সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়বে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র: ট্রাম্প
jugantor
সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়বে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র: ট্রাম্প
সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ইসলামাবাদকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে * দু’দেশের সম্পর্ক আরও দৃঢ় হল -নরেন্দ্র মোদি

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, সন্ত্রাস দমন এবং জঙ্গি মতাদর্শের বিরুদ্ধে এক হয়ে লড়াই করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত। এ কারণেই পাকিস্তান সীমান্তে পরিচালিত বিভিন্ন সন্ত্রাসী সংগঠনের জঙ্গি কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনায় তার প্রশাসন ইসলামাবাদের সঙ্গে ইতিবাচকভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

সোমবার ভারতের গুজরাট রাজ্যর আহমেদাবাদে বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়োজিত ‘নমস্তে ট্রাম্প’ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। প্রথমবারের মতো দু’দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারত রয়েছেন ট্রাম্প। অনুষ্ঠানে ‘নমস্তে’ বলেই ভাষণ শুরু করেন তিনি।

বলেন, আট হাজার মাইল পেরিয়ে এখানে এসেছি একটা বার্তা দিতে, তা হল আমেরিকা ভারত ও ভারতবাসীকে ভালোবাসে। এমন সুন্দর একটা স্টেডিয়ামে আপনাদের মাঝে এসে আমি খুব আনন্দিত। ভারতকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন একজন চাওয়ালা। সেই চাওয়ালা বন্ধু নরেন্দ্র মোদির জন্য আমি গর্বিত। মোদিকে সবাই ভালোবাসে। এই অনুষ্ঠানেই স্টেডিয়ামটির উদ্বোধন করেন ট্রাম্প।

নিজের বক্তব্যে অখণ্ড ভারত প্রসঙ্গও তুলে ধরেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বলেন, ভারত এমন একটি দেশ, যেখানে হিন্দু, মুসলিম, শিখ, জৈন এবং খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী মানুষ পাশাপাশি বাস করে। ভারতকে এক মহান দেশ আখ্যা দেন তিনি।

এ সময় তিনি ভারত-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বাণিজ্যিক বাধা দূর করার বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও জানান। বক্তব্যের এক পর্যায় ট্রাম্প পাকিস্তানের সমালোচনা করে বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ইসলামাবাদকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে।

স্টেডিয়ামের মঞ্চ থেকেই ট্রাম্প ভারতের সঙ্গে ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের অস্ত্র চুক্তির কথা ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, ভারতের সেনাবাহিনীকে মজবুত করতে সবরকম চেষ্টা চালাবে যুক্তরাষ্ট্র। সে কারণেই ভারতকে অত্যাধুনিক সেনা হেলিকপ্টার সরবরাহ করা হবে। এতে ভারতীয় সেনা আরও বেশি শক্তিশালী হবে।

স্ত্রী মেলানিয়া, বড় মেয়ে ইভাংকা এবং জামাই জ্যারেড কুশনারসহ একটি প্রতিনিধিদলকে সঙ্গে নিয়ে সোমবার বেলা ১১টা ৪০ নাগাদ ভারতের আহমেদাবাদের সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পা রাখেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখানে তাকে স্বাগত জানান ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিমান থেকে নেমেই মোদিকে আলিঙ্গন করেন ট্রাম্প।

এরপর বিমানবন্দর থেকে সপরিবারে সাবরমতী আশ্রম যান ট্রাম্প। আশ্রম হয়ে নবনির্মিত এবং বিশ্বের বৃহত্তম মোতেরা স্টেডিয়ামে পৌঁছান তারা। সেখানে ফার্স্টলেডি মেলানিয়াকে নিয়ে চরকা কাটেন ট্রাম্প। এ সময় স্টেডিয়ামের ২২ কিলোমিটার পথের দু’পাশে লাইন ধরে দাঁড়িয়ে থাকা হাজার হাজার লোক ট্রাম্পকে স্বাগত জানান।

তাদের কারও হাতে যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা, কারও হাতে ভারতের পতাকা ছিল। রাস্তায় পাশে বিলবোর্ডে ‘নমস্তে ট্রাম্প’ লেখা ও বিভিন্ন স্লোগানসহ দুই নেতার ছবি শোভা পাচ্ছিল। ট্রাম্প স্টেডিয়ামে প্রবেশের সময় স্পিকারে সঙ্গীতশিল্পী এল্টন জনের গান বাজছিল। জনের গান ট্রাম্পের বিশেষ পছন্দ, সেটা ভারতীয় কর্তৃপক্ষেরও জানা ছিল।

মোতেরা স্টেডিয়ামের ‘নমস্তে ট্রাম্প’ মঞ্চে একসঙ্গে হাজির হন ট্রাম্প-মোদি। উপস্থিত এক লাখেরও বেশি লোক ‘মোদি, মোদি’ ধ্বনিতে স্টেডিয়াম মুখর করে তোলে।

ট্রাম্পকে স্বাগত জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ১৩০ কোটি ভারতীয়র পক্ষ থেকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে স্বাগত জানালাম। মেলানিয়া ট্রাম্পের ভারতে আসা আমাদের জন্য বড় সম্মানের বিষয়।

ইভাংকা ও জ্যারেডের উপস্থিতিও আমাদের কাছে বড় সম্মানের বিষয়। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, আপনি যে দেশ থেকে এসেছেন সেই দেশে বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য রয়েছে। আপনার আসার মধ্য দিয়ে দু’দেশের সম্পর্ক আরও দৃঢ় হল। আপনাকে স্বাগত জানাতে পুরো দেশ উন্মুখ হয়েছিল।

আহমেদাবাদ থেকে ট্রাম্প ও তার পরিবার তাজমহল দেখতে আগ্রার উদ্দেশে রওনা হন। সন্ধ্যায় তারা বিমানে ভারতের রাজধানী দিল্লি যান। সেখানে আজ দু’পক্ষের মধ্যে শীর্ষপর্যায়ের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, ষষ্ঠ মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ভারত সফর করেন ট্রাম্প। এর আগে ২০১৬ সালে বারাক ওবামা ভারত সফর করেছিলেন। তখনও ক্ষমতায় ছিল নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার।

সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়বে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র: ট্রাম্প

সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ইসলামাবাদকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে * দু’দেশের সম্পর্ক আরও দৃঢ় হল -নরেন্দ্র মোদি
 যুগান্তর ডেস্ক 
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, সন্ত্রাস দমন এবং জঙ্গি মতাদর্শের বিরুদ্ধে এক হয়ে লড়াই করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত। এ কারণেই পাকিস্তান সীমান্তে পরিচালিত বিভিন্ন সন্ত্রাসী সংগঠনের জঙ্গি কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনায় তার প্রশাসন ইসলামাবাদের সঙ্গে ইতিবাচকভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

সোমবার ভারতের গুজরাট রাজ্যর আহমেদাবাদে বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়োজিত ‘নমস্তে ট্রাম্প’ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। প্রথমবারের মতো দু’দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারত রয়েছেন ট্রাম্প। অনুষ্ঠানে ‘নমস্তে’ বলেই ভাষণ শুরু করেন তিনি।

বলেন, আট হাজার মাইল পেরিয়ে এখানে এসেছি একটা বার্তা দিতে, তা হল আমেরিকা ভারত ও ভারতবাসীকে ভালোবাসে। এমন সুন্দর একটা স্টেডিয়ামে আপনাদের মাঝে এসে আমি খুব আনন্দিত। ভারতকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন একজন চাওয়ালা। সেই চাওয়ালা বন্ধু নরেন্দ্র মোদির জন্য আমি গর্বিত। মোদিকে সবাই ভালোবাসে। এই অনুষ্ঠানেই স্টেডিয়ামটির উদ্বোধন করেন ট্রাম্প।

নিজের বক্তব্যে অখণ্ড ভারত প্রসঙ্গও তুলে ধরেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বলেন, ভারত এমন একটি দেশ, যেখানে হিন্দু, মুসলিম, শিখ, জৈন এবং খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী মানুষ পাশাপাশি বাস করে। ভারতকে এক মহান দেশ আখ্যা দেন তিনি।

এ সময় তিনি ভারত-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বাণিজ্যিক বাধা দূর করার বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও জানান। বক্তব্যের এক পর্যায় ট্রাম্প পাকিস্তানের সমালোচনা করে বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ইসলামাবাদকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে।

স্টেডিয়ামের মঞ্চ থেকেই ট্রাম্প ভারতের সঙ্গে ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের অস্ত্র চুক্তির কথা ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, ভারতের সেনাবাহিনীকে মজবুত করতে সবরকম চেষ্টা চালাবে যুক্তরাষ্ট্র। সে কারণেই ভারতকে অত্যাধুনিক সেনা হেলিকপ্টার সরবরাহ করা হবে। এতে ভারতীয় সেনা আরও বেশি শক্তিশালী হবে।

স্ত্রী মেলানিয়া, বড় মেয়ে ইভাংকা এবং জামাই জ্যারেড কুশনারসহ একটি প্রতিনিধিদলকে সঙ্গে নিয়ে সোমবার বেলা ১১টা ৪০ নাগাদ ভারতের আহমেদাবাদের সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পা রাখেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখানে তাকে স্বাগত জানান ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিমান থেকে নেমেই মোদিকে আলিঙ্গন করেন ট্রাম্প।

এরপর বিমানবন্দর থেকে সপরিবারে সাবরমতী আশ্রম যান ট্রাম্প। আশ্রম হয়ে নবনির্মিত এবং বিশ্বের বৃহত্তম মোতেরা স্টেডিয়ামে পৌঁছান তারা। সেখানে ফার্স্টলেডি মেলানিয়াকে নিয়ে চরকা কাটেন ট্রাম্প। এ সময় স্টেডিয়ামের ২২ কিলোমিটার পথের দু’পাশে লাইন ধরে দাঁড়িয়ে থাকা হাজার হাজার লোক ট্রাম্পকে স্বাগত জানান।

তাদের কারও হাতে যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা, কারও হাতে ভারতের পতাকা ছিল। রাস্তায় পাশে বিলবোর্ডে ‘নমস্তে ট্রাম্প’ লেখা ও বিভিন্ন স্লোগানসহ দুই নেতার ছবি শোভা পাচ্ছিল। ট্রাম্প স্টেডিয়ামে প্রবেশের সময় স্পিকারে সঙ্গীতশিল্পী এল্টন জনের গান বাজছিল। জনের গান ট্রাম্পের বিশেষ পছন্দ, সেটা ভারতীয় কর্তৃপক্ষেরও জানা ছিল।

মোতেরা স্টেডিয়ামের ‘নমস্তে ট্রাম্প’ মঞ্চে একসঙ্গে হাজির হন ট্রাম্প-মোদি। উপস্থিত এক লাখেরও বেশি লোক ‘মোদি, মোদি’ ধ্বনিতে স্টেডিয়াম মুখর করে তোলে।

ট্রাম্পকে স্বাগত জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ১৩০ কোটি ভারতীয়র পক্ষ থেকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে স্বাগত জানালাম। মেলানিয়া ট্রাম্পের ভারতে আসা আমাদের জন্য বড় সম্মানের বিষয়।

ইভাংকা ও জ্যারেডের উপস্থিতিও আমাদের কাছে বড় সম্মানের বিষয়। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, আপনি যে দেশ থেকে এসেছেন সেই দেশে বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য রয়েছে। আপনার আসার মধ্য দিয়ে দু’দেশের সম্পর্ক আরও দৃঢ় হল। আপনাকে স্বাগত জানাতে পুরো দেশ উন্মুখ হয়েছিল।

আহমেদাবাদ থেকে ট্রাম্প ও তার পরিবার তাজমহল দেখতে আগ্রার উদ্দেশে রওনা হন। সন্ধ্যায় তারা বিমানে ভারতের রাজধানী দিল্লি যান। সেখানে আজ দু’পক্ষের মধ্যে শীর্ষপর্যায়ের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, ষষ্ঠ মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ভারত সফর করেন ট্রাম্প। এর আগে ২০১৬ সালে বারাক ওবামা ভারত সফর করেছিলেন। তখনও ক্ষমতায় ছিল নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন