শুটিং স্পট

বিশ্বাস করোনা তবুও ভালোবাসি

  অভি মঈনুদ্দীন ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বাস করোনা তবুও ভালোবাসি
তবুও ভালোবাসি নাটকের একটি দৃশ্যে অপূর্ব ও মেহজাবিন

রাজধানীর উত্তরার একটি শুটিং স্পট। কোলাহলমুক্ত একটি জায়গা। শুটিং চলছে অপূর্ব ও মেহজাবিন অভিনীত একটি নাটকের।

দুপুরের কড়া রোদ গায়ে মেখে শুটিং সেটে উপস্থিত হতেই দেখা গেল বেশ মনোযোগ নিয়ে কাজ করছেন অপূর্ব।

এমনিতেই গরম পড়ছে খুব। তার ওপর শুটিংয়ের লাইটের তাপ। সবমিলিয়ে ঘেমে একাকার। কিছুক্ষণ পর পর মেকাপম্যান এসে মুখের ঘাম মুছে দিচ্ছেন। চলছে দৃশ্যধারণ। এমনিতেই কোরবানি ঈদের পরপরই টানা দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় নেপালে ছিলেন অপূর্ব।

সেখানে তিনি বেশ কয়েকজন নির্মাতার নির্দেশনায় ধারাবাহিক এবং খণ্ড নাটকের শুটিংয়ে অংশ নেন। অন্যান্য সময় শুটিংয়ে অপূর্ব তার স্ত্রী অদিতি ও একমাত্র সন্তান আয়াশকে সঙ্গে নিলেও এবার যেহেতু কাজেও চাপ ছিল একটু বেশি।

তাই তাদের ঢাকায় রেখেই তিনি দেশের বাইরে চলে যান। নেপাল থেকে ঢাকা ফিরেই আবারও শুটিংয়ে। কাজের চাপ একটু বেশিই। তাই গরমকেও সুযোগ দিচ্ছেন না তিনি। উত্তরার এই সেটেই চলছে মাহিদুল মাহিমের নির্দেশনায় ‘তবুও ভালোবাসি’ নাটকের শুটিং।

দৃশ্যধারণের ফাঁকেই নির্মাতা জানান, এটি সম্পূর্ণ একটি রোমান্টিক গল্পের নাটক। গরমের কারণে একটু স্বস্তির জন্য মেকাপ রুমের দিকেই সবার গমন। ওটা এসি রুম, তাই। একটু পর অপূর্বও আসেন। কুশলাদি বিনিময় শেষে অপূর্ব গল্পে মেতে ওঠেন ছেলে আয়াশের অভিনয় নিয়ে।

নিজের অভিনীত নাটকের চেয়ে তিনি আয়াশ অভিনীত শিহাব শাহীন পরিচালিত ‘বিনি সুতার টান’ টেলিছবির জন্য বেশি সাড়া পাচ্ছিলেন।

অপূর্ব বলেন, ‘এবারের ঈদে আমার অভিনীত কাজগুলোর চেয়ে আয়াশের অভিনয়ের জন্যই আমি বেশি সাড়া পাচ্ছি। বাবা হিসেবে ভীষণ গর্ববোধ করছি প্রতি মুহূর্তে। আমি ভাবতেও পারিনি ও এতটা ভালো করবে।’ তবে ‘তবুও ভালোবাসি’ নাটকটি বেশ আন্তরিকতা নিয়েই কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন। জমে উঠল আড্ডা। এর মধ্যেই মেহজাবিনের প্রবেশ।

অপূর্বের মুখে নিজের প্রশংসার রেশ ধরেই তিনি বলেন, ‘অপূর্ব ভাইয়ার সঙ্গে গেল ঈদেও বেশ কয়েকটি কাজের জন্য সাড়া পেয়েছি। এ নাটকের গল্পটা বেশ চমৎকার। আশা করছি এই নাটকেও দর্শক আমাদের দু’জনকে নতুনভাবে খুঁজে পাবেন।’ নির্মাতা জানান শিগগিরই নাটকটি একটি স্যাটেলাইট চ্যানেলে প্রচার হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter