খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদ

পুলিশের বাধায় বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল পণ্ড

রাজধানীসহ সারা দেশে গ্রেফতার আরও ১৪৫ * সিলেটে বিদেশে অবস্থান করা নেতারাও আসামি

  যুগান্তর রিপোর্ট ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ-মিছিল ও সমাবেশ করেছেন দলের নেতাকর্মীরা। শনিবার রাজধানীর পল্টন এলাকায় মিছিল বের করেন নেতাকর্মীরা। পুলিশের বাধা ও লাঠিপেটার কারণে মিছিলটি বেশিদূর এগোতে পারেনি। এ সময় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি নবীউল্লাহসহ ২৫ জনকে আটক করা হয়। চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, খুলনা ও বরিশালসহ বেশ কয়েকটি জেলায়ও বিক্ষোভ-সমাবেশ করেন নেতাকর্মীরা। এদিন ঢাকার বাইরে বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীসহ ১২০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এতে শুক্রবার রাত থেকে শনিবার বিকাল পর্যন্ত গ্রেফতারের সংখ্যা দাঁড়ায় ১৪৫ জনে। এ নিয়ে গত ১২ দিনে সারা দেশে ৪ হাজারের বেশি লোক গ্রেফতার হয়েছেন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার বেলা দেড়টায় পল্টন হাউস বিল্ডিংয়ের গলি থেকে মিছিল শুরু হয়। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক মিছিলে নেতৃত্ব দেন। ফকিরাপুল পানির ট্যাঙ্কির কাছে আসার পর মিছিলে নেতাকর্মীর সংখ্যা আরও বাড়ে। পরে ওই স্থান অতিক্রম করার পর পুলিশ লাঠিপেটা করে নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় বিএনপির কয়েকজন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়।

বিএনপি সূত্র জানায়, ছত্রভঙ্গ করে দেয়ার আগে দৈনিক বাংলা মোড়ে আসার পর মিছিলে যোগ দেন যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম নীরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবুসহ দলের কয়েকজন নেতাকর্মী। মিছিলে আরও ছিলেন- দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, শহীদুল ইসলাম বাবুল, হারুনুর রশিদ, মোজাম্মেল হক, খান রফিউল ইসলাম প্রমুখ।

এদিকে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশ কোনো ধরনের উসকানি ছাড়াই হামলা করেছে। লাঠিচার্জ করে বিএনপি নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পুলিশের মতিঝিল জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত) আরিফুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, মিছিল থেকে বিএনপির কয়েকজন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। তাদের অনেকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশ বাধা দেয়নি বলেও তিনি দাবি করেন।

সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের জেল হয়। বৃহস্পতিবার নিম্ন আদালতে এ রায় ঘোষণার পর সারা দেশে তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ করে বিএনপি। পরদিন শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে বায়তুল মোকাররম মসজিদের সামনে থেকে শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল করে। মিছিলটি নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। মিছিলের পুরো সময়টায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ সতর্ক পাহারায় ছিল।

এদিকে শনিবার রাজধানীর কাঁটাবন মোড় থেকে নীলক্ষেত পর্যন্ত বিক্ষোভ করেছে ছাত্রদল। পরে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন দলটির নেতারা। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে হওয়া রায়কে ‘সাজানো’ অভিযোগ করে অবিলম্বে তার মুক্তি দাবি করেন ছাত্রনেতারা। বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রদলের সহ-সভাপতি আলমগীর হাসান সোহান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক মুন্না, মির্জা ইয়াসিন আলী, সহ-সাধারণ সম্পাদক রাজীব আহসান চৌধুরী পাপ্পু, শিক্ষা ও পাঠ্যচক্র বিষয়ক সম্পাদক আবু ফায়সাল জিহাদ, ছাত্রদলের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, ছাত্রনেতা রমিজ হায়দার, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোতাসিম বিল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিএমএ’র সাবেক নেতাদের প্রতিবাদ : খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সাজা দেয়ার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন বিএমএ’র সাবেক নেতারা। শনিবার এক বিবৃতিতে তারা বলেন, সরকার ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করতে দেশজুড়ে গুম-খুন, অপহরণ, হামলা-মামলা, গ্রেফতার করে দেশের মানুষের জনজীবন দুর্বিষহ করে ফেলেছে। পুরো দেশকে একটা কারাগারে পরিণত করেছে। দেশে যেন কোনো অবস্থাতেই গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরে না আসে সেজন্য সব ধরনের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে নিরপেক্ষ নির্বাচনের যে গণতান্ত্রিক আন্দোলন চলছে তা নস্যাৎ করার জন্য বর্তমান সরকার উঠে-পড়ে লেগেছে। বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন- অধ্যাপক ডা. বায়েছ ভূঁইয়া, অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, অধ্যাপক ডা. একেএম আজিজুল হক, অধ্যাপক রফিকুল কবীর লাবু, অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মাহবুবুল আলম, অধ্যাপক ডা. মোস্তাক রহিম স্বপন, ডা. এসএম রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, ডা. শহিদুল আলম, ডা. হারুন-আল-রশিদ, ডা. খুরশিদ জামিল চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. মঈনুল হাসান সাদিক, অধ্যাপক ডা. আজিজ রহিম, অধ্যাপক ডা. আবদুল মান্নান মিয়া, অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম, অধ্যাপক ডা. রফিক চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. আতিকুর রহমান, অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মো. আকরাম হোসেন, অধ্যাপক ডা. শামিমুর রহমান, অধ্যাপক ডা. মওদুদ হোসেন আলমগীর পাভেল, অধ্যাপক ডা. এন এ কামরুল আহসান, ডা. রফিকুল ইসলাম বাবলু, ডা. জহিরুল ইসলাম শাকিল, ডা. শাখাওয়াত হোসেন জীবন, ডা. মো. আবদুল কুদ্দুস, ডা. আবদুস সালাম, ডা. আমিরুজ্জামান খান লাভলু, অধ্যাপক ডা. রুহুল আমিন, ডা. ওয়াসিম হোসেন, ডা. আফসারুল হাবীব রোজ, ডা. সুমন নাজমুল হোসেন, ডা. প্রভাত চন্দ্র বিশ্বাস, ডা. মোফাখ্খারুল ইসলাম, ডা. খায়রুল ইসলাম, ডা. মো. আবুল কেনান, ডা. সাইফ উদ্দিন নেছার আহমেদ তুষাণ, ডা. মজিবুল হক দোয়েল, ডা. এমএ কামাল, ডা. রেহান উদ্দিন খান, ডা. সায়েফউল্লাহ, ডা. হাসান জাফর রিফাতসহ বিএমএ’র দুই শতাধিক নেতা।

যুগান্তর রিপোর্ট, ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

সিলেট : পুলিশের দায়ের করা মামলায় দীর্ঘদিন ধরে বিদেশে অবস্থান করা নেতাদেরও আসামি করা হয়েছে। পুলিশ, আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলেও আসামি করা হয় শুধু বিএনপি ও তাদের অনুসারীদের। শনিবার বিএনপি নেতাকর্মীসহ ২৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদিকে জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের উদ্যোগে শনিবার বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে। মিছিল শেষে বন্দর পয়েন্টে এসে এক সমাবেশে মিলিত হন নেতাকর্মীরা। মিছিল থেকে আরও দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়।

রাজশাহী : শনিবার বেলা ১১টায় মালোপাড়ায় বিএনপি নেতাকর্মীরা কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। এতে বক্তব্য দেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন প্রমুখ।

বরিশাল : মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার বলেছেন, টাকা ব্যাংকে থাকা সত্ত্বেও খালেদা জিয়াকে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। সব নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে তাকে মুক্ত করতে হবে।

কুষ্টিয়া : জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিনকে দিনভর অবরুদ্ধ করে রাখে আইনশৃক্সক্ষলা রক্ষাকারী বাহিনী। শনিবার সকাল ১০টায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ তার বাসভবন ঘিরে অবস্থান নেয়। দুপুরে সোহরাব উদ্দিন বের হওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাকে বাধা দেয়। পুলিশ বলছে, নাশকতার আশঙ্কায় এ সতর্ক অবস্থান।

খুলনা : শনিবার দুপুরে দলের কে ডি ঘোষ রোডের দলীয় কার্যালয় চত্বরে নগর ও জেলা বিএনপি পৃথকভাবে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। এ সময় বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, খালেদা জিয়াকে বানোয়াট মামলায় কারাগারে পাঠানোয় দেশের ১৬ কোটি মানুষের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে।

কুমিল্লা : শনিবার বিকালে নগরীর রানীরবাজার এলাকায় বিএনপি নেতাকর্মীরা মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা যুবদলের সভাপতি আশিকুর রহমান মাহমুদ ওয়াসিম ও ছাত্রদল নেতা রিয়াজ উদ্দিনসহ ছয় নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ।

কুড়িগ্রাম : জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে বিএনপির ৯ নেতাকর্মীসহ ৩৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত জেলার ৯ উপজেলায় অভিযান চালায় পুলিশ।

ভোলা : ভোলায় জেলা বিএনপির সম্পাদক হারুন অর রশিদ ট্রুমেনের ছেলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ শেষ বর্ষের ছাত্র খালেদ হারুন জাবিরকে বাসা থেকে আটক করেছে পুলিশ। পরে তাকে একটি হত্যা মামলার আসামি করা হয়।

রাজবাড়ী : জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সাবেক পৌর কাউন্সিলর আফছার আলী সরদারসহ ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে আফছার আলী সরদারকে কারাগারে পাঠানো হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিশেষ অভিযানে বিএনপির ২৮ কর্মী-সমর্থককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার সকাল পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

শরীয়তপুর : শুক্রবার রাতে বিভিন্ন এলাকা থেকে জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল মাদবর, শরীয়তপুর পৌর যুবদলের সহ-সভাপতি সোহেল সরদারসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) : জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে গ্রেফতার করেছে সোনারগাঁ থানা পুলিশ। পরে তাকে আদালতে পাঠানো হয়।

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) : শনিবার সকালে স্থানীয় বহেরাতলা থেকে বিএনপি নেতাকর্মীরা মিছিল করে পৌর শহরে ঢুকতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। স্থানীয় পাঁচ নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আরও গ্রেফতার : এছাড়া চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে ৩, নরসিংদীর পলাশে ১, নেত্রকোনার কলমাকান্দায় বিএনপি সভাপতিসহ ৪, মদনে ১ ও নড়াইলের লোহাগড়ায় ১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

চট্টগ্রাম : শনিবার বিকালে নগর বিএনপির উদ্যোগে কাজীর দেউড়ি এলাকায় দলীয় কার্যালয় চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। কড়া পুলিশ পাহারায় সমাবেশে বিএনপি নেতারা বলেন, নিজেদের ভরাডুবির আশঙ্কায় সরকার যে কোনো প্রকারে বিএনপিকে আগামী নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে চাইছে।

রংপুর : মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিজু ও সহ-প্রচার সম্পাদক মোস্তাফিজার রহমান দিপুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড়ের বিএনপি দলীয় কার্যালয়ের পাশের একটি বাড়ি থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

mans-world

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.