বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনা

প্রাণ গেল তিন শিক্ষার্থী শিক্ষকসহ ১৪ জনের

  যুগান্তর ডেস্ক ২২ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রাণ গেল তিন শিক্ষার্থী শিক্ষকসহ ১৪ জনের

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় একজন শিক্ষক ও তিন শিক্ষার্থীসহ ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এর মধ্যে মানিকগঞ্জে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী বাবা ও তার চার বছরের ছেলে নিহত হয়েছে। সিরাজগঞ্জ ও নরসিংদীতে কাভার্ডভ্যানচাপায় প্রাণ হারিয়েছে কলেজছাত্রসহ দু’জন। খুলনায় ট্রলিচাপায় আরও এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

রাজধানীর কল্যাণপুরে তেলবাহী লরির চাপায় মারা গেছেন এক মাদ্রাসাশিক্ষক। এছাড়া নারায়ণগঞ্জে মা-মেয়ে, হবিগঞ্জে পৃথক দুর্ঘটনায় ২ জন এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নাটোর, টাঙ্গাইল ও চরফ্যাশনে একজন করে মারা গেছেন। যুগান্তর রিপোর্ট, ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

মানিকগঞ্জ : ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের মানিকগঞ্জে ঢাকাগামী যাত্রীবাহী বাসের চাপায় মারা গেছেন মোটরসাইকেল আরোহী বাবা- ছেলে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে মহাসড়কের ঘিওর উপজেলার পুখুরিয়া নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- ওবায়দুল হক (৩৫) ও তার ছেলে আবদুল্লাহ (৪)। নিহতদের বাড়ি ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলায়। তারা মোটরসাইকেলে করে ফরিদপুর যাচ্ছিলেন। ঘটনার পর নীলাচল পরিবহনের বাসটিকে আটক করলেও এর ঘাতক চালক পালিয়ে যায়। বরংগাইল হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইয়ামিন উদ দৌলা জানান, মোটরসাইকেলে ওবায়দুল হক তার শিশু সন্তানকে নিয়ে ফরিদপুর যাচ্ছিলেন।

ঢাকা : বৃহস্পতিবার ভোর সোয়া ৪টার দিকে রাজধানীর কল্যাণপুর বাস স্ট্যান্ড এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় আবদুর রাজ্জাক নামে এক মাদ্রাসাশিক্ষক নিহত হয়েছেন। তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। মিরপুর থানার এসআই মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, ভোরে কল্যাণপুর বাস স্ট্যান্ড এলাকায় রাস্তা পার হচ্ছিলেন রাজ্জাক। এ সময় একটি তেলের লরি তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তিনি আরও জানান, নিহতের বাড়ি মেহেরপুর সদর এলাকায়। তিনি একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করতেন বলে জানা গেছে।

সিরাজগঞ্জ : কামারখন্দ উপজেলায় কাভার্ড ভ্যান চাপায় হৃদয় সেখ (১৭) নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে তার তিন সহপাঠী। বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে সিরাজগঞ্জ-নলকা নির্মাণাধীন চারলেন মহাসড়কে উপজেলার ভদ্রঘাট ইউনিয়নের ভদ্রঘাট বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতদের সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনার পর স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতা কাভার্ড ভ্যান ভাংচুর করে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং সড়ক অবরোধ করে রাখেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। নিহত হৃদয় বাজার ভদ্রঘাট গ্রামের হায়দার আলী সেখের ছেলে। সে ধুকুরিয়া শেখ আবদুল হামিদ বিএম কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক ছিল। দুর্ঘটনার পর সরেজমিন নিহত হৃদয়ের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় হৃদয়বিদারক দৃশ্য। আহাজারি করছেন মা সেলিনা বেগম, দাদি বেলী বেগম, বোন মীম খাতুনসহ স্বজনরা। প্রতিবেশীদের চোখেও পানি।

নরসিংদী : কাভার্ড ভ্যানচাপায় ৭ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্র নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বারৈচা বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাব্বি (১৩) বেলাবো হোসেন আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজে পড়তে। সে হোসেন নগর বিলপাড়া গ্রামের ফরিদ মিয়ার ছেলে। কাভার্ড ভ্যানসহ চালককে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, নিহত রাব্বি সাইকেলে বাড়ি থেকে তার বাবার দোকানে যাচ্ছিল। মহাসড়ক পার হওয়ার সময় ভৈরব থেকে ঢাকাগামী একটি কাভার্ড ভ্যান তাকে চাপা দেয়। পরে আশপাশে লোকজন উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ভৈরব হাইওয়ে থানার ওসি তরিকুল ইসলাম বলেন, চালকসহ কাভার্ড ভ্যানটি আটক করা হয়েছে। পরিবারের আবেদনের ভিত্তিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। চালকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

খুলনা : রূপসা উপজেলার আনন্দনগর গ্রামে ট্রলিচাপায় আঁখিমণি (৪) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে রাস্তা পার হওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আঁখি ওই গ্রামের আকবর আলী সরদারের মেয়ে। সে এলাকার আনন্দনগর ইবতেদায়ী মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে খাবার কেনার জন্য মাদ্রাসার সামনের রাস্তার অপর পাশে যাচ্ছিল আঁখি। এ সময় দ্রুতগতির একটি ট্রলি তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ট্রলিচালক মিলন শেখকে আটক করা হয়েছে। আঁখিমণির মৃত্যুতে তার পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার স্বজনদের কান্নায় ভারি হয়ে উঠে আশপাশের পরিবেশ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : সরাইল উপজেলায় ট্রাক্টর ও লরির সংঘর্ষে কাদির মিয়া (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার বেড়তলা এলাকার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কাদির উপজেলার বৈশ্বর গ্রামের সাঈদ মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় কালা মিয়া (৩৫) ও ইমাম হোসেন (২৬) নামে আরও দু’জন আহত হয়েছেন। তাদের জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নাটোর : মাটিবাহী ট্রাক্টরের চাপায় রফিক নামে এক অটোরিকশা চালক নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছে ইয়ামিন ও জাহাঙ্গীর নামে দুই যাত্রী। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে নাটোর সদর উপজেলার ডাল সড়ক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রফিক সিংড়া উপজেলার সাঐল গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে। ঘাতক ট্রাক্টর এবং চালককে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) : উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের জনতার বাজারে বাসচাপায় রাজিয়া বেগম (৬৫) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। নিহত রাজিয়া গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল গ্রামের আছিম উল্লার স্ত্রী। স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে জনতার বাজারে সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন রাজিয়া। হঠাৎ সিলেট থেকে ঢাকাগামী কুমিল্লা ট্রান্সপোর্টের একটি যাত্রীবাহী বাস অপর একটি গাড়িকে পাশ কাটিয়ে যাওয়ার সময় তাকে চাপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়।

চরফ্যাশন (দক্ষিণ) : মোটরসাইকেল উল্টে পারভেজ নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। তার বাড়ি পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী থানার ছোট মাইজদা ইউনিয়নের খলিসাখালি গ্রামে। বাবার নাম শাহে আলম। সে চরফ্যাশন উপজেলার শশীভূষণ থানার আনজুরহাটে ফুপা রুহুল আমিনের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল। বুধবার বন্ধুদের নিয়ে ঘুরতে যাওয়ার সময় মায়া ব্রিজসংলগ্ন সড়কে মোটরসাইকেল উল্টে পারভেজসহ তার তিন বন্ধু আহত হয়েছে। পরে পারভেজকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আহতরা হল- হৃদয় ও আসাদুজ্জামান।

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) : ঘাটাইল উপজেলায় অটোরিকশা চাপায় আসোয়াদ নামে ৯ বছরের এক শিশু নিহত হয়েছে। সে পাঁচটিকরী গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ছেলে। বৃহস্পতিবার বিকালে ঘাটাইল-ভূয়াপুর সড়কে পাঁচটিকরী নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

বাহুবল (হবিগঞ্জ) : রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে যাত্রাবাহী বাসের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই এক ব্যক্তি নিহত ও অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার যশপাল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহত হন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার কুটিরগাঁও গ্রামের বাবুল মিয়া (৩৫)।

সোনায়গাঁ : ঢাকা-চট্টগ্রাম সড়কের সোনারগাঁয়ে দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী মা-মেয়ে নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন মোটরসাইকেল চালক বাবা। রাত সাড়ে ৯টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×