খালেদা জিয়াকে মানসম্পন্ন স্থানে রাখা হয়েছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

২১ ফেব্রুয়ারি ঘিরে কেউ নাশকতার পরিকল্পনা করতে পারবে না

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ২১ ফেব্রুয়ারিকে ঘিরে কোনো নাশকতার পরিকল্পনা কেউ করতে পারবে না। এ জন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে। রোববার সচিবালয়ে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি- ২০ ফেব্রুয়ারি রাত থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা ব্যাপক নিরাপত্তার আওতায় আনা হবে। শহীদ মিনার এলাকা, নীলক্ষেত, টিএসসি, শাহবাগ আমরা সিসি টিভির আওতায় নিয়ে আসব। কয়েকটি মনিটরিং রুম খোলা হবে।’

তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, বিদেশি কূটনীতিকরা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হবে। সাদা পোশাকে পুলিশ শহীদ মিনার ও বেদিতে অবস্থান করবে, যাতে শহীদ মিনারের মর্যাদা রক্ষা হয়।

খালেদা জিয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, আদালতের রায় অনুযায়ী তার থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। পরিত্যক্ত ও পুরনো কারাগারে কেন একমাত্র বন্দি হিসেবে রাখা হয়েছে, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দু’বারের প্রধানমন্ত্রী। উনি সাবেক এমপি। একটি বড় দলের চেয়ারপারসন। উনার সামাজিক মর্যাদা বিবেচনা করেই প্রথম দিন থেকেই তাকে সেরকম মানসম্পন্ন জায়গায় রাখা হয়েছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ২০ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ৭টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টিকারযুক্ত গাড়ি ছাড়া অন্য কোনো গাড়ি শহীদ মিনার এলাকায় প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। শহীদ মিনার এলাকায় প্রবেশ ও বের হওয়ার পথে প্রয়োজনীয় সংখ্যক সিসি ক্যামেরা, নাইট ভিশন ক্যামেরা ও আর্চওয়ে স্থাপন করা হবে। ২০ ফেব্রুয়ারি রাত থেকে শহীদ মিনার এলাকায় কোনো ভাসমান দোকান থাকবে না। শহীদ মিনার এলাকায় কোনো বিজ্ঞাপন ও পোস্টার টাঙানো যাবে না।

মন্ত্রী জানান, একুশে ফেব্রুয়ারি ভিড় এড়াতে যাতায়াতের রোডম্যাপ তথ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রচার করা হবে। শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনে সারা দেশে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হবে। শহীদ মিনার এলাকায় ২৫০ জন র‌্যাব সদস্যসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সবসময় প্রস্তুত থাকবেন। মন্ত্রী বলেন, গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যাহত আছে। কোনো নাশকতার পরিকল্পনা কেউ করতে পারবে না। সেভাবেই আমরা সিকিউরিটি প্রোগ্রামটা নিয়েছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মহোদয় বলেছেন আমাদের কীভাবে সহযোগিতা করবেন, নিয়ন্ত্রণ করবেন তাও আমাদের জানিয়েছেন।

এ সময় সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনী হত্যাকাণ্ডের রহস্য শিগগিরই উদ্ঘাটনের ইঙ্গিত দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘হাইকোর্টের দিকনির্দেশনায় র‌্যাব এ বিষয়ে কাজ করছে। আমরা মনে করি তারা (র‌্যাব) শিগগির আমাদেরকে আলোকিত করতে পারবেন।’ সাগর-রুনী হত্যাকাণ্ডের খুনের রহস্য জানতে আর কতদিন অপেক্ষা করতে হবে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, শিগগির হবে। এটা অনেক কিছুই...। আপনি কি বলতে পারেন, আগামীকাল আপনি বের হতে পারবেন?’ এতদিনেও হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটন করতে না পারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যর্থতা কিনা, জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো ব্যর্থতা নেই।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter