ধর্ম নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য: ভোলায় ঐক্য পরিষদের আলটিমেটাম

‘সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের’ যৌক্তিক ৬ দফা দাবি মেনে নেয়া হচ্ছে -ডিসি * সংঘর্ষের ঘটনায় ৪-৫ হাজার অজ্ঞাত আসামি করে মামলা * বিরূপ মন্তব্য করায় শুভসহ ৩ জনকে আসামি করে ডিজিটাল আইনে মামলা

  ভোলা, ভোলা (দক্ষিণ) ও বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঐক্য পরিষদের সংবাদ সম্মেলন
ঐক্য পরিষদের সংবাদ সম্মেলন। ছবি: যুগান্তর

ভোলায় সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ফলে সোমবারের পূর্বঘোষিত সমাবেশ স্থগিত করে ভোলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে ৬ দফা দাবি দিয়েছে ‘সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদ’। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দাবি পূরণের জন্য সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। বলেছে, দাবি পূরণ না হলে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

পরে ভোলার ডিসি বলেছেন, অনেক দাবিই মেনে নেয়া হয়েছে, যৌক্তিক বাকি দাবিগুলো মেনে নেয়া হচ্ছে। এদিকে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে ভোলা ও বোরহানউদ্দিনে বিজিবিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহল জোরদার করা হয়েছে। থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের যুবক বিপ্লব চন্দ্র শুভর ফেসবুক আইডি হ্যাক করে উদ্দেশ্যমূলকভাবে ধর্ম নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করার ঘটনায় শুভসহ তিনজনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে।

এ মামলায় তিনজনকেই গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এ ছাড়া রোববার পুলিশের ওপর হামলা ও সংঘর্ষে ঘটনায় ৪-৫ হাজার অজ্ঞাত লোককে আসামি করে বোরহানউদ্দিন থানার এসআই আবিদ হোসেন বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

দ্বীপ-জেলা ভোলার বোরহানউদ্দিনে ‘তৌহিদি জনতার’ ব্যানারে রোববারের সমাবেশ শেষে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ৪ ব্যক্তি নিহত হওয়ার পর বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস, খেলাফত আন্দোলন, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন, ইমান-আকিদা কমিটিসহ আরও কয়েকটি সংগঠন মিলে এ ঐক্য পরিষদ গঠন করে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় ভোলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে ৬ দফা দাবি তুলে ধরেন পরিষদ নেতা সংগঠনের আহ্বায়ক মাওলানা বশিরউদ্দিন, সদস্য সচিব মাওলা তাজউদ্দিন ফারুকী, যুগ্ম আহ্বায়ক মাওলানা মিজানুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন মাওলানা কামাল উদ্দিন, মাওলানা আতাউর রহমান, মাওলানা মুসলিম উদ্দিনসহ ২০ জন।

এ সময় লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান যুগ্ম আহ্বায়ক মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ পরিবেশের জন্য জেলা প্রশাসকের সঙ্গে আলাপ করে স্কুল মাঠের সমাবেশ স্থগিত করেছি। মঞ্চও বানানো হয়েছিল। এতে বলা হয়েছে, ইসলাম নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের জন্য যদি দেশে কঠিন শাস্তির আইন থাকত, তাহলে আন্দোলন হতো না।

সংর্ঘষ ও হতাহতের জন্য আমরা প্রশাসনকেই দায়ী করছি। আমরা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করে ৬ দফা তুলে ধরছি- বোরহানউদ্দিনের ওসি ও পুলিশ সুপার প্রত্যাহার, ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি, আহতদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা, নিহত ব্যক্তিদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা করা ও অভিযুক্ত বিপ্লব চন্দ্র শুভর সঙ্গে জড়িত ও তাদের ফাঁসি দেয়া এবং গ্রেফতার ব্যক্তিদের মুক্তি দেয়া।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সংগঠনের সদস্য সচিব জানান, বোরহানউদ্দিনে রোববারের সমাবেশ শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হওয়ার অনেক পরে কিছু লোক বিক্ষোভ করে পুলিশের ওপর হামলা করে। ওই সময় আমরাও হামলাকারীদের প্রতিহত করার চেষ্টা করি।

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সচিবালয়ে বলেছেন, মহানবীকে (সা.) নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের মূল ঘটনা জানতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সহায়তা নেয়া হচ্ছে। আইডি হ্যাকড ও মন্তব্যের বিষয়ে জানতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সিঙ্গাপুরে যোগাযোগ করা হয়েছে। দু-চার দিনের মধ্যেই তথ্য চলে আসবে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক এ প্রসঙ্গে জানান, আন্দোলনকারীরা যে ৬ দফা ঘোষণা করা হয়েছে তার যৌক্তিক অনেক দাবিই পূরণ করা হয়েছে এবং হচ্ছে। এরই মধ্যে সংঘর্ষে নিহত ৪ জনের লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই তাদের স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। স্বজনদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে তাদের মরদেহ স্বজনদের কাছে দেয়া হয়। ৪টি মরদেহের মধ্যে মিজানুর রহমানের লাশ নেয়া হয় মনপুরায়।

বাকি ৩ জনের মধ্যে কলেজছাত্র শাহীন, মাদ্রাসাছাত্র মাহাবুব ও মাফুজ পাটওয়ারীর মরদেহ সোমবার বিকালে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। হাসপাতালের মসজিদের সামনে প্রথম দফা জানাজা হয়। সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের দাবিও ছিল ময়নাতদন্ত ছাড়া লাশ হস্তান্তর। এ ছাড়া আহতদের চিকিৎসার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। জেলা প্রশাসক জানান, বর্তমানে জেলার পরিস্থিতি শান্ত। ভোলার জন্য আরও ৪ প্লাটুন বিজিবি প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি মো. সফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেছেন, বোরহানউদ্দিনে এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা কারও কাম্য ছিল না। তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। মামলা হয়েছে। আরও তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। তদন্ত কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। ৬ দফা প্রসঙ্গে ডিআইজি বলেন, তাদের দাবির যৌক্তিক দিকগুলো প্রশাসন বিবেচনা করবে। ফেসবুক হ্যাক করার ক্ষেত্রে ফেসবুক বিশেষজ্ঞদের জানানো হয়েছে। তাদের সিদ্ধান্ত পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে এ ঘটনায় রাজনৈতিক সুবিধা নিতে বিএনপি-জামায়াত তৎপর হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সোমবার সকাল থেকেই বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজি মো. সফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসনের টহল টিম এলাকায় কাজ করছেন। এ ছাড়া জেলা স্কুল মাঠ, প্রেস ক্লাব চত্বর, বোরহানউদ্দিন উপজেলা শহর এলাকায় পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি সদস্যরা মোতায়েন রয়েছেন।

রোববার বোরহানউদ্দিনে হাসপাতালের সামনের ভাওয়াল বাড়িসহ ৮ বাড়িতে হামলা-ভাংচুরের নিন্দা জানিয়েছেন জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদ ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতারা। ওই সব বাড়ি পরিদর্শন করেছে আইন সালিশ কেন্দ্রের একটি প্রতিনিধিদল। সোমবার দুপুর পর্যন্ত ভোলা জেলা শহরের বেশিরভাগ দোকানপাট বন্ধ থাকলেও পরে স্বাভাবিক হয়ে আসে। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক বলেছেন, পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত জেলায় সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

মাদ্রাসাছাত্রের মনপুরায় দাফন : মনপুরা (ভোলা) প্রতিনিধি জানান, ভোলার বোরহানউদ্দিনে নিহত মাদ্রাসাছাত্র মিজানুর রহমানের (১৭) লাশ দাফন করা হয়। দুপুরে উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের ভূঁইয়ারহাট বাজারে হাজারো মানুষের উপস্থিতিতে জানাজা শেষে মাদ্রাসা সংলগ্ন কবরস্থানে দাফন করা হয়। মিজান মনপুরা উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের চরফৈজুদ্দিন গ্রামের ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা হারুন মিস্ত্রির বড় ছেলে।

হেফাজতের বিক্ষোভ কর্মসূচি আজ : হাটহাজারী প্রতিনিধি জানান, ভোলায় ধর্ম নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের জন্য দায়ী ব্যক্তির ফাঁসির দাবি ও পুলিশের গুলিতে নিহতের ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবিতে হেফাজতে ইসলাম মঙ্গলবার সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। হাটহাজারী বড় মাদ্রাসায় সংবাদ সম্মেলনে কর্মসূচি ঘোষণা করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়ে বাবুনগরী বলেন, আমরা মুসলমান, বাংলাদেশ ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশ। আমাদের প্রভু আল্লাহ, সংবিধান পবিত্র আল কোরআন, আমাদের নবী হজরত মুহাম্মদ (স.), আমাদের ধর্ম ইসলাম এবং আমাদের গন্তব্যস্থান বেহেশত। এসব আকিদা যারা বিশ্বাস করে তারা খাঁটি মুসলমান। ফলে মহানবীকে নিয়ে যদি কেউ কটূক্তি করেন তিনি কাফের।

মোহাম্মদপুরে বিক্ষোভ : যুগান্তর প্রতিনিধি জানান, ভোলার ঘটনার প্রতিবাদে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের টাউন হল সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন মুসল্লিরা। বেলা ১১টা থেকে টাউন হলের আল্লাহ করিম মসজিদ ও মসজিদ সংলগ্ন সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ শুরু হয়। এ সময় টাউন হল সড়কে প্রায় এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল। সৃষ্টি হয় যানজট।

এ ছাড়া ভোলার ঘটনার পর শেরপুরে ইসলামি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পুলিশের সহায়তায় সম্প্রীতি সমাবেশ হয়েছে। ভোলার বড়লেখায় ইসলামী ছাত্র মজলিসের উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে। এ ছাড়া সিলেটের গোলাপগঞ্জ, যশোরের দড়াটানা ভৈরব চত্বরে, মৌলভীবাজারে খেলাফত মজলিসের উদ্যোগে শহরে, তৌহিদি জনতার ব্যানারে নরসিংদীর স্বাধীনতা চত্বরে, তৌহিদি জনতার ব্যানারে নরসিংদীর পলাশ ও ময়মনসিংহের ত্রিশাল, নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে মাদানীনগর মাদ্রাসার সামনে, শরীয়তপুর শহরে তৌহিদি মুসলিম জনতার ব্যানারে, গফরগাঁওয়ে রেলস্টেশন সংলগ্ন স্থানে, ময়মনসিংহ ইত্তেফাকুল উলামা ঈশ্বরগঞ্জ শাখার উদ্যোগে, বরিশাল বিএম কলেজের শিক্ষার্থীদের ব্যানারে, নেত্রকোনা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সামনে, নেত্রকোনা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×