এনু-রুপনের ১২১ ফ্ল্যাট ১২ প্লট ও ৫ প্রতিষ্ঠান

  সিরাজুল ইসলাম ৩০ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এনু-রুপন

ঢাকায় ১২১টি ফ্ল্যাট, ১২ প্লটে ৭২ কাঠা জমি এবং পাঁচটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানসহ বিপুল পরিমাণ সম্পদের তথ্য দিয়েছেন এনু-রুপন। তাদের এ সম্পদের মূল উৎস ক্যাসিনো-জুয়া। দুই দফায় ৭ দিনের রিমান্ডে তারা এসব তথ্য দিয়েছেন। বুধবার তাদের রিমান্ড শেষ হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার তাদের আদালতে হাজির করা হবে। পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সংশ্লিষ্ট সূত্র যুগান্তরকে এসব তথ্য জানিয়েছে।

সিআইডিকে এনু-রুপন তাদের সম্পদের যে ফিরিস্তি দিয়েছেন সে অনুযায়ী রাজধানীর সূত্রাপুরে ৩১ নম্বর বানিয়ানগরে ছয়টি ফ্ল্যাট, ওয়ারীর ১০৫ নম্বর লালমোহন সাহা স্ট্রিটে পাঁচটি ফ্ল্যাট, ১০৬ লালমোহন সাহা স্ট্রিটের ১০ তলা ভবনে ১০টি ফ্ল্যাট, একই স্ট্রিটের ১০৩ নম্বর হোল্ডিংয়ে এক কাঠার একটি প্লট, ১১৬ নম্বর হোল্ডিংয়ে ছয়টি ফ্ল্যাট, ১১২ নম্বর হোল্ডিংয়ে ছয়টি ফ্ল্যাট এবং ১২০ নম্বর হোল্ডিংয়ে এক কাঠার প্লট রয়েছে।

ওয়ারীর ৭০ নম্বর দক্ষিণ মৈসুন্দিতে সাত তলা ভবনের ১৪টি ফ্ল্যাটের মালিক তারা। গেণ্ডারিয়ার ৬৫/২ শাহ সাহেব লেনে ১০ তলা ভবনের ১৭টি ফ্ল্যাটের মালিক রুপন। একই লেনের (৭০ বা ৭১ নম্বর হোল্ডিং) ছয় তলা বাড়িতে রুপনের নামে আছে চারটি ফ্ল্যাট। ওই লেনের ৮ নম্বর হোল্ডিংয়ে একটি চার তলা বাড়িতে ১৩টি ফ্ল্যাটের মালিক এনু।

সিআইডিকে দুই ভাই জানিয়েছে, গেণ্ডারিয়ার ১ নম্বর নারিন্দা লেনের চার তলা বাড়িতে তাদের পাঁচটি ফ্ল্যাট, ১৫ নম্বর নারিন্দা লেনের ছয় তলা বাড়িতে ১১টি ফ্ল্যাট, ছয় নম্বর গুরুদাস লেনের ছয় তলা বড়িতে ১২টি ফ্ল্যাট, গেণ্ডারিয়ার ১৩৫ নম্বর ডিস্টিলারি রোডে একটি টিনশেড বাড়ি আছে তাদের।

ওয়ারী থানার পেছনে ৪৪/বি ব্রজহরি শাহ স্ট্রিটে ৪ কাঠার একটি প্লট, ৮৮ মুরগিটোলায় নয় কাঠার প্লট, কেরানীগঞ্জের তেঘরিয়া এলাকায় ১৫ কাঠা জমির ওপর এক তলা তিন রুমের একটি ফ্ল্যাট আছে দুই ভাইয়ের।

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে ১০ কাঠার একটি প্লট আছে। তাদের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে আছে পুরান ঢাকার ২৯ নম্বর বানিয়ানগরে রুপন স্টিল হাউস, বংশালের ১৪ নম্বর নবাব ইউসুফ রোডে এনু-রুপন স্টিল হাউস, একই রোডে একটি দোকান, ধোলাইখালে বাঁধন এন্টারপ্রাইজ এবং ২৯ নম্বর বানিয়ানগরে সুমন শিট কাটিং নামের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান।

এনু-রুপন সিআইডিকে আরও জানায়, ১০৩ লালমোহন স্ট্রিটের পাশে আধা কাঠা খালি জমি, ১১৯ লালমোহন স্ট্রিটে আধা কাঠা জমিসহ ছয় তলায় একটি ফ্ল্যাট, শরীয়তপুরের নাড়িয়ায় ১২ শতাংশ জমি, পালংয়ের দোশমা গ্রামে ৩৪ শতাংশ জমি, রাজধানীর নারিন্দার ১৪ নম্বর হোল্ডিংয়ে তিনটি ফ্ল্যাট, ৬৫ নম্বর শাহ সাহেব লেনে একটি টিনশেড বাড়ি আছে। এ ছাড়া ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান জাহিদ ডায়েমের মাধ্যমে তাদের দুটি বাড়ি নির্মাণাধীন আছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর রাজধানীতে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাজধানীর গেণ্ডারিয়া, ওয়ারী এবং সূত্রাপুরে অভিযান চালিয়ে এনামুল হক এনু এবং রুপন ভূঁইয়ার বাসা থেকে নগদ পাঁচ কোটি পাঁচ লাখ ৯৪২ হাজার ১০০ টাকা জব্দ করা হয়।

এছাড়া চার কোটি টাকা মূল্যমানের স্বর্ণালংকার জব্দ করা হয়। পরে তাদের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ ও মানি লন্ডারিং মামলা হয়। গ্রেফতারের পর প্রথম দফায় চার দিন এবং দ্বিতীয় দফায় চার দিনের রিমান্ডে তারা তাদের অবৈধ সম্পদের বিস্তারিত বর্ণনা সিআইডির কাছে তুলে ধরেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিআইডির ডিআইজি ইমতিয়াজ আহমেদ যুগান্তরকে বলেন, রিমান্ডে তারা পর্যাপ্ত তথ্য দিয়েছেন। আপাতত মানি লন্ডারিং মামলায় তাদের আর রিমান্ডে নেয়ার প্রয়োজন নেই। তাই বৃহস্পতিবার (আজ) আদালতে হাজির করে তাদের কারাগারে রাখার আবেদন জানানো হবে। তবে তদন্তের স্বার্থে প্রয়োজন হলে ফের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন জানানো হবে।

তিনি আরও জানান, এনু-রুপনের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষ থেকেও মামলা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (আজ) দুদক তাদের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন জানাতে পারে।

ঘটনাপ্রবাহ : ক্যাসিনোয় অভিযান

আরও
আরও পড়ুন

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ১৬৪ ৩৩ ১৭
বিশ্ব ১৪,৩১,৭০৬ ৩,০২,১৫০ ৮২,০৮০
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত