তৃণমূলের দুর্গ পশ্চিমবঙ্গে উত্থান বিজেপির

  যুগান্তর ডেস্ক ২৪ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তৃণমূলের দুর্গ পশ্চিমবঙ্গে উত্থান বিজেপির

পোস্টাল ব্যালট গোনা শুরু হতেই আভাস পাওয়া যায় বাংলায় মিলে যেতে পারে বুথফেরত সমীক্ষার দেয়া পূর্বাভাস। এরপর থেকে গণনা যত এগোতে থাকে, ততই স্পষ্ট হতে থাকে বিজেপির বিরাট উত্থানের ইঙ্গিত।

বেশ কয়েক রাউন্ডের ভোট গণনা শেষে তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপির কড়া টক্করের ছবি উঠে আসে রাজ্যের প্রায় সব প্রান্ত থেকে। খবর আনন্দবাজারের।

শতাংশের বিচারে ভোটপ্রাপ্তির নিরিখে জোর চমক দিয়েছে বিজেপি। ভোটপ্রাপ্তির হার ৩৯ শতাংশের আশেপাশে। তৃণমূলের ভোটপ্রাপ্তির হার অবশ্য বেশি, ৪৫ শতাংশের কাছাকাছি। তৃণমূলের ভোটপ্রাপ্তির এই হার বেশ কিছুটা মিলছে ২০০৯ সালের নির্বাচনের সঙ্গে। সে নির্বাচনে বামদের বিপর্যস্ত করে তৃণমূল ইঙ্গিত দিয়েছিল বাংলার ক্ষমতার অলিন্দে পরিবর্তন আসন্ন। তৃণমূলের ভোটপ্রাপ্তির হার ছিল ৩১.১৮ শতাংশ। তবে সেবার রাজ্যের ২৮টি আসনে তৃণমূল লড়েছিল। বাকি ১৪টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল তৃণমূলের তৎকালীন জোটসঙ্গী কংগ্রেস এবং কংগ্রেস সেবার পেয়েছিল ১৩.৪৫ শতাংশ ভোট। আর বাংলার তদানীন্তন শাসক দল বাম ফ্রন্টের প্রাপ্ত ভোটের হার সেবার ছিল ৪৩.৩০ শতাংশ। অর্থাৎ এবার তৃণমূল যে রকম ভোট পেতে পারে বলে ইঙ্গিত মিলছে তার কাছাকাছি।

উত্তরবঙ্গে দার্জিলিং, আলিপুরদুয়ার ও উত্তর মালদহে এগিয়ে বিজেপি। দক্ষিণ মালদহে চমক দিয়ে বেশ কয়েকবার কংগ্রেসের আবু হাসেম খান চৌধুরীকে পেছনে ফেলেছেন বিজেপির শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী। দক্ষিণবঙ্গে তৃণমূল অপেক্ষাকৃত স্বস্তিতে। জঙ্গিপুরে তৃণমূলের প্রার্থী খলিলুর রহমান ভালো করেছেন।

নদিয়া জেলার দুই আসনের মধ্যে একটিতে এগিয়ে বিজেপি, একটিতে তৃণমূল। বীরভূমের দুই আসনেই তৃণমূল এগিয়ে কিন্তু ব্যবধান খুব বেশি নয়। পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোলে বিজেপির বাবুল সুপ্রিয় ক্রমশ ব্যবধান বাড়িয়েছেন তৃণমূলের মুনমুন সেনের সঙ্গে। বর্ধমান-দুর্গাপুর আসনেও বিজেপির এসএস অহলুওয়ালিয়া এগিয়ে গেছেন তৃণমূলের মমতাজ সংঘমিতাকে পেছনে ফেলে।

মমতা ব্যানার্জির খাস তালুক দক্ষিণ কলকাতায় প্রথম কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে গেছেন তৃণমূলের মালা রায়। কিন্তু পাশের কেন্দ্র তথা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী ক্ষেত্র ডায়মন্ড হারবারে সকালের দিকে লড়াইয়ের ইঙ্গিত মেলে। গণনায় বেশ কয়েকবার পিছিয়েও পড়তে দেখা গেছে অভিষেককে।

উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁয় একনাগাড়েই এগিয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে বিজেপির শান্তনু ঠাকুরকে। ব্যারাকপুরে অর্জুন সিংহের সঙ্গে কড়া টক্কর দীনেশ ত্রিবেদীর। বসিরহাট এবং দমদমে অল্প ব্যবধানে এগিয়ে থাকছেন তৃণমূলের নুসরাত জাহান এবং সৌগত রায়।

রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলেও গেরুয়া ঝড়ের ইঙ্গিত মিলছে। বাঁকুড়ায় পিছিয়ে রয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। এগিয়ে বিজেপির সুভাষ সরকার। বিষ্ণুপুরে এগিয়ে বিজেপির সৌমিত্র খান। পুরুলিয়ায় এগিয়ে বিজেপির জ্যোতির্ময় মাহাত, ঝাড়গ্রামে এগিয়ে বিজেপির কুনার হেমব্রম এবং মেদিনীপুরে এগিয়ে রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

বেশ কয়েক রাউন্ডের গণনা শেষে সবচেয়ে সংকটে বামেরা। এ রাজ্যের দুই বিদায়ী বাম সংসদ মহম্মদ সেলিম (রায়গঞ্জ) এবং বদরুদ্দোজা খান (মুর্শিদাবাদ) লড়াইয়ে থাকতে পারার ইঙ্গিত দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। যাদবপুরে যে বাম প্রার্থী লড়াই দিতে পারেন বলে মনে করা হয়েছিল, সেই বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যও তৃতীয় স্থানে রয়েছেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×