পশ্চিমবঙ্গে মোদি

ভোটের প্রচারে বিদেশিদের ভাড়া করছেন দিদি

প্রধানমন্ত্রী চাওয়ালা আর অর্থমন্ত্রী হলেন কেটলি : মমতা

  যুগান্তর ডেস্ক ২১ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মোদি,

ভোটের প্রচারে শুরু থেকেই একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি তোপ দাগা অব্যাহত রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গ মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। শনিবার পশ্চিমবঙ্গের বালুরঘাটে জনসভায় ভাষণ দিচ্ছিলেন মোদি। এদিন মমতাকে টার্গেট করে মোদি বলেন, ভোটের প্রচারে বিদেশিদের ভাড়া করে আনছেন মমতা দিদি। আগের দিন এখানেই এক জনসভায় বক্তব্য দিয়ে গেছেন মমতা। মোদি ও অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলিকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, অরুণ জেটলি হল চাওয়ালা প্রধানমন্ত্রীর কেটলি অর্থমন্ত্রী! খবর এনডিটিভির।

লোকসভার দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচন শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তৃতীয় পর্বের প্রচারণা শুরু করেছেন প্রতিদ্বন্দ্বী দলগুলো নেতারা। শনিবার পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির পক্ষে প্রচারণা চালান মোদি। চলমান লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে ভিত গাড়তে চাইছে মোদির দল বিজেপি। অন্যদিকে বামদের হটিয়ে ক্ষমতায় আসা মমতাও তার কর্তৃত্ব ধরে রাখতে সচেষ্ট। এদিন আগের মতোই মমতাকে ‘উন্নয়নের স্পিডব্রেকার দিদি’ আখ্যায়িত করে আক্রমণ শানান তিনি। আক্রমণ করতে গিয়ে বাংলাদেশি অভিনেতা ফেরদৌসের নির্বাচনী প্রচারে নামার প্রসঙ্গ তোলেন।

বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য লজ্জার যে প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা মানুষ তৃণমূলের জন্য প্রচার চালাচ্ছে। সংখ্যালঘু ভোটারদের টানতে এই কৌশল নিয়েছে তারা।’ মোদি আরও বলেন, ‘চৌকিদার এবার নির্বাচনের পর সবকিছুর হিসাব নেবে। হিসাব নেবে এই বাংলায় যে অত্যাচার করেছে তারও। তিনি বলেন, এবার বেআইনি অনুপ্রবেশকারীদের হিসাব দিন দিদি।’

কলকাতার বাংলা চলচ্চিত্রের একজন অভিনেতা ফেরদৌস। সম্প্রতি তিনি সেখানে ক্ষমতাসীন তৃণমূলের এক প্রার্থীর পক্ষে প্রচারে নেমে ব্যাপক সমালোচনায় পড়েন। ওই ঘটনার পর ক্ষমতাসীন বিজেপির নালিশে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ফেরদৌসের ভিসা বাতিল করে তাকে দেশ ছাড়ার নির্দেশ দেয়। দেশে ফিরে এসে ফেরদৌস এ ঘটনার জন্য ভুল স্বীকার করে ইতোমধ্যে সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।

তা সত্ত্বেও মমতাকে এ নিয়ে সমালোচনা করতে ছাড়েননি মোদি। এদিনও মমতার শাসনকে তিনি ‘হুমকি, লুটতরাজ ও দুর্নীতির শাসন’ বলে আখ্যায়িত করেন। মোদি আশা করছেন, এবার পশ্চিমবঙ্গের মানুষ মমতাকে হটাতে বিজেপির পক্ষেই রায় দেবে। ছেড়ে কথা বলছেন না মমতাও। মোদিকে তিনি বলছেন ‘এক্সপায়ারি বাবু’। এবার তাকে ‘ন্যাশনাল বিদায় সার্টিফিকেট’ দেয়া হবে বলেও জানিয়ে রেখেছেন।

শুক্রবার বালুরঘাটের জনসভায় মমতা বলেন, অরুণ জেটলি বলেছেন, বিজেপি নাকি বাংলা আর উড়িষ্যায় এবারের ভোটে এমন ফল করবে যে, সবাই নাকি চমকে যাবে! বড় বড় কথার আর শেষ নেই ওদের! আমি বলছি, বাংলা থেকে একটা বড় রসগোল্লা আর বড় রাজভোগ নিয়ে বিজেপি সবাইকে চমকে দেবে! তিনি আরও বলেন, অরুণ জেটলি হল চাওয়ালা প্রধানমন্ত্রীর কেটলি অর্থমন্ত্রী! কী করেছেন অরুণ জেটলি গত পাঁচ বছরে বাংলার জন্য? বাংলার জন্য কী করেছে এই বিজেপি সরকার? লোকে কেন ওদের ভোট দিতে যাবে?

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×