যমুনা ফিউচার পার্ক সংলগ্ন সড়কে ফুটওভারব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ

ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

সাধুবাদ মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম ও ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৫ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে আবরার আহমেদ ফুটওভারব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর ফলক। ছবি: যুগান্তর

রাজধানীর প্রগতি সরণির যমুনা ফিউচার পার্ক সংলগ্ন সড়কে ফুটওভারব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করায় যমুনা ফিউচার পার্কের ব্যবসায়ী, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী এবং সর্বস্তরের মানুষ বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ডিএনসিসির নবনির্বাচিত মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

এশিয়ার সর্ববৃহৎ শপিং কমপ্লেক্স যমুনা ফিউচার পার্ক, দেশের এক নম্বর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, দেশসেরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, চিকিৎসা ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মানের অ্যাপোলো হাসপাতালসহ বিভিন্ন বেসরকারি ব্যাংক, বীমাসহ নামিদামি প্রতিষ্ঠানের কারণে এলাকাটি ব্যবসা-বাণিজ্য, শিক্ষা, চিকিৎসাসেবার প্রাণকেন্দ্রে পরিণত হয়েছে।

গুরুত্বপূর্ণ এ স্থানে আধুনিক মানের ফুটওভারব্রিজ নির্মাণে যমুনা ফিউচার পার্কের দোকান-মালিক ও ব্যবসায়ী এবং এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। ব্যস্ততম এ পয়েন্টে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ ফুটওভারব্রিজ নির্মাণ করায় এলাকাবাসী ধন্যবাদ জানিয়েছে।

এলাকাবাসীর অভিমত, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় ডিএনসিসির গৃহীত যুগান্তকারী এ উদ্যোগ দ্রুততম সময়ে বাস্তবে রূপ পাবে। নির্মিতব্য এ ফুটওভারব্রিজে চলন্ত সিঁড়ি যুক্ত হলে অত্যন্ত ব্যস্ততম এ পয়েন্টের চলাচলকারীরা বেশি সুবিধা পাবেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, রাজধানীর প্রগতি সরণিতে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ হারানো ‘আবরার আহমেদ চৌধুরী’র নামে ফুটওভারব্রিজটি নির্মাণ করা হচ্ছে। নির্মিতব্য এ ব্রিজ আগামী মে মাসের মধ্যেই চালু হবে। সে লক্ষ্যে কার্যক্রম পরিচালনা করছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)।

একটি বেসরকারি কোম্পানি এটির নির্মাণ খরচ বহন করছে। ২০ মার্চ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপিত ফুটওভারব্রিজটির নকশা করতে কোম্পানিটি ইতিমধ্যে একজন স্থপতি নিয়োগ করেছে। ‘আবরার ফুটওভারব্রিজের’ একাধিক খসড়া নকশা ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলামকে দেখানো হবে।

এরপর চূড়ান্ত নকশায় দ্রুততম সময়ে সেটির নির্মাণ কাজ শুরু করবে কোম্পানিটি। সংশ্লিষ্টরা আরও জানান, আবরারের নামে নির্মিতব্য ফুটওভারব্রিজটি হবে রাজধানীর সবচেয়ে আধুনিক মানের। এ প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রায় দুই কোটি টাকা খরচ হবে। এছাড়া এ ফুটওভারব্রিজের যাত্রীছাউনি, নিরাপত্তা বেষ্টনী, সিঁড়িসহ সবকিছু হবে অত্যন্ত মানসম্মত।

এ প্রসঙ্গে ডিএনসিসির ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, আগামী মে মাসের মধ্যে আবরার ফুটওভারব্রিজের নির্মাণ কাজ শেষ হবে। একটি বেসরকারি কোম্পানি আমাদের এ ফুটওভারব্রিজ নির্মাণ কাজে সহযোগিতা করছে।

এটি হবে রাজধানীর অন্য সব ফুটওভারের তুলনায় দৃষ্টিনন্দন ও জনবান্ধব। তিনি আরও বলেন, ‘ফুটওভারব্রিজ নির্মাণ কাজ প্রাথমিক অবস্থায় রয়েছে। এ কারণে অর্থায়ন প্রদানকারী বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে কিছু বলতে চাচ্ছি না; তবে পরে ওই প্রতিষ্ঠানের অনুমতিক্রমে সব কিছু জানানো হবে।

১৯ মার্চ বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী প্রগতি সরণির জেব্রা ক্রসিংয়ে বাসে পিষ্ট হয়ে প্রাণ হারান। যে স্থানে আবরার প্রাণ হারান পরদিন সেখানে তার নামেই ফুটওভারব্রিজের নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম।

সে সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন বিইউপির ভিসি মেজর জেনারেল মোহাম্মদ এমদাদুল হক বারী, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া প্রমুখ।

ঘটনাপ্রবাহ : বাসচাপায় আবরার নিহত

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×