ওয়ালটনের বিডিং প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখবে বিএসইসি
jugantor
ওয়ালটনের বিডিং প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখবে বিএসইসি

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২০ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তি নিয়ে বিতর্কিত ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি ওয়ালটন হাইটেক পার্কের বিডিং প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখবে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের নিয়ম হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে প্রতিষ্ঠানটি।

এছাড়াও আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাসহ আর্থিক রিপোর্টে কোনো অনিয়ম পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিএসইসির ঊর্ধ্বতন সূত্র বৃহস্পতিবার যুগান্তরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানায়, ওয়ালটন নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমের বিভিন্ন রিপোর্ট ও বিতর্কের বিষয়টি তাদের নজরে এসেছে। ফলে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় এ কোম্পানির প্রাথমিক শেয়ার (আইপিও) অনুমোদন দেয়া হবে।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে এ কোম্পানির কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের বিষয়টি সময় নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। এক্ষেত্রে বিডিংয়ে কারসাজি করে কেউ দাম বাড়ানোর চেষ্টা করলেও তার বিরুদ্ধে আইন অনুসারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়। বিষয় নিয়ে কমিশনের নিজেদের মধ্যেও আলোচনা হয়েছে বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে।

শেয়ারবাজার থেকে ১০০ কোটি টাকার মূলধন সংগ্রহের জন্য বাজারে আসার আবেদন করে ওয়ালটন হাইটেক পার্ক ইন্ডাস্ট্রিজ। এক্ষেত্রে প্রসপেক্টাসে (আর্থিক বিবরণী) বড় ধরনের অনিয়ম ধরা পড়ে।

শেয়ারবাজার থেকে উচ্চ প্রিমিয়াম নেয়ার জন্য আর্থিক আয় ও সম্পদ বাড়িয়ে দেখানো হয়। আর এ প্রক্রিয়ায় কোম্পানির কাট অফ প্রাইস নির্ধারিত হয় ৩১৫ টাকা।

বর্তমান বাজারের সঙ্গে এটি কোনোভাবেই সঙ্গতিপূর্ণ নয়। এ নিয়ে দেশের শীর্ষস্থানীয় অর্থনীতিবিদ, শেয়ারবাজার বিশ্লেষক এবং সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের মতামতের প্রতিবেদন তুলে ধরে যুগান্তর।

ওয়ালটনের বিডিং প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখবে বিএসইসি

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২০ মার্চ ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তি নিয়ে বিতর্কিত ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি ওয়ালটন হাইটেক পার্কের বিডিং প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখবে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের নিয়ম হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে প্রতিষ্ঠানটি।

এছাড়াও আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাসহ আর্থিক রিপোর্টে কোনো অনিয়ম পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিএসইসির ঊর্ধ্বতন সূত্র বৃহস্পতিবার যুগান্তরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানায়, ওয়ালটন নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমের বিভিন্ন রিপোর্ট ও বিতর্কের বিষয়টি তাদের নজরে এসেছে। ফলে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় এ কোম্পানির প্রাথমিক শেয়ার (আইপিও) অনুমোদন দেয়া হবে।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে এ কোম্পানির কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের বিষয়টি সময় নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। এক্ষেত্রে বিডিংয়ে কারসাজি করে কেউ দাম বাড়ানোর চেষ্টা করলেও তার বিরুদ্ধে আইন অনুসারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়। বিষয় নিয়ে কমিশনের নিজেদের মধ্যেও আলোচনা হয়েছে বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে।

শেয়ারবাজার থেকে ১০০ কোটি টাকার মূলধন সংগ্রহের জন্য বাজারে আসার আবেদন করে ওয়ালটন হাইটেক পার্ক ইন্ডাস্ট্রিজ। এক্ষেত্রে প্রসপেক্টাসে (আর্থিক বিবরণী) বড় ধরনের অনিয়ম ধরা পড়ে।

শেয়ারবাজার থেকে উচ্চ প্রিমিয়াম নেয়ার জন্য আর্থিক আয় ও সম্পদ বাড়িয়ে দেখানো হয়। আর এ প্রক্রিয়ায় কোম্পানির কাট অফ প্রাইস নির্ধারিত হয় ৩১৫ টাকা।

বর্তমান বাজারের সঙ্গে এটি কোনোভাবেই সঙ্গতিপূর্ণ নয়। এ নিয়ে দেশের শীর্ষস্থানীয় অর্থনীতিবিদ, শেয়ারবাজার বিশ্লেষক এবং সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের মতামতের প্রতিবেদন তুলে ধরে যুগান্তর।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন