পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্রিফিং

উন্নয়নে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস কূটনীতিকদের

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

উন্নয়নে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস কূটনীতিকদের

সরকারের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিয়েছেন বিদেশি কূটনীতিকরা। বৃহস্পতিবার নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বাংলাদেশে বিভিন্ন দেশ, সংস্থার রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিকদের ব্রিফ করেন। এ সময় তিনি সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নে বিশ্ব সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চান।

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বিকালে কূটনীতিকদের ব্রিফ করা হয়। এতে জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতসহ বিভিন্ন দেশ এবং সংস্থার রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিকসহ মোট ৫৫ জন বিদেশি অতিথি যোগ দেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর আবদুল মোমেনের এটি ছিল কূটনীতিকদের প্রথম ব্রিফিং। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কূটনৈতিক কোরের প্রধান ভ্যাটিকান রাষ্ট্রদূত আর্চবিশপ জর্জ কোচেরি বলেন, ‘পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার পরিকল্পনা আমাদের জানিয়েছেন। আমরা সরকারকে অভিনন্দন জানিয়েছি। তিনি বলেন, আমরা সবাই প্রতিশ্রুতি দিয়েছি, বলেছি এই দেশকে এগিয়ে নিতে আমাদের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। একে অপরকে জানার জন্য এটি (বৈঠক) একটি উত্তম সুযোগ ছিল বলেও জানান তিনি।

তবে সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বৈঠক সূত্র জানায়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী বৈঠকে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেননি। তবে তিনি কূটনীতিকদের কাছে খোলামেলাভাবে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন। তিনি অর্থনীতি, কূটনীতি, রোহিঙ্গা ইস্যু, নিজের নির্বাচনী এলাকা, সরকারের এসডিজি, ভিশন-২০২১, ভিশন-২০৪১ সম্পর্কে বিস্তারিত অবহিত করেন।

শুরুতেই পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে কূটনীতিকদের সহযোগিতা চান। এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত এক দশকে সরকারের সাফল্যের তথ্যচিত্র উপস্থাপন করেছেন। সেখানে দারিদ্র্য দূরীকরণ, মাতৃ ও শিশুস্বাস্থ্য পরিস্থিতির উন্নয়ন, স্যানিটেশন, রিজার্ভ বৃদ্ধি, অবকাঠামো উন্নয়নসহ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক তথ্য উঠে আসে। এ ছাড়া অর্থনৈতিক কূটনীতির মাধ্যমে ২০২১, ২০৩০ ও ২০৪১ সালের ভিশন বাস্তবায়ন ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘জিরো টলারেন্স নীতি’র কথা তুলে ধরা হয়।

বৈঠকে তারুণ্য এবং নারীর ক্ষমতায়ন, পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ, বিনিয়োগ ও বাণিজ্যের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ ছাড়াও মানুষের ক্ষমতায়ন, উন্নয়ন, সংস্কৃতি ও শান্তি, অটিজম নিয়ে জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের রেজুলেশনে বাংলাদেশের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে আঞ্চলিক সহযোগিতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে আগ্রহ প্রকাশ করেন তিনি। রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে সমর্থন দেয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ধন্যবাদ জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। রোহিঙ্গাদের নিরাপদে মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার ব্যাপারে ভূমিকা অব্যাহত রাখারও আহ্বান জানান।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×