যুগান্তর সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদ

তদন্ত ছাড়া গ্রেফতার স্বাধীন সাংবাদিকতার কণ্ঠরোধের শামিল

  যুগান্তর ডেস্ক ০৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

যুগান্তর সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদ
যুগান্তর সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদ

‘মিথ্যা মামলা দিয়ে কোনো নাগরিককে আটকে রাখলে সুশাসন ভূলুণ্ঠিত হয়। অভিযোগের তদন্ত ছাড়া সাংবাদিকদের গ্রেফতার স্বাধীন সাংবাদিকতার কণ্ঠরোধের শামিল।

অপব্যবহার বন্ধ না হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন কালো আইনে পরিণত হবে।’- ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দৈনিক যুগান্তরের ছয় সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের এবং দুই সাংবাদিককে গ্রেফতারের প্রতিবাদে সাংবাদিকরা এ সব কথা বলেন। মঙ্গলবারও দেশের বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

১৯ ফেব্রুয়ারি যুগান্তরে ‘নবাবগঞ্জের ওসি মোস্তফা কামালের আলিশান বাড়ি’ শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এ প্রতিবেদন প্রকাশের পর তার মদদে ওইদিন সন্ধ্যায় দোহার থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।

যুগান্তর ও যমুনা টিভির নিজস্ব প্রতিনিধি আজহারুল হক, কেরানীগঞ্জ থানা প্রতিনিধি আবু জাফর, আশুলিয়া থানা প্রতিনিধি মো. মেহেদী হাসান মিঠু, ধামরাই থানা প্রতিনিধি শামীম খান এবং গোপালগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি এসএম হুমায়ুন কবীরকে আসামি করে মামলা করে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কথিত নেতা, অসংখ্য অপরাধমূলক মামলার আসামি ও কুখ্যাত ইয়াবা ব্যবসায়ী মো. পলাশ মিয়া।

মামলার পর রাতেই সাংবাদিক আবু জাফরকে গ্রেফতার করা হয়। ২২ ফেব্রুয়ারি সাংবাদিক সেলিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়। সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা ও গ্রেফতার করার প্রতিবাদে বিভিন্ন স্থানে সাংবাদিকরা সভা, সমাবেশ, মানববন্ধন ও বিবৃতি দিয়েছেন। এ সম্পর্কে যুগান্তরের ব্যুরো, অফিস ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ধামরাই (ঢাকা) : যুগান্তরের ধামরাই প্রতিনিধিসহ দুই সাংবাদিককে অবিলম্বে মুক্তি এবং চার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে ধামরাই প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রেস ক্লাবের সামনে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে প্রেস ক্লাবের আহ্বায়ক ও দৈনিক কালেরকণ্ঠের প্রতিনিধি আবু হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও মাইটিভির স্থানীয় প্রতিনিধি মো. আবদুর রশিদ তুষার, সাবেক সভাপতি ও আমাদের সময় পত্রিকার প্রতিনিধি মো. বাবুল হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সমকাল প্রতিনিধি মো. মোকলেছুর রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকার প্রতিনিধি মো. আনিস-উর-রহমান স্বপন, দৈনিক বর্তমান পত্রিকার প্রতিনিধি ও সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মাসুদুর রহমান প্রমুখ।

বাহুবল (হবিগঞ্জ) : যুগান্তরের বাহুবল প্রতিনিধি সিদ্দিকুর রহমান মাসুম এবং যুগান্তরের কেরানীগঞ্জ ও লোহাগাড়া প্রতিনিধিসহ ছয় সাংবাদিকের বিরুদ্ধে করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বাহুবলে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। উপজেলার মিরপুর চৌমুহনীতে যৌথভাবে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে বাহুবল প্রেস ক্লাব ও মিরপুর প্রেস ক্লাব। এতে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের পাশাপাশি বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ অংশ নেন।

মিরপুর প্র্রেস ক্লাব সভাপতি ও দৈনিক অর্থনীতির কাগজের প্রতিনিধি মো. সমুজ আলী রানার সভাপতিত্বে এবং যুগান্তর প্রতিনিধি সিদ্দিকুর মাসুম ও নুর উদ্দিন সুমনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবদুল হাই, কমিউনিটি পুলিশিং সভাপতি মো. আসকার আলী, মিরপুর ব্যাকসের সভাপতি আলহাজ সামছুল হক মাস্টার, জাহিদুল হোসেন জিতু মিয়া, জেলা সাংবাদিক ফোরামের সিনিয়র সহ-সভাপতি দিদার এলাহী সাজু, সাধারণ সম্পাদক শরিফ চৌধুরী, মো. মামুন চৌধুরী, সিনিয়র সাংবাদিক এম সাজিদুর রহমান, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ডা. রমিজ আলী, বাহুবল প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মো. জাবেদ আলী, সহ-সভাপতি সুহেল আহমদ কুটি, আমাদের সময় প্রতিনিধি আবদুল আউয়াল তহবিলদার সবুজ, উপজেলা প্রেস ক্লাব সভাপতি সাঈদ আহমদ, হুমায়ূন কবীর, জুবায়ের আহমদ, নুরুল আমিন শাহজাহান, সৈয়দ জামিল, আনোয়ার হোসেন সজল, উস্তার মিয়া, আবদুল জলিল, মো. ফরিদ মিয়া, টিপু মিয়া প্রমুখ।

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) : ‘সাংবাদিকদের মুক্তি চাই, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার চাই’ স্লোগানে যুগান্তরের দুই সাংবাদিকের মুক্তি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলা প্র্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে গৌরীপুর সরকারি কলেজ স্বজন সমাবেশ।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের গৌরীপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. রইছ উদ্দিন বলেন, মিথ্যা মামলা দিয়ে কোনো নাগরিককে আটকে রাখলে সুশাসন ভূলুণ্ঠিত হয়। তিনি বলেন, অভিযোগের তদন্ত ছাড়া যুগান্তরের কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি আবু জাফর ও লোহাগাড়া প্রতিনিধি মো. সেলিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করা স্বাধীন সাংবাদিকতার কণ্ঠরোধের শামিল।

অপব্যবহার বন্ধ না হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন কালো আইনে পরিণত হবে। মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন গৌরীপুর সরকারি কলেজ স্বজন সমাবেশের সহ-সভাপতি মো. ইমামুল হক। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাংগঠনিক মো. আশিক মিয়া। বক্তব্য রাখেন উপজেলা স্বজন সমাবেশের সভাপতি মো. এমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক কবি সেলিম আল রাজ, পৌর স্বজনের সভাপতি শ্যামল ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক আল ইমরান মুক্তা, সহ-সভাপতি কবি নুরুল আবেদিন, সরকারি কলেজ স্বজন সমাবেশের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু কাউছার, মো. রাজিব মিয়া, সহ-সাধারণ সম্পাদক সানজানা তাসনিম তারিন, সহ-সাংগঠনিক সাদিয়া তাসনিম সুমাইয়া, অর্থ সম্পাদক লিমন মিয়া, পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম, ক্রীড়া সম্পাদক রুমান মিয়া, নাট্য সম্পাদক মো. হৃদয় মিয়া, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক মো. শাহীন মিয়া, স্কুল সম্পাদক মো. সজিব মিয়া, ধর্ম সম্পাদক মো. উবায়দুল হাসান, দফতর সম্পাদক মো. রাকিব মিয়া, প্রচার সম্পাদক স্বপন হাসান মামুন, সহ-প্রচার সম্পাদক মো. কামাল মিয়া প্রমুখ।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×