ফুটপাতে বেপরোয়া বাস: পা হারাল হতভাগ্য নারী

বাস জব্দ, পালিয়েছে চালক-হেলপার

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৮ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ফুটপাতে বেপরোয়া বাস: পা হারাল হতভাগ্য নারী
রাজধানীর বাংলামোটর

রাজধানীর সড়কে আবারও বেপরোয়া বাস। রাজধানীর বাংলামোটরে মঙ্গলবার ফুটপাতে দাঁড়ানো এক নারীর বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়েছে ট্রাস্ট ট্রান্সপোর্ট সার্ভিসের একটি বেপরোয়া গতির বাসের চাপায়।

দুর্ঘটনার শিকার ওই নারীর নাম কৃষ্ণা রানী রায় (৫২)। তিনি বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) হিসাবরক্ষণ বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক। পুলিশ বাসটি জব্দ করলেও পালিয়েছে চালক ও হেলপার।

আহত কৃষ্ণা রায়কে প্রথমে হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে জাতীয় অর্থোপেডিক (পঙ্গু) হাসপাতালে পাঠান। তারপর সেখান থেকে তাকে নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এখন তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন। কৃষ্ণা রানী রায়ের স্বামীর নাম রাধে সেন। এক মেয়ে ও এক ছেলে নিয়ে তারা রাজধানীর টিকাটুলী এলাকায় বসবাস করেন।

এর আগে গত বছরের ৩ এপ্রিল রাজধানীর কারওয়ান বাজারে হাত হারান সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীব হোসেন। পরে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। একই বছর বাসচাপায় পা হারান রোজিনা নামে এক গৃহকর্মী। পরে তিনিও চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি বলেন, দুপুর আড়াইটার দিকে কৃষ্ণা রায় বাংলামোটরে রাস্তার পূর্বপাশে ফুটপাতে দাঁড়িয়েছিলেন। কারওয়ান বাজারের দিক থেকে আসা একটি বেপরোয়া গতির বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৯১৪৫) ফুটপাতে উঠে কৃষ্ণা রায়কে ধাক্কা দেয়। এ সময় তিনি পড়ে গেলে বাসের একটি চাকা তার বাম পায়ের ওপর দিয়ে চলে যায়। এতে তার বাম পা হাঁটুর নিচ থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে শুধু চামড়ার সঙ্গে ঝুলে ছিল।

কামাল হোসেন নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী যুগান্তরকে বলেন, দু’জন লোক ওই নারীকে গুরুতর অবস্থায় হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে নিয়ে যান। আরেক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, দুর্ঘটনার পর ওই নারী চিৎকার করে বলছিলেন, আমার পা ভেঙে গেছে। আমাকে বাঁচাও, বাঁচাও। এরপর দু’জন ছাত্র এগিয়ে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

বিআইডব্লিউটিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে অফিসের কাজে পুরান ঢাকায় যাওয়ার জন্য বাংলামোটরে বিআইডব্লিটিসির প্রধান কার্যালয় থেকে বের হন কৃষ্ণা রানী রায়। সড়ক পার হয়ে বাংলামোটরের পূর্বপাশে ফুটপাতে দাঁড়িয়েছিলেন।

এ সময় কারওয়ান বাজারের দিক থেকে আসা বাসটি ফুটপাতে উঠে কৃষ্ণা রায়কে চাপা দেয়। তার বাম পায়ে প্রচণ্ড আঘাত লাগে। পঙ্গু হাসপাতালে নেয়ার পর বিকালে কৃষ্ণা রায়ের পায়ে অস্ত্রোপচার হয়। এরপর তাকে নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে নেয়া হয়। তার অবস্থা গুরুতর।

হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স চালক সৈয়দ পনিরুজ্জামান বলেন, প্রথমে হলি ফ্যামিলিতে আনা হলে আহত ওই নারীর মুমূর্ষু অবস্থা দেখে চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে করে দ্রুত পঙ্গু হাসপাতালে পাঠান। আমি নিজেই তাকে পঙ্গুতে নিয়ে যাই।

ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগের (দক্ষিণ) অতিরিক্ত উপকমিশনার মেহেদী হাসান বলেন, বাসটি মিরপুর ডিওএইচএস থেকে শাহবাগ রুটে চলাচল করে। হাতিরঝিল থানার ওসি আবদুর রশিদ যুগান্তরকে বলেন, বাসটি জব্দ করা হয়েছে।

এর চালক ও হেলপারকে আটকের চেষ্টা চলছে। এদিকে ট্রাস্ট পরিবহনের লাইন ইনচার্জ আকতার হোসেন সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, গাড়ির ব্রেক ফেল ছিল। তাই এ ঘটনা ঘটছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×