখ ফিরিয়ে নেন ক্যাটরিনা। এরপর ২০০৪ সালে লন্ডন থেকে মুম্বাই আসেন ক্যাট। এ সময় সালমান খানের সঙ্গে পরিচয় হয়। এ পরিচয় একসময় প্রেমের সম্পর্কে রূপ নেয়। সালমান খানের সহযোগিতায় আবারও চলচ্চিত্রে অভিনয় করার সিদ্ধান্ত নেন। ২০০৫ সালে উপহার দেন ‘সরকার’ ছবি, যা তাকে তারকাখ্যাতি এনে দেয়। এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

এরই মধ্যে সালমান-ক্যাটরিনার প্রেম রোমান্স নিয়ে আলোচনা-সমালোচনায় সব সময় সরব ছিল শোবিজ অঙ্গন। তাদের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পরও আলোচনা থামেনি। নানা কারণেই বারবার আলোচনায় এসেছে এই দুজনের নাম। তবে প্রেম ভাঙার পর ক্যাটরিনা একেবারেই চুপ ছিলেন সালমান খানের বিষয়ে। কোথাও কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তাদের সম্পর্ক নিয়ে। সালমান ছাড়া অনেকের সঙ্গে ক্যাটরিনা কাইফের প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে বলিউডে গুঞ্জন শোনা যায়। রনবীর কাপুরের সঙ্গে তার প্রেম কাহিনী নিয়ে বলিউড সরগরম ছিল একসময়। এ সম্পর্ক টেকেনি। রনবীরের কাছ থেকে আলাদা হওয়ার পর আবারও সালমান খানের কাছে ফিরলেন ক্যাটরিনা। প্রেমের সম্পর্ক নাকি আবারও জোড়া লাগছে! বিশেষ করে ‘বিগ বস’ সিজন নাইনের শেষ পর্বে গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানে ফলাফল ঘোষণার আগে বিশেষ এ অনুষ্ঠানের সবচেয়ে আকর্ষণীয় অংশটি ছিল ক্যাটরিনা কাইফের মঞ্চে আসা। তাকে স্বাগত জানান সালমান খান স্বয়ং। এ সময় সালমানের উপস্থাপনা, বিশেষ করে ক্যাটরিনার প্রতি তার তাকানো, সংলাপ সব মিলিয়ে কিছুটা রহস্যময় ছিল। কিছুদিন আগে সালমানের বোন অর্পিতা খানের জন্মদিনে ক্যাটের সঙ্গে যখন সালমান পৌঁছান, সেখানে হাজির ছিলেন সালমানের কথিত প্রেমিকা ইউলিয়ানাও। এরপর সালমান-ক্যাটরিনার যে ছবি প্রকাশ্যে এলো, তা দেখে চোখ ফেরাতে পারবেন না কেউই। সম্প্রতি একটি ম্যাগাজিনের ফটোশুটে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা যায় সালমান এবং তার সাবেক বান্ধবীকে।

এদিকে অধিকাংশ ভক্তরা চাইছেন বিয়ে হোক ক্যাটরিনা ও সালমান খানের! অনেকে মনে করেন, তাদের দম্পতি হিসেবে ভালোই মানাবে! শুধু সিনেমায় নয়, তাদের সম্পর্কের রসায়ন বাস্তবিক জীবনের প্রতিচ্ছবি বটে, যা জীবন্ত হয়ে ওঠে ছবির চিত্রনাট্যে।

সালমানের সঙ্গে ক্যাটরিনার প্রেম হয়তো বলিউডের সবচেয়ে আলোচিত বিষয় হতে পারে। অতীতে তাই হয়েছে। সেখানে ছিল অনেক গুজব, অনেক রহস্য আর যন্ত্রণা। কিন্তু ওটা যাই হোক না কেন, এই দুয়ের গুরু-শিষ্য, সহকর্মী আর বন্ধুত্বের ক্ষেত্রে সম্পর্কটা কিন্তু পাথরের মতোই অটল আর নিরেট। ‘বুম’-এর মাধ্যমে যখন ক্যাট বলিউডে পা রেখেছেন, তখন সেই ছবিতে তার উপস্থিতি মোটেও ভালো ছিল না। সেখানে তার ভাগ্যে পতনই হয়তো লেখা হতো। কিন্তু সালমান খানের কারণেই ‘ম্যায়নে পেয়ার কিউ কিয়া’-এর মাধ্যমে পায়ের নিচে মাটি আসে এই লাস্যময়ীর। পরে ‘পার্টনার’ বা ‘এক থা টাইগার’ এর মাধ্যমে বক্স অফিস কাঁপিয়ে দেন ক্যাট। এরপর ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ছবিতেও দেখিয়েছেন নিজেদের কারিশমা। ‘দাবাং-৩’ ছবিতেও থাকছেন ক্যাটরিনা। অন্যদিকে প্রিয়াঙ্কার ছেড়ে দেয়া ‘ভারত’ ছবিতেও নাকি সালমান কাস্ট করেছেন ক্যাটরিনাকে। স্বভাবতই ভক্ত মনে প্রশ্ন জাগে, তবে কী আবারও ভালোবাসার জুটি হিসেবেই আবির্ভূত হচ্ছেন তারা? যদি তাই হয়, তাহলে সেটা হবে ভক্তদের জন্য পোয়াবারো।