উইলিয়ামসনের শতকে শীর্ষে নিউজিল্যান্ড

  স্পোর্টস ডেস্ক ২০ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

দুই ফিফটিতে ২৪১ দক্ষিণ আফ্রিকা
দুই ফিফটিতে ২৪১ দক্ষিণ আফ্রিকা। ছবি-সংগৃহীত

সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে জয়ের কোনো বিকল্প নেই। এমন বাঁচা-মরার ম্যাচেও ব্যাটিংয়ে প্রত্যাশিত ঝড় তুলতে পারল না দক্ষিণ আফ্রিকা। বুধবার বার্মিংহামের এজবাস্টনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে হাশিম আমলা (৫৫) ও রেসি ভ্যান ডার ডুসেনের (৬৭*) ফিফটিতে ছয় উইকেটে ২৪১ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

সকালের বৃষ্টিতে আউটফিল্ড ভেজা থাকায় নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা পর খেলা শুরু হয়। এতে ম্যাচের দৈর্ঘ্য নেমে আসে ৪৯ ওভারে। ব্যাটিং-দুরূহ উইকেটে ২৪১ রানের পুঁজি নিয়ে যথাসাধ্য লড়াই করলেও সেমির স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে পারল না দক্ষিণ আফ্রিকা।

অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে প্রোটিয়াদের চার উইকেটে হারিয়ে পাঁচ ম্যাচে নয় পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে নিউজিল্যান্ড। ৮০ রানের মধ্যে চার উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচ দারুণ জমিয়ে তুলেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু ঠাণ্ডা মাথায় সব চাপ সামলে ম্যাচ বের করে নেন উইলিয়ামসন।

আট রানের ব্যবধানে মার্টিন গাপটিল (৩৫), রস টেলর ও টম লাথামের বিদায়ের পর জিমি নিশামকে (২৩) নিয়ে প্রথম প্রতিরোধ গড়েন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক। নিশামের বিদায়ের পর ৪৭ বলে ৬০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে উইলিয়ামসনকে দারুণ সঙ্গ দেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম।

৪৮তম ওভারে গ্র্যান্ডহোম ফিরে যাওয়ার পর মিচেল স্যান্টনারকে নিয়ে তিন বল বাকি থাকতেই দলকে জয়ের ঠিকানায় পৌঁছে দেন উইলিয়ামসন। নয় চার ও এক ছক্কায় ১৩৮ বলে ১০৬ রানে অপরাজিত থাকেন কিউই দলপতি। ওয়ানডেতে এটি তার ১২তম সেঞ্চুরি।

দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে ক্রিস মরিস ৪৯ রানে নেন তিন উইকেট। এই হারে ছয় ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে লিগ পর্ব থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেল প্রোটিয়াদের। এর আগে পেসসহায়ক কন্ডিশনে নিউজিল্যান্ডের পেসারদের দেখেশুনে সামলাতে গিয়ে শুরুতে অতিরিক্ত সাবধানী ব্যাটিং করেছে প্রোটিয়ারা।

টপঅর্ডারের ঘুমপাড়ানি ব্যাটিংয়ের পর শেষদিকে একটু চালিয়ে খেলে দলকে আড়াইশ’ রানের কাছাকাছি নিয়ে যান রেসি ভ্যান ডার ডুসেন। ৬৪ বলে ৬৭ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। দলকে লড়াই করার মতো পুঁজি এনে দিতে ডুসেন ছাড়া রানের গতি বাড়ানোর চেষ্টা ছিল শুধু ডেভিড মিলারের।

৩৭ বলে ৩৬ রান করেন মিলার। দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসে দুই ফিফটির প্রথমটি ওপেনার হাশিম আমলার। ঘুমপাড়ানি ব্যাটিংয়ে ৮২ বলে ৫৫ রান করা আমলা ফিফটির পথে দক্ষিণ আফ্রিকার মাত্র চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে ছুঁয়েছেন ওয়ানডেতে আট হাজার রানের মাইলফলক।

এই মাইলফলক ছুঁতে আমলার লাগল মাত্র ১৭৬ ইনিংস। দ্রুততম আট হাজার রানের রেকর্ডটি যার, সেই বিরাট কোহলির লেগেছিল ১৭৫ ইনিংস।

দ্বিতীয় ওভারেই ট্রেন্ট বোল্টের ছোবলে কুইন্টন ডি ককের বিদায়ের পর একপ্রান্ত আগলে রাখেন আমলা। দ্বিতীয় উইকেটে অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিকে (২৩) নিয়ে গড়েন ৫০ রানের জুটি। আইডেন মার্করামের সঙ্গে তার পরের জুটিতে আসে ৫২ রান। আমলার বিদায়ের পর মার্করামও (৩৮) বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। এরপর ডুসেন ও মিলারের ব্যাটে একটু গতি পায় দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস। ৫৯ রানে তিন উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডের সফলতম বোলার লকি ফার্গুসন। এছাড়া বোল্ট, গ্র্যান্ডহোম ও স্যান্টনারের ঝুলিতে গেছে একটি করে উইকেট।

দক্ষিণ আফ্রিকা ২৪১/৬, ৪৯ ওভারে

নিউজিল্যান্ড ২৪৫/৬, ৪৮.৩ ওভারে

ফল : নিউজিল্যান্ড ৪ উইকেটে জয়ী

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×