আরও দু’জন গ্রেফতার, একজন ৩ দিনের রিমান্ডে

ভিডিও দেখে রাতুল গ্রেফতার

প্রকাশ : ১২ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  বরগুনা, দক্ষিণ ও তালতলী প্রতিনিধি

বরগুনার চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলার আসামি রাব্বি আকন ও রাতুল শিকদার জয়কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে ৬ নম্বর আসামি রাব্বিকে গ্রেফতার করা হয়।

হত্যাকাণ্ডের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত রাব্বি ঘটনাস্থলে ছিলেন। এর আগে ভিডিও ফুটেজ দেখে রাতুলকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে বরগুনার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন জানান, ঘটনার পর থেকে জড়িতদের গ্রেফতারে সতর্কতার সঙ্গে চেষ্টা চালিয়ে আসছে পুলিশ।

রাত পৌনে ৯টার দিকে রাব্বিকে গ্রেফতার করা হয়। তদন্তের স্বার্থে গ্রেফতারের স্থান উল্লেখ করা হয়নি। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত এজাহারভুক্ত সাতজন ও সন্দেহভাজন সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তাদের মধ্যে সাতজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। কয়েকজন বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে রয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বরগুনা সদর থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, তদন্তের স্বার্থে রাতুলকে কখন ও কোথা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে তা উল্লেখ করা হয়নি।

তিনি আরও জানান, বিকালে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মাদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে রাতুলকে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এ নিয়ে এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে।

এজাহারভুক্ত তিনজনসহ ছয়জন হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। চারজনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে বরগুনা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান হোসেন যুগান্তরকে বলেন, আসামিদের ধরতে বরগুনাসহ সারা দেশের সম্ভাব্য স্থানে আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।

শিগগিরই বাকি আসামিদের গ্রেফতার করা হবে। ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে রিফাতকে হত্যা করে।