১০৮ দিনে ঝরল ১০১০ প্রাণ

ফেনীতে বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিহত ৮

ফরিদপুর কিশোরগঞ্জে ৮ জনসহ আরও ১৭ প্রাণহানি

  যুগান্তর ডেস্ক ১৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ফেনীতে বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিহত ৮

ফেনীতে পিকনিকের বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ৮ জনসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় ২৫ জন নিহত হয়েছেন।

এছাড়া ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ৩ ও সদরপুরে ১ জন, কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে ৩ ও ভৈরবে ১ জন, নাটোরের বড়াইগ্রামে যুবক, সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ ও ময়মনসিংহের ফুলপুরে ২ জন করে, টাঙ্গাইলের সখীপুরে কলেজছাত্র, বরিশালের বাবুগঞ্জ ও গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ২ মোটরসাইকেল আরোহী ও ভোলায় শিশুর প্রাণ গেছে।

এ নিয়ে ১০৮ দিনে প্রাণ গেল ১০১০ জনের। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ফেনী : ফেনীর লেমুয়ায় প্রাইম পরিবহনের একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছে ধাক্কা লেগে ৮ জন নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন- ঢাকার বিক্রমপুরের সুজন মিয়া (৪০) ও অপু (৩৫), ঢাকার মিরপুরের ইকবাল (৩৮) ও শামীম (৩০), মাদারীপুরের রিপন (৩০), নারায়ণগঞ্জের মুন্না খান (৩০) এবং ফেনীর ছাগলনাইয়ার রাধানগর এলাকার শাহাদাত হোসেন (২৮)।

নিহত ১ জনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। ঢাকা থেকে কক্সবাজার যাওয়ার পথে বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ৩০ জন।

সাতজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। মহিপাল হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই কাওসার জানান, হতাহতরা নারায়ণগঞ্জ থেকে কক্সবাজারে পিকনিকের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন। ঘটনাস্থলেই ছয়জন ও হাসপাতালে নিলে ১ জনের মৃত্যু হয়।

ফরিদপুর ও ভাঙ্গা : ভাঙ্গার নওপাড়ায় বৃহস্পতিবার সকালে যাত্রীবাহী তুহিন পরিবহন ও রাজু এন্টারপ্রাইজ নামের দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৩ জন নিহত হন।

এতে দুই বাসের অন্তত ৫০ জন যাত্রী আহত হন। গুরুতর আহত প্রায় ২০ জনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে অজ্ঞাত এক বৃদ্ধ (৭০) মারা যান। নিহত অপর দু’জন হলেন- রাজু এন্টারপ্রাইজের ড্রাইভার নগরকান্দার কুঞ্জিনগর গ্রামের মো. রওশন ফকির (৩৮) ও বাসযাত্রী রাজবাড়ী জেলা সদরের নবগ্রামের বাসিন্দা মীরারানী কুণ্ডু (৬৫)। এছাড়া সদরপুরের চর কুমারিয়া এলাকায় মোটরসাইকেলচাপায় মো. সত্তার মোল্লা (৩৪) নামে এক পথচারী নিহত হয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ ও ভৈরব : কটিয়াদী উপজেলায় ট্রাক্টর ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতরা হলেন- অটোরিকশাচালক তোফাজ্জল (৩০), যাত্রী কাদির (৩৫) ও ওমর (৪০)।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে ভৈরব-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের আচমিতা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। অপরদিকে ভৈরবের অদূরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বাস খাদে পড়ে হোসনে আরা বেগম (৫৮) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি নরসিংদীর রায়পুরার পাহাড়কান্দি গ্রামের সৈয়দ আলী খন্দকারের স্ত্রী।

বড়াইগ্রাম (নাটোর) : বড়াইগ্রামে ঈদের ছুটিতে বান্ধবীকে নিয়ে ঘুরতে গিয়ে গাড়িচাপায় নিহত কলেজছাত্রের নাম আরিফুল ইসলাম (১৯)। বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে আগ্রাণ সূতির এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আরিফ উপজেলার আহম্মেদপুর নওপাড়া গ্রামের আবদুল মালেকের একমাত্র ছেলে এবং কালিকাপুর কৃষি ও কারিগরি কলেজের ছাত্র।

ভোলা (দক্ষিণ) : ভোলায় মাহেন্দ্রচাপায় নিহত শিশু মো. পারভেজ (৮) সদর উপজেলার ইলিশা ইউনিয়নের সোনাডগী গ্রামের মো. শাহাবুদ্দিনের ছেলে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ইলিশা ব্যারিস্টার কাচারী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পারভেজ রাস্তার পাশে দাঁড়িয়েছিল।

কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) : কাশিয়ানীর গোপালপুর এলাকায় বৃহস্পতিবার প্রাইভেট কারের ধাক্কায় নিহত মোটরসাইকেল আরোহীর নাম তুহিন মোল্লা (৩০)। এতে গুরুতর আহত হয়েছেন তার স্ত্রী সাথী বেগম। তুহিন জেলা সদর উপজেলার লতিফপুর ইউনিয়নের ঘোষেরচর উত্তরপাড়া গ্রামের আশরাফ মোল্লার ছেলে।

সখীপুর (টাঙ্গাইল) : সখীপুরে পিকআপের চাপায় নিহত কলেজছাত্রের নাম ইসতিয়াক আহমেদ (১৭)। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সখীপুর-গোড়াই সড়কের বোয়ালী উত্তরপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ইশতিয়াক আহমেদ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের শাকিল আজাদের ছেলে। তিনি সরকারি মুজিব কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

সিরাজগঞ্জ : কোনাবাড়ীতে তিন বাসের সংঘর্ষে নিহত দু’জনের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। দুপুর আড়াইটার দিকে সড়ক বিভাজকের ওপর একটি বাস উঠে যায়। এ সময় পেছনে থাকা আরও দুটি বাস এসে ওই বাসটির সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই তারা নিহত হন।

বরিশাল ও বাবুগঞ্জ : বাবুগঞ্জে বাসচাপায় নিহত মোটরসাইকেল আরোহীর পরিচয় মেলেনি। বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার নতুনহাট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) : ফুলপুর উপজেলার ইমাদপুর এলাকায় বৃহস্পতিবার দুপুরে বাসের ধাক্কায় নিহতরা হল- শিশু জায়েদ হোসেন (৬) ও অটোরিকশার চালক সিরাজুল ইসলাম। দুর্ঘটনায় এক পরিবারের তিনজনসহ ছয়জন আহত হয়েছেন। জায়েদ শেরপুর জেলার কালিবাড়ী চেংগুরিয়া গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×