নির্বাচনী বিরোধ: মঠবাড়িয়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা খুন

বিভিন্ন স্থানে আহত ২৩ আটক ৩১

  যুগান্তর ডেস্ক ২৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কুপিয়ে হত্যা
কুপিয়ে হত্যা। প্রতীকী ছবি

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের এক নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহত জনি তালুকদার (২৫) মঠবাড়িয়া উপজেলার হলতা-গুলিসাখালী ইউনিয়নের কবুতরখালী গ্রামের হাতেম আলী তালুকদারের ছেলে।

তিনি ওই ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি ছিলেন। সোমবার কবুতরখালী গ্রামের বিলের পাড়ে প্রতিপক্ষের লোকজন জনির ওপর হামলা চালিয়ে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। এদিকে দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতার ঘটনায় আরও ২৩ জন আহত হয়েছেন। পুলিশ ৩১ জনকে আটক করেছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) : প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে জনি তালুকদার কবুতরখালী গ্রামের বাড়ি থেকে গুলিসাখালী বাজারে যাচ্ছিলেন। পথে ১৫-২০ জন তাকে ধাওয়া করে গ্রামের বিলের পাড়ে নিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে দুপুর ১টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রাথী (স্বতন্ত্র) রিয়াজ উদ্দিন (আনারস প্রতীক) জানিয়েছেন, জনি তার কর্মী ছিলেন। তার দাবি, উপজেলা নির্বাচনে তার প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগ প্রার্থী হোসাইন মোশাররফ সাকুর কর্মীরাই জনিকে হত্যা করেছে।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শওকত আনোয়ার জানান, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ সালাম কবির বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এর আগে শনিবার রাতে উপজেলার গুলিসাখালী বাজারে জনসভা শেষে ফেরার সময় সাকুর ওপর হামলা হয়। ওই হামলায় তিনিসহ অন্তত ২০ জন আহত হন। ওই হামলার জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থী রিয়াজের সমর্থকদের দায়ী করে আসছেন সাকুর সমর্থকরা। তার দু’দিনের মাথায় রিয়াজের সমর্থক জনির ওপর হামলার ঘটনা ঘটল।

রাজাপুর (ঝালকাঠি) : রোববার সন্ধ্যায় নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর বিভিন্ন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অধ্যক্ষ মনিরউজ্জামানের সমর্থকের সঙ্গে বিদ্রোহী প্রার্থী মিলন মাহমুদ বাচ্চুর সমর্থদের সংঘর্ষ হয়। এতে তিনজন আহত হয়েছেন। তারা হলেন- মিজানুর রহমান, জলমিয়া ও আ. রহমান তোতা জমাদ্দার। তাদের রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ ও কোটালীপাড়া : টুঙ্গিপাড়ায় উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ফল বর্জনসহ ভোট পুনর্গণনার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন পরাজিত প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা মো. বাবুল শেখ। সোমবার সকালে পাটগাতী নিজ নির্বাচনী অফিসে তিনি এ সংবাদ সম্মেলন করেন। বাবুল শেখ তার প্রতিপক্ষ বিজয়ী প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রশাসনকে ব্যবহার করে ফল উল্টে দেয়ার অভিযোগ তোলেন।

এ সময় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নিরপেক্ষ প্রশাসনের অধীনে ভোট পুনর্গণনা করা না হলে হরতাল-অবরোধসহ কঠোর কর্মসূচির আলটিমেটাম দেয়া হয়। এদিন সকাল থেকে পাটগাতী-পিরোজপুর সড়কের ওপর কাঠের গুঁড়ি ও বাঁশ ফেলে একই দাবিতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করে পরাজিত প্রার্থীর সহস্রাধিক কর্মী-সমর্থক। এ সময় পাটগাতী বাসস্ট্যান্ড ও বাজারের দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়।

এদিকে সোমবার কোটালীপাড়া উপজেলার কলাবাড়ী ইউনিয়নের শিমুলবাড়ী ও কান্দি ইউনিয়নের গৌতেমারাবাদ গ্রামে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ ১৫ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় ৭ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

ফেনী : সোনাগাজী উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সৈয়দ দীন মোহাম্মদের (টিউবওয়েল) প্রধান নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করেছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সমর্থকরা। হামলায় তার সমর্থক যুবলীগ কর্মী জাহিদ হোসেন, ফয়েজ আহমেদ, জনি, শরীফ হোসেন ও মো. মামুন আহত হয়েছেন।

মডেল থানার ওসি মো. মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে জড়িত সন্দেহে সাদ্দাম হোসেন নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

শ্রীপুর (গাজীপুর) : শ্রীপুরের মাওনা চৌরাস্তা, মুলাইদ, মাওনা, ভাংনাহাটী এলাকায় হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও সহিংসতার ঘটনায় ৩০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শ্রীপুর থানার এসআই আজহারুল ইসলাম বাদী হয়ে হামলার ঘটনায় দাঙ্গা-হাঙ্গামার অভিযোগে মামলা করেছেন।

গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল আলম রবিন বলেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের পক্ষে প্রচারণা করায় রোববার রাত পৌনে ১০টার দিকে কমপক্ষে শতাধিক যুবক মোটরসাইকেলে তার বাড়িতে হামলা করে।

এ সময় তিনিও আহত হয়েছেন। শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আজহারুল ইসলাম জানান, এসব ঘটনায় গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক ফাহিম খন্দকার ও শ্রীপুর পৌর যুবলীগ কর্মী আশরাফুল আলম ওয়াসিমের নেতৃত্বে অভিযুক্তরা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় হামলা, ভাংচুর, দাঙ্গা-হাঙ্গামা করে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করে।

ঘটনাপ্রবাহ : উপজেলা নির্বাচন ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×