সৌদি আরবে সেনাপ্রধান বরখাস্ত

রাতারাতি রদবদল প্রশাসনে

  যুগান্তর ডেস্ক ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সৌদি আরবের প্রতিরক্ষা বিভাগ ও সরকারের মন্ত্রিসভায় রাতারাতি বড় ধরনের রদবদল আনা হয়েছে। রাজকীয় ডিক্রি জারি করে দেশটির সেনাপ্রধানকে বরখাস্ত করেছেন দেশটির বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ। ধারাবাহিক আরও কয়েকটি ডিক্রির মাধ্যমে সেনাপ্রধানের সঙ্গে সঙ্গে কয়েকজন মন্ত্রী, সেনা ও বিমান বাহিনীর আরও কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তাকেও সরিয়ে দিয়েছেন তিনি। সৌদি আরবের শীর্ষ সামরিক পদগুলোর রদবদলকে আন্তর্জাতিকভাবে নতুন লক্ষ্য অর্জনের কৌশল হিসেবে দেখছেন বিশ্লেষকরা। তারা মনে করছেন, এ রদবদল বাদশাহপুত্র মোহাম্মদ বিন সালমানের পশ্চিমা উদারবাদী সংস্কারে ধাবিত হওয়ার প্রচেষ্টারই অংশবিশেষ। স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন পদে পছন্দের মানুষ নিয়োগ দেয়াকে কেউ কেউ আবার শুধু যুবরাজের ক্ষমতা সুসংহত করার প্রচেষ্টা হিসেবেই দেখছেন। খবর আলজাজিরা ও বিবিসির।

বিবিসি জানায়, সোমবার গভীর রাতে কয়েকটি আদেশ জারির মাধ্যমে সেনাপ্রধানসহ শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের বরখাস্ত করেন বাদশাহ সালমান। সৌদির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সৌদি নিউজ এজেন্সিতে এসব খবর জানানো হলেও সামরিক কর্মকর্তাদের বরখাস্ত করার কোনো কারণ উল্লেখ করা হয়নি। সৌদি নিউজ এজেন্সির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, সৌদি সেনাপ্রধান আবদুল রহমান বিন সালেহ আল বানিয়ানকে সরিয়ে ফার্স্ট লেফটেন্যান্ট জেনারেল ফায়াদ আল রুয়াইলিকে সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিমানবাহিনী ও স্থলবাহিনীর প্রধানের পদেও পরিবর্তন আনা হয়েছে।

মন্ত্রিসভার ক্ষেত্রে শ্রম ও সমাজ উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে তামাদুর বিনতে ইউসুফ আল রামাহ নামের এক নারীকে উপমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। রাজতান্ত্রিক দেশটির কোনো শীর্ষ পদে কোনো নারীর নিয়োগ খুবই বিরল ঘটনা। দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের আসির প্রদেশে ডেপুটি গভর্নর হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে প্রিন্স তুর্কি বিন তালালকে। প্রিন্স তুর্কি বিন তালালের ভাই বিলিয়নিয়ার প্রিন্স আলওয়ালেদ বিন তালালকে কিছুদিন আগে আরও কয়েকজন প্রিন্সের সঙ্গে বন্দি করা হয়। ২ মাস পর মুক্ত হন তিনি।

সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইয়েমেনে প্রায় ৩ বছর ধরে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি সেখানে কিছুটা বেকায়দায় পড়েছে সৌদি জোট। এ পরিস্থিতিতে সেনাপ্রধানসহ শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নিল সৌদি আরব। মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ এ দেশে সাম্প্রতিক সময়ে যেসব বড় পরিবর্তন আনা হচ্ছে, তার পেছনে বাদশাহ সালমানের ছেলে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান রয়েছেন বলে ধারণা করা হয়। সৌদি যুবরাজ দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রীরও দায়িত্বে রয়েছেন। গত বছর যুবরাজের নেতৃত্বেই সৌদি আরবে ‘দুর্নীতিবিরোধী অভিযান’ চালানো হয়। ওই অভিযানে দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে বেশ কয়েকজন মন্ত্রী, প্রিন্স আর ধনকুবেরকে রিয়াদের একটি হোটেলে আটকে রাখা হয়। তাদের কাউকে কাউকে পরে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter