বাস-মাহিন্দ্র সংঘর্ষের পর চাপা দিয়ে পালাল বাসচালক

বরিশালে বিএম কলেজ ছাত্রীসহ নিহত ৭

৬ জেলায় আরও ৬ জনের মৃত্যু

  যুগান্তর ডেস্ক ২৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশাল ম্যাপ
বরিশাল ম্যাপ

ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের বরিশালের গড়িয়ারপাড় এলাকায় যাত্রীবাহী বাস ও থ্রি হুইলার মাহিন্দ্রর সংঘর্ষে বিএম কলেজের মাস্টার্সের ছাত্রীসহ ৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। আহতদের বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। স্বজনদের অভিযোগ, সংঘর্ষের পর ঘাতক বাসটি সেখানে না থেমে ক্ষতিগ্রস্ত মাহিন্দ্রকে চাপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। এ কারণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে যায় বলে তাদের ধারণা। এছাড়া পাবনা, পিরোজপুর, মেহেরপুর, নরসিংদী, রাজশাহী ও মাগুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ আরও ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

বরিশাল, বানারীপাড়া ও বাবুগঞ্জ : হতাহতদের উদ্ধারকারী ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার ইউনুস আলী জানিয়েছেন, মাহিন্দ্রটি ৮ জন যাত্রী নিয়ে বানারীপাড়া থেকে বরিশালের উদ্দেশে যাচ্ছিল। গড়িয়ারপাড় এলাকার তেঁতুলতলায় স্বরূপকাঠিগামী দুর্জয় পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মাহিন্দ্রটির সংঘর্ষ হয়।

এতে মাহিন্দ্রটি দুমড়ে-মুচড়ে রাস্তার পাশে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই বিএম কলেজছাত্রী শিলা হালদারের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক আরও দু’জনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এছাড়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মাহিন্দ্রচালকসহ আরও চারজন।

নিহতরা হলেন- ঝালকাঠির বাসিন্দা ও বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজের মাস্টার্সের গণিত বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রী শিলা হালদার (২৪), বাকেরগঞ্জের বাসিন্দা ইউনুস সিকদারের ছেলে ও নগরীর নথুল্লাবাদ এলাকার বাসিন্দা রঙমিস্ত্রি মানিক সিকদার (৪০), নগরীর ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাশিপুর এলাকার এনছাফ আলীর ছেলে অটোরিকশাচালক মো. খোকন (৩৫), কাশিপুরের গণপাড়া এলাকার ইদ্রিস খানের ছেলে দুর্ঘটনাকবলিত মাহিন্দ্রচালক মো. সোহেল (২৫), বাবুগঞ্জ উপজেলার মাধবপাশার দুর্গাসাগর এলাকার মোখলেস হাওলাদারের স্ত্রী পারভীন বেগম (৩৫) ও তার ছেলে তাইয়ুম (৭) এবং মাধবপাশা এলাকার মেহেরুন্নেছা (৫০)।

আহতদের মধ্যে নিহত মেহেরুন্নেছার নাতি আবদুল্লাহ (৭) এবং সুমন, তন্নি ও দুলাল হালদারকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এদিকে নিহতদের স্বজনরা বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এসে কান্নায় ভেঙে পড়েন। তাদের আহাজারিতে হাসপাতালের পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে। বিক্ষুব্ধ স্বজনরা অভিযোগ করেন, মুখোমুখি সংঘর্ষের পর ঘাতক বাসটির চালক সেখানে না থামিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মাহিন্দ্রকে চাপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। স্বজনদের ধারণা, এ কারণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে যায়। তারা দুর্ঘটনার সব দায়ভার বাসচালকের ওপর চাপিয়েছেন। তাই চালকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তারা।

নিহত শিলা হালদারের মা গীতা রানী হালদার জানান, শিলা এসএসসি, এইচএসসিতে জিপিএ ফাইভ পেয়েছিল। অনার্সেও ভালো রেজাল্ট করে। ইচ্ছা ছিল আগামী ২৫ মার্চ শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নেবে। কিন্তু তার স্বপ্ন আর পূরণ হল না।

বরিশাল মেট্রোপলিটন এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের ওসি আবদুর রহমান মুকুল জানান, বাসচালককে আটক করা যায়নি। দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও মাহিন্দ্র পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। এদিকে নিহতদের সহায়তার আশ্বাস দেয়া হয়েছে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

মাগুরা : ঢাকা থেকে এক গৃহবধূর লাশ নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে মাগুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় আবুল হোসেন (৩১) নামে এক অ্যাম্বুলেন্স চালক নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। নিহত অ্যাম্বুলেন্স চালক গোপালগঞ্জ জেলা সদরের বোলতোল গ্রামের নান্নু মিয়ার ছেলে।

শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে মাগুরা-যশোর সড়কের মঘির ঢাল এলাকায় হঠাৎ রাস্তার পাশ থেকে উঠে আসা একটি মোটরসাইকেলকে রক্ষা করতে গিয়ে সড়কের পাশে গাছের সঙ্গে সজোরে ধাক্কায় খায় অ্যাম্বুলেন্সটি। সদর থানার এসআই লিটন চন্দ্র দাস জানান, বৃহস্পতিবার খুলনায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হন ডুমুরিয়ার আবুল গাজীর স্ত্রী নাসিমা বেগম। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তার লাশ নিয়ে যাওয়ার সময় অ্যাম্বুলেন্স চালকও দুর্ঘটনায় নিহত হলেন। এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) : মঠবাড়িয়ায়-সাপলেজা সড়কে টমটম উল্টে এর চালক ইব্রাহীম জমাদ্দার (৩৫) মারা গেছেন। নিহত ইব্রাহীম উত্তর সোনাখালী গ্রামের রফিক জমাদ্দারের ছেলে। বৃহস্পতিবার বিকালে বাড়ি থেকে টমটম নিয়ে ইট আনতে সোনাখালী বাজারে যাচ্ছিলেন তিনি। পথে একটি গরু বাঁচাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের খাদে উল্টে যায় টমটমটি।

চাটমোহর (পাবনা) : ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা উল্টে প্রাণ হারালেন আলাউদ্দিন প্রামাণিক (৫০) নামে এক কৃষক। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের বাইপাস সড়কের ভাদড়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আলাউদ্দিন উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের সুলতান প্রামাণিকের ছেলে। স্থানীয়রা জানান, বাঙ্গালা গ্রাম থেকে পুত্রবধূকে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন আলাউদ্দিন।

মেহেরপুর : শুক্রবার বিকালে মুজিবনগর উপজেলার কেদারগঞ্জে লাটাহাম্বার উল্টো এর চালক মিজানুর রহমান (৪৯) নিহত হয়েছেন। তিনি মুজিবনগর উপজেলার সোনাপুর গ্রামের জটু শেখের ছেলে।

রাজশাহী : গোদাগাড়ীতে ট্রলিচাপায় আসাদুজ্জামান নূর নামে আড়াই বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার বিকালে উপজেলার কাকনহাট পৌরসভার ডাকনির মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু নূর গোদাগাড়ী পৌর এলাকার মহিশালবাড়ী গ্রামের ফারুক হোসেনের ছেলে। গোদাগাড়ী থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানিয়েছেন, শিশু নূর তার মায়ের সঙ্গে ফুফাতো ভাইয়ের খাতনার দাওয়াতে গিয়েছিল। সেখানে অন্য শিশুদের সঙ্গে খেলার সময় ট্রলিচাপায় ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে।

নরসিংদী : বেলাবতে ট্রাকচাপায় আরজানা বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার বারৈচা বাসস্ট্যান্ডের কাছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আরজানা রায়পুরা উপজেলার খানাহাতি গ্রামের হোসেন আলীর স্ত্রী। ভৈরব হাইওয়ে থানার ওসি তরিকুল ইসলাম বলেন, ঘাতক ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালককে আটক করা যায়নি।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×