বিপিএলে দেশি ঝলক

  স্পোর্টস রিপোর্টার ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিলেট পর্ব শেষে কনুইয়ের পুরনো চোটের চিকিৎসা করাতে অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে যাবেন ডেভিড ওয়ার্নার
সিলেট পর্ব শেষে কনুইয়ের পুরনো চোটের চিকিৎসা করাতে অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে যাবেন ডেভিড ওয়ার্নার

আজ বিপিএলের সিলেট পর্ব শেষে কনুইয়ের পুরনো চোটের চিকিৎসা করাতে অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে যাবেন ডেভিড ওয়ার্নার। এই কয়েক দিনেই সমর্থকদের মন জিতে নিয়েছেন সিলেট সিক্সার্স অধিনায়ক। সিলেট সমর্থকদের কণ্ঠে আকুতি, ‘যেও না ওয়ার্নার’।

অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান অবশ্য প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যত দ্রুত সম্ভব তিনি ফিরে আসবেন বিপিএল মঞ্চে। শেষ পর্যন্ত ফিরতে পারবেন কিনা সেটা সময়ই বলে দেবে। তবে অস্ট্রেলিয়ায় উড়াল দেয়ার আগে শুক্রবার টুর্নামেন্টে নিজের তৃতীয় ফিফটিতে সিলেট সমর্থকদের আক্ষেপ আরও বাড়ালেন ওয়ার্নার।

দিন শেষে অবশ্য বিফলে গেছে তার ফিফটি। কাল সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডায়নামাইটসের (১৬৩/৪) কাছে ছয় উইকেটে হেরে গেছে ওয়ার্নারের সিলেট সিক্সার্স (১৫৮/৮)।

অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ঢাকার জয়ের নায়ক অধিনায়ক সাকিব। বল হাতে গুরুত্বপূর্ণ দুটি উইকেট নেয়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতে এবারের আসরে নিজের প্রথম ফিফটিতে সাকিবই গড়ে দেন ব্যবধান।

ছয় ম্যাচে এটি ঢাকার পঞ্চম জয় আর সিলেটের চতুর্থ হার। কাল দিনের দ্বিতীয় ম্যাচেও ব্যাট হাতে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন দেশি ব্যাটসম্যানরা। সাকিবের মতো তামিম ইকবালও পেয়েছেন আসরে নিজের প্রথম ফিফটি।

তামিম-ঝলকে খুলনা টাইটানসকে (১৮১/৭) তিন উইকেটে হারিয়ে ছয় ম্যাচে চতুর্থ জয় তুলে নিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স (১৮৬/৭)। সমান ম্যাচে খুলনার এটি পঞ্চম হার। এবারের আসরে খুলনা নিজেদের সর্বোচ্চ সংগ্রহ পেয়েছিল এক দেশি ব্যাটসম্যানের সৌজন্যে।

ঝড়ো ব্যাটিংয়ে কাল নিজের সেরা সময়ের স্মৃতি ফিরিয়ে এনেছিলেন দারুণ ছন্দে থাকা খুলনার ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকী। সমান চারটি করে চার-ছক্কায় ৪১ বলে ৭০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে রানআউটে কাটা পড়েন জুনায়েদ।

এছাড়া আল-আমিন ১৯ বলে ৩২ ও ডেভিড মালান ২৫ বলে করেন ২৯ রান। ৩৫ রানে তিন উইকেট নিয়ে কুমিল্লার সফলতম বোলার শহীদ আফ্রিদি। আরেক পাকিস্তানি ওয়াহাব রিয়াজ ৩৪ রানে নেন দুই উইকেট।

খুলনার ১৮১ রানের জবাবে কুমিল্লাকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন তামিম ও এনামুল হক। ১২ ওভারে তারা গড়েন ১১৫ রানের উদ্বোধনী জুটি। ১২ চার ও এক ছক্কায় ৪২ বলে ৭৩ রান করা তামিমকে ফিরিয়ে এ জুটি ভাঙেন লাসিথ মালিঙ্গা। এ

কটু পর বিদায় নেন এনামুল (৪০)। এরপর অধিনায়ক ইমরুল কায়েস ১১ বলে ২৮ করে বিদায় নিলে চাপে পড়ে যায় কুমিল্লা। জুনায়েদ খানের (৩২ রানে চার উইকেট) দারুণ বোলিংয়ে খুলনা নাটকীয়ভাবে ম্যাচে ফিরলেও তীরে এসে তরী ডুবতে দেননি কুমিল্লার লংকান অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা।

কার্লোস ব্রাফেটের করা শেষ ওভারে আট রানের সমীকরণ মিলিয়ে দুই বল বাকি থাকতে কুমিল্লাকে জয়ের ঠিকানায় পৌঁছে দেন থিসারা। দুই চার ও এক ছক্কায় সাত বলে ১৮ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।

দিনের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে আট উইকেটে ১৫৮ রান করেছিল সিলেট। জবাবে সাকিবের হার না মানা ফিফটি ও শেষ দিকে আন্দ্রে রাসেলের তাণ্ডবে তিন ওভার বাকি থাকতেই ছয় উইকেটের অনায়াস জয় তুলে নেয় ঢাকা।

৩৭ রানে তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যাওয়া ঢাকাকে পথ দেখান অধিনায়ক। চতুর্থ উইকেটে তরুণ আফগান ব্যাটসম্যান দারউইশ রাসুলির (১৯) সঙ্গে ৭৫ রানের জুটি গড়ার পর রাসেলকে নিয়ে ম্যাচ শেষ করে আসেন সাকিব।

আট চার ও দুই ছক্কায় ৪১ বলে ৬১ রানের অপরাজিত ইনিংসের সুবাদে সাকিবই ম্যাচসেরা। তবে সত্যিকারের খুনে ব্যাটিং করেছেন রাসেল। দুই চার ও চার ছক্কায় ২১ বলে অপরাজিত ৪০ রান করেন এই ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান।

এর আগে সিলেটের ইনিংসে শুরুতে ঝড় তোলার আভাস দিয়েছিলেন আগের ম্যাচের হিরো লিটন দাস। ১৪ বলে ২৭ রান করে লিটনের বিদায়ের পর দলকে কার্যত একাই টেনেছেন ওয়ার্নার।

৪৩ বলে ৬৩ রান করেন সিলেট অধিনায়ক। লিটনের মতো ওয়ার্নারকেও ফেরান সাকিব। শেষ দিকে ১৮ বলে ২৫ রান করেন জাকের আলী। তাতে লড়াইয়ের পুঁজি মিললেও শেষ রক্ষা হয়নি। ঢাকার হয়ে কাল প্রথম খেলতে নামা দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার অ্যান্ড্রু বির্চ ৪২ রানে নেন তিন উইকেট।

ঘটনাপ্রবাহ : সিলেট সিক্সার্স: বিপিএল ২০১৯

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×