হাইকোর্টের রুল জারি

এজলাসে জাতির জনকের প্রতিকৃতি প্রদর্শনের নির্দেশ

  যুগান্তর রিপোর্ট ৩০ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এজলাসে জাতির জনকের প্রতিকৃতি প্রদর্শনের নির্দেশ

দেশের সব আদালত কক্ষে দু’মাসের মধ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে একটি রুলও জারি করেছেন আদালত। আদালত কক্ষে জাতির জনকের প্রতিকৃতি সংরক্ষণ ও প্রদর্শনে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন ‘বেআইনি এবং আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত’ ঘোষণা করা হবে না, তা-ও জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে।

একটি রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের বেঞ্চ বৃহস্পতিবার রুলসহ এ আদেশ দেন।

আইন সচিব, গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব, অর্থ সচিব, সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল এবং হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রারকে এর জবাব দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে আদালত কক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টানানোর নির্দেশনা বাস্তবায়নের অগ্রগতিও দুই মাসের মধ্যে জানাতে বলেছেন হাইকোর্ট।

সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী সুবীর নন্দী দাস গত ২১ আগস্ট এ রিট করেন। বৃহস্পতিবার তিনিই আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

আদেশের পর সুবীর নন্দী সাংবাদিকদের বলেন, ভারত, পাকিস্তান, আমেরিকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের আদালতে তাদের জাতির জনক বা জাতীয় বীরদের ছবি টাঙানোর নজির আছে। আমাদের সংবিধানে জাতির জনকের প্রতিকৃতি সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের বাধ্যবাধকতা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। তা চ্যালেঞ্জ করেই আমরা রিট করেছিলাম।

সংবিধানের ৪(ক) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে- জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার ও প্রধান বিচারপতির কার্যালয় এবং সকল সরকারি ও আধা-সরকারি অফিস, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, সংবিধিবদ্ধ সরকারি কর্তৃপক্ষের প্রধান ও শাখা কার্যালয়, সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশের দূতাবাস ও মিশনসমূহে সংরক্ষণ ও প্রদর্শন করিতে হইবে। ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এবিএম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার বলেন, জাতির পিতার প্রতিকৃতি সংরক্ষণ ও প্রদর্শন আইন অনুযায়ী শুধু ধর্মীয় উপাসনালয় ছাড়া সব প্রতিষ্ঠানে জাতির জনকের প্রতিকৃতি প্রদর্শন ও সংরক্ষণের বাধ্যবাধকতা আছে। আইন প্রণেতারা সেখানে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ছাড়া কোনো জায়গা বাদ দেননি। তাই আদালত কক্ষেও প্রদর্শনের বাধ্যবাধকতা আছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×