রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

অগ্নিদগ্ধদের চিকিৎসায় ২০ লাখ ও নিহতদের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা দেয়ার ঘোষণা * যুক্তরাজ্য ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শোক

  যুগান্তর রিপোর্ট ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

পুরান ঢাকার চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানির ঘটনায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তাদের শোকবার্তায় শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয়েছে।

নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সংশ্লিষ্ট সবাইকে হতাহতদের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন। অন্যদিকে, আহত ব্যক্তিদের যথাযথ চিকিৎসা ও নিহতদের শোকসন্তপ্ত পরিবারকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

আহতদের চিকিৎসায় ২০ লাখ ও নিহতদের দাফনের জন্য ১০ লাখ টাকা বরাদ্দের কথা জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

এছাড়াও শ্রম মন্ত্রণালয় অগ্নিদগ্ধদের চিকিৎসায় ৫০ হাজার টাকা ও নিহত শ্রমিকদের পরিবারকে ১ লাখ টাকা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

এদিকে ঘটনার পর পরই ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শনে যান আওয়ামী লীগের নেতারা। ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতে এই ধরনের ঘটনা এড়াতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডস্থল বৃহস্পতিবার সকালে পরিদর্শনে গিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এ ঘটনা থেকে আমরা আবারও শিক্ষা পেলাম। ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেব, মনোযোগী হব, মনোনিবেশ করব। এ ঘটনায় সরকারের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠনের কথাও জানান তিনি।

তিনি বলেন, তদন্তের পর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেব। ২০১০ সালের ঘটনার পর সরকার ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে ছিল। নীরব দর্শকের ভূমিকায় ছিল না সরকার। এ ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না হয়, তার ব্যবস্থা নেব। সরকার ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন করবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বলেছেন, পুরান ঢাকা থেকে সব ধরনের রাসায়নিকের গুদাম সরিয়ে নিতে ঢাকা দক্ষিণের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেয়া হবে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। কমিটি সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট দেবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র সচিব।

পুলিশের মহাপরিদর্শক জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, পুরান ঢাকা থেকে রাসায়নিক পদার্থের গোডাউন সরানো দরকার। এখনই সময়। এ ব্যাপারে সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতর সিদ্ধান্ত নিলে পুলিশ সব ধরনের সহায়তা দেয়ার জন্য প্রস্তুত আছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন সাংবাদিকদের বলেন, পুরান ঢাকা থেকে রাসায়নিক গুদাম সরাতে সরকার দৃঢ় অঙ্গীকারাবদ্ধ। রাজধানীর পুরান ঢাকায় কোনো ধরনের দাহ্য পদার্থ ও কেমিক্যালের গোডাউন থাকতে দেয়া হবে না। এসব গোডাউন উচ্ছেদের জন্য কঠোর থেকে কঠোরতর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অগ্নিদগ্ধদের চিকিৎসা খরচ দেবে সরকার : চকবাজারে অগ্নিদগ্ধদের চিকিৎসা খরচ সরকার বহন করবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বৃহস্পতিবার সকালে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, অগ্নিদগ্ধদের জন্য পর্যাপ্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা আছে। ঢাকা মেডিকেলসহ কয়েকটি হাসপাতালকে রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নিমতলির ঘটনার পুনরাবৃত্তি হচ্ছে চকবাজারের এ ঘটনা।

নিহত শ্রমিকদের ১ লাখ টাকা দেবে শ্রম মন্ত্রণালয় : নিহত শ্রমিকদের প্রত্যেকের পরিবারকে এক লাখ টাকা সহায়তা দেবে শ্রম মন্ত্রণালয়। শ্রম মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

হতাহতের ঘটনায় শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুন্নুজান সুফিয়ান গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ওই দুর্ঘটনায় যে সব শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে, তাদের জন্য ১ লাখ এবং যে সব শ্রমিক আহত হয়েছেন, তাদের চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে শ্রম মন্ত্রণালয়।

বিএনপির শোক প্রকাশ : অগ্নিকাণ্ডে ব্যাপক হতাহতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। লন্ডন থেকে এক শোকবার্তায় তিনি এই মর্মান্তিক ঘটনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। আহতদের সুচিকিৎসার দাবি ও হতাহতদের পরিবারের পাশে দাঁড়াতে সবার প্রতি আহ্বানও জানান তিনি।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে আজিমপুরে ভাষা শহীদ শফিউর রহমান ও আবুল বরকতের কবর জিয়ারতের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গভীর শোক প্রকাশ করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের সর্বক্ষেত্রে ব্যর্থতা রয়েছে। আজকে সব জায়গায় মানুষ অকারণে জীবন হারাচ্ছে। এর কারণ হচ্ছে সরকারের দায়িত্বহীন ও অব্যবস্থাপনা। এই সরকার রাষ্ট্র পরিচালনায় সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ। রাষ্ট্র সঠিকভাবে পরিচালনার সদিচ্ছা তাদের নেই। তারা যেকোনোভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। জনগণের প্রতি এই সরকারের কোনো দায়বদ্ধতা নেই। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

আল্লামা শফীর শোক : গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন আমীরে হেফাজত, দারুল উলূম হাটহাজারীর মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফী। আমীরে হেফাজতের কার্যালয় থেকে এ শোকবার্তা পাঠানো হয়। শোকবার্তায় নিহতদের মাগফিরাত ও শান্তি কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয়। একইসঙ্গে আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করা হয়।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন : চকবাজারের ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট এজেন্সিগুলোর কোনো গাফিলতি আছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হবে। এজন্য জাতীয় মানবাধিকার কমিশন পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। বৃহস্পতিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক সাংবাদিকদের এ কথা জানান। একইসঙ্গে তিনি নিহতের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

মেয়র সাঈদ খোকনসহ সংশ্লিষ্টদের পদত্যাগ দাবি সিপিবির : চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)। সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এ শোক প্রকাশ করেন।

একই সঙ্গে তারা দোষীদের শাস্তি দাবি করেন। বিবৃতিতে বলা হয়, ৮ বছর আগে পুরনো ঢাকার নিমতলিতে রাসায়নিক দ্রব্যের গোডাউনের আগুনে ১২০ জন মানুষের মৃত্যুর পর সরকার ও রাসায়নিক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দিয়েছিল ঘনবসতিপূর্ণ ও আবাসিক এলাকায় রাসায়নিক দ্রব্য মজুতের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সরকার ও কর্তৃপক্ষ সে কথা রাখেনি। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নগরবাসীর সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে এ বিষয়ে নজরদারিতে চরম গাফিলতি প্রদর্শন করেছে। অপরদিকে গাড়িতে ও বাসাবাড়িতে গ্যাস সরবরাহকারী সিলিন্ডারসমূহ অনিরাপদ ও নিুমানের হওয়ায় প্রতিনিয়ত বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটছে।

দায়িত্ব অবহেলার জন্য অবিলম্বে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনের পদত্যাগ দাবি করেন তারা। একইসঙ্গে মেয়রসহ সংশ্লিষ্ট সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর শাস্তি দাবি করা হয়। সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন ও সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স চকবাজারের চুড়িহাট্টায় যান। তারা ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের শোক : রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানির ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো এক বার্তায় তিনি এ শোক প্রকাশ করেন। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল আর মিলার ও যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রী পেনি মরডান্ট গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন বিষয়কমন্ত্রী পেনি মরডান্ট এক বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার বলেন, ‘ঢাকায় রাসায়নিক গুদামে ভয়াবহ আগুনে নিহতের ঘটনায় আমি গভীরভাবে শোকাহত। এ সপ্তাহের শুরুতে আমি শহরটি সফর করেছিলাম।’ তিনি বলেন, যেসব পরিবার তাদের প্রিয়জনদের হারিয়েছে তাদের প্রতি আমার সমবেদনা।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক টুইট বার্তায় গভীর শোক প্রকাশ করেন। মমতা বৃহস্পতিবার লেখেন, ‘বাংলাদেশে ভয়াবহ আগুনের খবরে খুবই শোকাহত হলাম। নিহতদের পরিবারকে জানাই সমবেদনা। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।’

ঘটনাপ্রবাহ : চকবাজার আগুনে মৃত্যুর মিছিল

আরও
আরও পড়ুন
--
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×