সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে ভুলত্রুটি ছিল

- সিইসি

  যুগান্তর রিপোর্ট ৩১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা। ফাইল ছবি
নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা। ফাইল ছবি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারে কোথাও কোথাও ভুলত্রুটি ছিল উল্লেখ করে সামনের নির্বাচনগুলোতে তা শুধরাতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি)।

রাজধানীতে নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটে বুধবার সিইসি কেএম নুরুল হুদা এক অনুষ্ঠানে এ নির্দেশ দেন। উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে ‘নির্বাচনী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ এবং ইভিএম ব্যবহারের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ’ শীর্ষক এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।

সিইসি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে কোথাও কোথাও ভুলত্রুটি ছিল। যে কারণে দ্রুত ফলাফল দেয়া যায়নি। ভুলত্রুটিগুলো চিহ্নিত করে সেগুলো সংশোধন করতে হবে।

এবারের সংসদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ছয়টি আসনের সবক’টি কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট নেয়া হয়। আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে সদর উপজেলাগুলোতে ইভিএম ব্যবহারের পরিকল্পনা রয়েছে বলে ইতিমধ্যে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানিয়েছেন। উ

পজেলা নির্বাচন সামনে রেখে সংসদ নির্বাচনের রেশ টেনে সিইসি আরও বলেন, আমরা বলেছিলাম এটা (ইভিএম) এমন একটা সিস্টেম যে আধা ঘণ্টা, এক ঘণ্টার মধ্যে জনগণের কাছে ফল তুলে দেব। আমরা সেটি পারিনি। কেন পারিনি সে কারণগুলো নির্ণয় করতে হবে। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে কী ভুল ছিল সেগুলো শনাক্ত করতে হবে। সেগুলো সংশোধন করতে হবে। ইভিএম ব্যবহার করতে পারলে নির্বাচনে যে অনিয়ম হয় এর বেশির ভাগ অনিয়ম বন্ধ হয়ে যাবে।

সিইসি নুরুল হুদা বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৬টি নির্বাচনী এলাকায় আমরা ইভিএম ব্যবহার করেছি। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি সেটার কোথাও কোথাও ভুলত্রুটি ছিল, অসুবিধা ছিল। নতুন একটা পদ্ধতি প্রয়োগের সময় এ রকম হতে পারে। একেবারে হতে পারে না এটা আমি বলব না। তবুও আপনাদের সাবধানতা, সতর্কতা যদি বেশি থাকে তাহলে সেরকম ভুল হওয়া উচিত ছিল না।

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ইভিএম নিয়ে আমরা অনেক কথা বলেছি। ইভিএম আমরা ধারণ করি। ইভিএমের ওপর আমাদের আস্থা ও বিশ্বাস- নানা কারণে একথা আপনাদের বলেছি। যত্নসহকারে এর প্রশিক্ষণ নেবেন ও প্রশিক্ষণ দেবেন। নতুন একটা পদ্ধতি হওয়ায় কোথাও কোথাও কোনো ভুলভ্রান্তি হলে মানুষের মধ্যে আস্থার সংকট সৃষ্টি হবে। এটা আপনাদের ওপর নির্ভর করছে।

জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ ও ধন্যবাদ জানিয়ে সিইসি বলেন, উপজেলা নির্বাচনের সঙ্গে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কাঠামোগত দিক থেকে খুব একটা পার্থক্য নেই। স্থানীয়ভাবে হওয়ায় এ নির্বাচনগুলো আরও বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হয়।

তিনি আশা করেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো কর্মকর্তাদের ভূমিকা স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশে উপজেলা নির্বাচন এটা একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। বাংলাদেশে উন্নয়নের যে অগ্রগতি, যে ধারা, নারীর ক্ষমতায়ন, শিক্ষায় যে অগ্রযাত্রা তা উপজেলা পরিষদ কার্যকর করার পর থেকেই এগুলো সম্ভব হয়েছে।

অনুষ্ঠানে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, ইটিআইয়ের মহাপরিচালক মোস্তফা ফারুক উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×