যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশ

বড়াইগ্রামের সেই স্কুল পরিদর্শনে ভারপ্রাপ্ত ডিসি

সমস্যা সমাধানের আশ্বাস

  বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বড়াইগ্রামের সেই স্কুল পরিদর্শনে ভারপ্রাপ্ত ডিসি
বড়াইগ্রামের সেই স্কুল পরিদর্শনে ভারপ্রাপ্ত ডিসি। ছবি: যুগান্তর

যুগান্তরের প্রথম পৃষ্ঠায় বুধবার ছবিসহ ‘বড়াইগ্রামে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান- প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় স্বাস্থ্যঝুঁকি’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর প্রশাসনে তোলপাড় শুরু হয়েছে। বুধবার দুপুরেই জেলা প্রশাসকের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ড. মোহাম্মদ রাজ্জাকুল ইসলাম নাটোর থেকে সাংবাদিকদের নিয়ে সরেজমিনে বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন।

ঢাকায় অবস্থানরত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শাহরিয়াজ সকালেই যুগান্তরে প্রকাশিত সংবাদ দেখে তাকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিলে তিনি দুপুর ১২টার দিকে বিদ্যালয় পরিদর্শনে আসেন। এ সময় তার সঙ্গে জেলা প্রেস ক্লাব সভাপতি যুগান্তরের স্টাফ রিপোর্টার (নাটোর) মাহফুজ আলম মুনি এবং ডেইলি স্টার ও একাত্তর টিভির জেলা প্রতিনিধি বুলবুল আহম্মেদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পরিদর্শনকালে ড. রাজ্জাকুল ইসলাম বিদ্যালয়ের মাঠে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের পাঠদানরত অবস্থায় দেখতে পান। এ সময় তিনি বিভিন্ন শ্রেণীকক্ষ, টয়লেট, টিউবওয়েল ও অফিস কক্ষ ঘুরে দেখেন এবং শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সঙ্গে বিদ্যালয়ের সমস্যাগুলো নিয়ে কথা বলেন। দ্রুত সময়ের মধ্যে অবকাঠামোগত সমস্যা সমাধানের ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। একই সঙ্গে তিনি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ও মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরসহ পাঠদানে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

পরিদর্শন শেষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ড. মোহাম্মদ রাজ্জাকুল ইসলাম বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। বিদ্যালয়ে সরকারি কোনো ভবন না হওয়ায় শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে বিদ্যালয়ে টয়লেট ও ভবন নির্মাণের আন্তরিক উদ্যোগ নেয়া হবে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোবারক হোসেন ও প্রধান শিক্ষক মো. খাদেমুল ইসলাম গুরুত্বের সঙ্গে সংবাদটি প্রকাশ করায় যুগান্তর কর্তৃপক্ষকে এবং সংবাদ প্রকাশের পরপরই সরেজমিন বিদ্যালয় পরিদর্শনে এসে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেয়ায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকসহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

এর আগে বুধবার সকালেই ঢাকা থেকে একজন অতিরিক্ত সচিব মোবাইল ফোনে যুগান্তর প্রতিনিধি অহিদুল হকের সঙ্গে কথা বলেন এবং বিদ্যালয়ের সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর নেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×