ভোটে থাকছে জাতীয় পার্টিও

চসিকে মেয়র পদে সোলায়মান শেঠ * সংসদীয় উপনির্বাচনে ঢাকায় শাহজাহান, গাইবান্ধায় মইনুর, বাগেরহাটে সাজন মিস্ত্রি

  বিশেষ সংবাদদাতা ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জাতীয় পার্টি

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) এবং শূন্য হওয়া পাঁচটি সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে অংশ নেবে প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টি। এজন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতিও শুরু করেছে দলটি। ইতিমধ্যে চসিক ও তিনটি আসনে প্রার্থীও চূড়ান্ত করা হয়েছে।

এর মধ্যে চসিকে মেয়র পদে মনোনয়ন পেয়েছেন সোলায়মান শেঠ। গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে পেয়েছেন মইনুর রাব্বী চৌধুরী। সম্প্রতি তিনি জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন।

তিনি এ দলেরই প্রয়াত নেতা ও গাইবান্ধা-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ড. টিআইএম ফজলে রাব্বী চৌধুরীর ছেলে।

আর ঢাকা-১০ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন হাজী মো. শাহজাহান। তিনি দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও মহানগর উত্তরের সহ-সভাপতি। বাগেরহাট-৪ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন সাজন কুমার মিস্ত্রি।

সোমবার এ তিনজনকে মনোনয়ন দেয়ার খবর নিশ্চিত করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের। এর আগে তার সভাপতিত্বে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

সাক্ষাৎকার গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, কো-চেয়ারম্যান কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, কো-চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, কো-চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চুন্নু এমপি এবং জাতীয় পার্টি মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি।

এই বৈঠকেই দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করেন জাতীয় পার্টির নীতিনির্ধারকরা। জানতে চাইলে এ প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের সোমবার যুগান্তরকে জানান, তারা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনসহ সবক’টি সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনেই অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ইতিমধ্যে তিনটি সংসদীয় আসনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। বাকিগুলোও দ্রুত চূড়ান্ত করা হবে।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা সোমবার যুগান্তরকে বলেন, ‘আমরা নির্বাচনমুখী রাজনৈতিক দল। সিটি কর্পোরেশনসহ সংসদীয় আসনগুলোর উপনির্বাচনে অংশ নেব। এরই মধ্যে তিনটি আসনে প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি আসনেও প্রার্থী দ্রুত ঠিক করা হবে।’

২১ মার্চ প্রথম দফায় ঢাকা-১০, গাইবান্ধা-৩ এবং বাগেরহাট-৪ আসনে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এর ৮ দিনের মাথায় ২৯ মার্চ ভোট হবে বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনে। একই দিন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনেরও ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

জানা যায়, জাতীয় পার্টির নীতিনির্ধারকরা পাঁচটি আসনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনের উপনির্বাচনটি। জাতীয় পার্টির আসন হিসেবেই চিহ্নিত এ আসনটি। প্রবীণ রাজনীতিবিদ প্রয়াত ড. টিআইএম ফজলে রাব্বী চৌধুরী এই আসন থেকে ৬ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে জাতীয় পার্টি ছেড়ে যান প্রয়াত আরেক বর্ষীয়ান রাজনীতিক কাজী জাফর আহমেদের সঙ্গে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগ মুহূর্তে তিনি মারা যান। এবার এই আসনটিতে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পেয়েছেন মইনুর রাব্বী চৌধুরী।

তিনি ড. টিআইএম ফজলে রাব্বী চৌধুরীর ছেলে। জাতীয় পার্টির শীর্ষ নেতারা মনে করেন, সর্বশক্তি নিয়োগ করলে এই আসনটিতে জয়ী হবেন তাদের প্রার্থী। এর বাইরে অন্য আসনগুলোয়ও শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলতে চান জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা। বিশেষ করে বগুড়া-১ আসনেও জাতীয় পার্টির শক্ত অবস্থান রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আবদুস সবুর আসুদ সোমবার যুগান্তরকে বলেন, সারা দেশে তৃণমূল পর্যায়ে জাতীয় পার্টির শক্ত ভিত রয়েছে। জনসমর্থন আছে। এ জনসমর্থন কাজে লাগাতে পারলে জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা নির্বাচনে ভালো করবে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন : চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চসিক নির্বাচনে মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি সোলায়মান আলম শেঠকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সোমবার দুপুরে ঢাকায় দলীয় কার্যালয় থেকে সোলায়মান আলম শেঠকে মনোনয়ন দেয়া হয়।

বিষয়টি যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছেন সোলায়মান আলম শেঠ। এর আগে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের সভাপতিত্বে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হয়। সাক্ষাৎকার গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, কো-চেয়ারম্যান কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, কো-চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, কো-চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চুন্নু এমপি এবং জাতীয় পার্টি মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি।

যাচাই-বাছাই শেষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে সোলায়মান আলম শেঠকে চূড়ান্তভাবে প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। দলের চেয়ারম্যান জিএম কাদের এমপি এ সময় চট্টগ্রামের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, সব বিভেদ ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দলিয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে হবে। সবার একত্রিত প্রচেষ্টাই আমাদের বিজয় নিশ্চিত করবে।

মনোনয়ন পেয়ে সোলায়মান আলম শেঠ যুগান্তরকে বলেন, অন্যান্য অঞ্চলের চেয়ে চট্টগ্রামে জাতীয় পার্টি অনেক বেশি সুসংগঠিত। চট্টগ্রামের সাধারণ মানুষ জাতীয় পার্টিকে ভালোবাসে, যদি কেন্দ্র দখল না করা হয়, প্রশাসন যদি নিরপেক্ষ হয়ে সুষ্ঠু ভোটগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন করে, তবে বিজয় আমাদের শতভাগ নিশ্চিত।

ঘটনাপ্রবাহ : চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন ২০২০

আরও

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৪৮ ১৫
বিশ্ব ৭,১০,৯৮৭১,৫০,৭৮৮৩৩,৫৫৭
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×