বাসচাপায় আবরারের মৃত্যু

সুপ্রভাতের চালক সিরাজ ৭ দিনের রিমান্ডে

  যুগান্তর রিপোর্ট ২১ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রিমান্ড

বাসচাপায় শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহত হওয়ার ঘটনায় সুপ্রভাত বাসের চালক সিরাজুল ইসলামের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বুধবার শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারী রিমান্ডের আদেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও গুলশান থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) আমিনুল ইসলাম আদালতে আসামিকে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

আবেদনে বলা হয়, আসামি সিরাজ মঙ্গলবার সকাল ৭টা ২০ মিনিটের দিকে প্রগতি সরণির বাড্ডার দিক থেকে বেপরোয়া ও দ্রুতগতিতে বাস চালিয়ে গুলশান থানার শাহজাদপুর বাঁশতলা এলাকায় পথচারী সিনথিয়া সুলতানা মুক্তাকে চাপা দেয়।

এতে মুক্তা গুরুতর আহত হন। উদ্দেশ্যেপ্রণোদিতভাবে আসামি আরও বেপরোয়া গতিতে বাস চালিয়ে নর্দ্দার আইকন টাওয়ারের সামনে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের প্রথমবর্ষের ছাত্র আবরারকে চাপা দেয়।

জিজ্ঞাসাবাদে সিরাজ ঘটনার সঙ্গে নিজের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে এবং ঘটনার সময় বাসে থাকা তার সহযোগী সুপারভাইজারের নাম ইয়াসিন বলে জানায়। তবে সে কৌশলে হেলপারের নাম-ঠিকানা এড়িয়ে যায়। বাসের মালিকের নাম গোপাল বলে সিরাজ জানিয়েছে। তবে মালিকের পূর্ণাঙ্গ ও সঠিক নাম-ঠিকানা কৌশলে সে এড়িয়ে গেছে।

আবেদনে আরও বলা হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি সহযোগীদের সঠিক ও পূর্ণাঙ্গ নাম-ঠিকানা প্রকাশ করেনি। তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ঘটনার সঙ্গে জড়িত হেলপার, সুপারভাইজার এবং বাস মালিকের পূর্ণাঙ্গ নাম-ঠিকানা সংগ্রহসহ তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

আসামি সিরাজকে সঙ্গে নিয়ে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করলে ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটনসহ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে। এজন্য আসামিকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসা করা প্রয়োজন। আসামির রিমান্ড বাতিল অথবা জামিন আবেদন করা হয়নি।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামিকে রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দেন। একই সঙ্গে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদালত ২২ এপ্রিল দিন ধার্য করেন।

রিমান্ড শুনানি শেষে আদালত প্রাঙ্গণে চালক সিরাজ সাংবাদিকদের কাছে দুর্ঘটনার কথা স্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘আমার গাড়ির ধাক্কা লেগে ছাত্রটি (আবরার) পড়ে যান। তবে আমি তাকে হত্যা করিনি। দুর্ঘটনার পর আমি রাজধানীর নতুন বাজারে যাই। সেখান থেকে পুলিশ আমাকে গ্রেফতার করে।’

১৯ মার্চ সকাল ৭টার দিকে আবরার শাহজাহানপুর বাসা থেকে তার বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার উদ্দেশে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে ড্রাইভারসহ বের হয়। বসুন্ধরা গেটে আবরারকে নামিয়ে দিয়ে ড্রাইভার গাড়ি নিয়ে বাসার উদ্দেশে রওনা হয়। আ

বরার বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িতে উঠার জন্য বসুন্ধরা সিটি গেটের সামনে প্রগতি সরণি জেব্রা ক্রসিং দিয়ে রাস্তার পূর্ব দিকে থেকে পশ্চিম দিকে পার হওয়ার সময় বাসটি আবরারকে চাপা দেয়। বাসের চাকার নিচে পড়ে ঘটনাস্থলেই আবরারের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় ওই রাতেই রাজধানীর গুলশান থানায় আবরারের বাবা ব্রি. জে. (অব.) আরিফ আহম্মেদ চৌধুরী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

ঘটনাপ্রবাহ : বাসচাপায় আবরার নিহত

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×