মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরতে হবে

  রাবেয়া খাতুন ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মুক্তিযুদ্ধ

১৯৭১ সালে সশস্ত্র যুদ্ধ অনিবার্য হয়ে উঠেছিল। এ দেশের মানুষ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে লড়াই করে দেশকে স্বাধীন করেছেন। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর এখন একটি প্রধান প্রশ্ন হল, আর কত পথ অতিক্রম করলে আমরা লক্ষ্যের কাছাকাছি পৌঁছতে পারব। চারপাশে এখন দেখা যায় ব্যক্তিস্বার্থ উদ্ধারের তুমুল লড়াই। এটা শুভ লক্ষণ নয়। আমাদের চারপাশে মানবিক মূল্যবোধের চর্চায় ব্যাপক অনীহার বিষয়টি পীড়াদায়ক।

সমাজে দুর্নীতি এত প্রকট আকার ধারণ করবে, অতীতে এটা ছিল অকল্পনীয়। জ্ঞানচর্চার মতো ইতিবাচক ক্ষেত্রগুলোতে ব্যাপক অগ্রগতির পরও কেন মানুষ এত লোভী হয়ে উঠছে, তা আমাদের ভাবিয়ে তোলে। কয়েক দশক আগে অনেক সীমাবদ্ধতার মাঝেও আমরা সন্তানদের যেভাবে সময় দিয়েছি, এখন অনেক বাবা-মা তাদের সন্তানদের সেভাবে সময় দেন না। এ ধারা অব্যাহত থাকলে চারপাশে বিভিন্ন সমস্যা আরও বৃদ্ধি পাবে।

সামাজিক দায়বদ্ধতার বিষয়ে আজকাল অনেকেই বেশ উদাসীন। অথচ আমাদের মাঝে একাত্তরে ঐক্যের বন্ধন কত দৃঢ় ছিল। উচ্চ নৈতিকতা ও উন্নত মূল্যবোধের চর্চার অভাবে সমাজে লোভ ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে চলেছে। এসব প্রবণতা অনেক বড় অর্জনকেও প্রশ্নবিদ্ধ করতে পারে। গত ৪৮ বছরে আমাদের অর্জনের তালিকায় অনেক কিছু যুক্ত হয়েছে। আমাদের আরও অনেক দূর যেতে হবে। তার জন্য সবার উচিত নিজেকে আরও যোগ্য করে গড়ে তোলা।

নতুন প্রজন্মকে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সর্বাগ্রে তাদের মানসম্মত শিক্ষাপ্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হবে। দেশপ্রেম ও মানবতাবোধের সর্বজনীন ধারণা- এসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা যাতে বাঙালি সংস্কৃতির মূল চেতনার সঙ্গে পরিচিত হতে পারে, তার জন্য বিশেষ পদক্ষেপ নিতে হবে।

প্রযুক্তির কল্যাণে আজকের শিশুরা আগের শিশুদের তুলনায় অনেক বেশি সুবিধা পেলেও অনেকেই এসব সুবিধার সদ্ব্যবহার করতে পারছে না। আমরা যদি মানুষের কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করি, তাহলে এসব দৃষ্টান্তে নতুন প্রজন্ম উদ্বুদ্ধ হবে এবং তারা বড় কিছু উপহার দিতে উন্মুখ হবে। দায়িত্ব পালনে যদি উদাসীনতার পরিচয় দেই, তাহলে আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের দেশ গড়ে তুলতে পারব না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশ গঠনে আমাদেরও দায়িত্ব রয়েছে। ১৯৭১ সালের দীর্ঘ ৯ মাসের স্মৃতি এবং মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস এ দেশের মানুষের সামনে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তুলে ধরার বহুমুখী পদক্ষেপ নিতে হবে। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মের সামনে দেশের মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরা না হলে তারা বিভ্রান্ত হতে পারে। মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরলে তারা বিভ্রান্ত হবে না, এটা জোর দিয়ে বলা যায়।

রাবেয়া খাতুন : সাহিত্যিক

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

 
×