অন্ধকারে ১৪ দলীয় জোট শরিকরা

আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা আজ * মহাজোটের শরিকদের তালিকা আজ ইসিকে দেবে আওয়ামী লীগ * প্রত্যাহারের আগে জোট প্রার্থীদের নাম ঘোষণা

  রেজাউল করিম প্লাবন ১১ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

১৪ দলীয় জোটের নেতারা।
১৪ দলীয় জোটের নেতারা। ছবি-যুগান্তর

এখনই ঘোষণা হচ্ছে না ক্ষমতাসীন ১৪ দলীয় জোট শরিকদের আসন। এর জন্য কমপক্ষে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে। জোটের অনেক নেতা বলছেন, ১৯ নভেম্বর মনোনয়ন ফরম জমা দেয়ার পরেও এ কার্যক্রম শুরু হতে পারে।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে- ঘোষণা না হলেও রোববার (আজ) আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা হবে। দলীয় প্রার্থীর পাশাপাশি জোটের শীর্ষ নেতাদের আসনের সিদ্ধান্তটিও চূড়ান্ত হতে পারে আজ। তবে জোটের অন্য আসনের নিশ্চয়তার জন্য আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। ১৪ দলীয় জোট নেতাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে এসব তথ্য।

এদিকে জোটগতভাবে নির্বাচন করার প্রস্তাব নিয়ে আজ বিকালে নির্বাচন কমিশনে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। দলটির পক্ষ থেকে জোটগতভাবে নির্বাচনে যাওয়ার প্রস্তাব ও দলগুলোর নামের তালিকা নির্বাচন কমিশনে (ইসি) জমা দেয়া হবে। আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

১৪ দলীয় জোটের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আসন ভাগাভাগি নিয়ে আলোচনা না হওয়ায় মনঃক্ষুণ্ণ তারা। অনেকে ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন। আসন বণ্টনে কালক্ষেপণকে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কৌশল হিসেবে দেখছেন কোনো কোনো শরিক দলের নেতা।

তাদের মতে, আমরা মহা অন্ধকারে পড়ে আছি। আমাদের কোনো নির্দেশনা দিচ্ছে না আওয়ামী লীগ। পরে তড়িঘড়ি করা হবে। মনোনয়ন না পেলে যাতে কিছু বলতে বা করতে না পারি সেদিকেই হাঁটছে নেতৃত্বদানকারী দলটি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক শনিবার যুগান্তরকে বলেন, দলের ও জোটের আসন নিয়ে আগামীকালের (আজ) দলের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় আলোচনা হবে। তবে জোটের প্রার্থী ঘোষণায় আরও কিছুদিন অপেক্ষায় থাকতে হবে।

ক্ষমতাসীন ১৪ দলের শরিক সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া যুগান্তরকে বলেন, আমি একটি তালিকা জমা দিয়েছি। কিন্তু বুঝছি না কবে সিদ্ধান্ত হবে। তিনি বলেন, মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ নভেম্বরের আগে আগে জোট প্রার্থী ঘোষণার কথা শোনা যাচ্ছে। দলের ও জোটের একাধিক প্রার্থী ঠেকাতে এমনটি হতে পারে বলেও মনে করেন তিনি।

এ বিষয়ে ১৪ দলীয় জোটের অন্যতম একটি দলের সাধারণ সম্পাদক নাম প্রকাশ না করে যুগান্তরকে বলেন, দশম জাতীয় নির্বাচনেও এ পলিসি করতে গিয়ে জোটের হেভিওয়েট নেতাদের বাদ পড়তে হয়েছিল। জোটের আশায় থেকে তারা দলীয় প্রার্থীও দিতে পারেননি। এটা অন্যায়। দলীয় প্রার্থীদের প্রাধান্য ও বিদ্রোহী হওয়ার শঙ্কায় এ কৌশল করছে শীর্ষ দলটি। আমাদের এভাবে অন্ধকারে না রেখে আসন নিয়ে স্পষ্ট ঘোষণা এলে যে কোনো প্রস্তুতি গ্রহণ করা যায়। আমরা আওয়ামী লীগের কাছে সেটিই প্রত্যাশ্যা করছি।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা যায়, ১৯ নভেম্বর নির্বাচন কমিশনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। ১৫ থেকে ১৭ নভেম্বরের মধ্যে দলীয় মনোনীত প্রার্থীর নাম ঘোষণা করবে আওয়ামী লীগ। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলের মনোনয়ন ফরম যারা কিনেছেন, তাদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। সেই বৈঠকে দলের বাইরে গিয়ে যাতে কেউ প্রার্থী না হন সে নির্দেশ থাকবে দলীয় সভাপতির।

আওয়ামী লীগের সূত্রটি আরও জানায়, ৩ থেকে ৪টি আসন বাদে বাকিগুলোতে দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করবে দলটি। ১৯ নভেম্বরের পর যে কোনো দিন জোট বা মহাজোটের প্রার্থীর নাম ঘোষণা হতে পারে। মহাজোটের আসনগুলোতে দলীয় প্রার্থীদের মনোনয়ন প্রত্যাহারের নির্দেশ ও সেখানে জোট প্রার্থীর নাম নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হবে। তবে জোটে যাদের প্রার্থী করা হবে তাদের আগে থেকেই নির্বাচন কমিশনে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে বলা হবে বলেও জানায় সূত্রটি।

তবে এটাকে জটিল ও ধোঁয়াশাচ্ছন্ন মনে করছেন ১৪ দলের শরিকরা। কোনো আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার না করলে তখন কিছুই করার থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে জোট শরিক ন্যাপের সেক্রেটারি ইসমাইল হোসেন যুগান্তরকে বলেন, আমরা হতাশ। এখনও আমাদের আসন নিয়ে পরিষ্কার কোনো ধারণা দেয়া হচ্ছে না। শোনা যাচ্ছে, মনোনয়ন প্রত্যাহারের আগে আগে আমাদের নিয়ে সিদ্ধান্ত হবে। তাহলে আমরা কোন ব্যানারে মনোনয়ন কিনব? বিষয়টি স্পষ্ট করা দরকার।

আসন বণ্টন নিয়ে এখনও স্পষ্ট আলোচনা না হওয়ায় আদৌও নির্বাচন করতে পারবে কিনা তা নিয়ে উদ্বিগ্ন জোটের শরিক দলের অনেক নেতা। তারা বলেন, না পারছি আমরা দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি করতে; না পারছি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনতে। প্রশ্ন রেখে বলেন, আমাদের মনোনয়ন দিতে তো আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে নৌকার মনোনয়ন ফরম কিনতে বলার কথা! কিন্তু ধোঁয়াশায় আছি।

সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা : আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা আজ। বেলা সাড়ে ৩টায় দলটির ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপত্বি করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও দলটির সংসদীয় বোর্ডের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভায় দলীয় মনোনয়ন ফরম কতদিন পর্যন্ত বিক্রি কার্যক্রম চলবে তা নির্ধারণ এবং দলীয় ও জোটগত মনোনয়ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

ঘটনাপ্রবাহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×