চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ড: আর্থিক ক্ষতিপূরণ ও কর্মসংস্থান দাবি

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৬ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ড: আর্থিক ক্ষতিপূরণ ও কর্মসংস্থান দাবি
জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ১৫ সংগঠনের সমন্বয়ে মানববন্ধন। ছবি: যুগান্তর

পুরান ঢাকার চকবাজারের চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ডে হতাহত ব্যক্তিদের পরিবারগুলো আর্থিক ক্ষতিপূরণের দাবি জানিয়েছে। পাশাপাশি পরিবারের কর্মক্ষম সদস্যের কর্মসংস্থানের দাবিও করেছেন তারা। শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ১৫ সংগঠনের সমন্বয়ে ঐক্যবদ্ধ সব সামাজিক সংগঠনের ব্যানারে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে হতাহত ব্যক্তিদের স্ত্রী, বাবা, মা, ভাই ও সন্তানরা বক্তব্য দেন। এ সময় কেউ আর্থিক ক্ষতিপূরণ দাবি করেন, কেউ কর্মসংস্থানের দাবি করেন। নিহত ব্যক্তিদের ছোট ছোট সন্তানও মানববন্ধনে অংশ নেয়। অগ্নিকাণ্ডে নিহত মোহাম্মদ শাহীনের স্ত্রী ময়না বেগম বলেন, ‘স্বামীর মৃত্যুর পর তিন সন্তানকে নিয়ে আমার পথে বসার উপক্রম হয়েছে। আমার বড় ছেলের বয়স ১৩ বছর। সবচেয়ে ছোট মেয়ের বয়স ৭ বছর। আমার সুখের সংসার ছিল। স্বামীর মৃত্যুর পর রাতারাতি সবকিছু পাল্টে গেছে। খাব কী, আমার ছেলেমেয়েদের কীভাবে পড়াব, বাসা ভাড়া কী করে দেব- এসব নিয়ে ভাবতে পারছি না।’ তিনি বলেন, ‘আর্থিকভাবে সচ্ছল এমন কোনো আত্মীয়স্বজন নেই, যারা আমাদের পাশে দাঁড়াতে পারেন। এমন পরিস্থিতিতে সামনের দিকে তাকালে আমি শুধু অন্ধকার দেখি। আমার সন্তানদের ভবিষ্যৎ কী হবে জানি না। এমন পরিস্থিতি সরকারের কাছে আর্থিক সহযোগিতার আকুল আবেদন জানাচ্ছি।’

মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনজীবী সমিতির (বেলা) সভাপতি সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান বলেন, এ ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। শুধু দায়ী ব্যবসায়ী বা ভবনের মালিকদের বিচার করতে হবে তা নয়, যেসব সংস্থার অবহেলার কারণে এই অব্যবস্থাপনাগুলো চলছিল, তাদেরও বিচারের আওতায় আনতে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে আর্থিক সহযোগিতার দাবি জানান। তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো যাতে চলতে পারে, সেই ব্যবস্থা করে দিতে হবে। কোনো কোনো পরিবার একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়ে চরম দুর্দশায় পড়েছে।

১৫টি সংগঠনের সমন্বয়ে ঐক্যবদ্ধ সব সামাজিক সংগঠনের আহ্বায়ক এমএ রহিম বলেন, চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের পরিবারকে উপযুক্ত আর্থিক ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। আহতদের মধ্যে যারা উপার্জন ক্ষমতা হারিয়েছে তাদের পরিবারের যোগ্য অন্তত একজন সদস্যকে সরকারি চাকরির ব্যবস্থা করতে হবে। মানববন্ধনে ক্ষতিগ্রস্তরা দাবি করেন, চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের সন্তানদের চিকিৎসাসেবা ও লেখাপড়ার ব্যয়ভার সরকারকে নিশ্চিত করতে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ করে উপযুক্ত আর্থিক সাহায্য নিশ্চিত করতে হবে। কেমিক্যাল ও দাহ্য পদার্থ নিরাপদ স্থানে গুদামজাত করতে হবে। বহুতল ভবনে বসবাসকারীদের নিয়ে ফায়ার সার্ভিসের উদ্যোগে অগ্নিনির্বাপণে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

২০ ফেব্রুয়ারি পুরান ঢাকার চকবাজারের চুড়িহাট্টা মোড়ের ওয়াহেদ মঞ্জিলে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত হয় ৭১ জন। আহত হন অনেকে। এ ঘটনায় হতাহতদের পরিবারের সদস্য এবং ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের অনেকেই সব হারিয়ে এখন মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

ঘটনাপ্রবাহ : চকবাজার আগুনে মৃত্যুর মিছিল

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×