দৈনিক মৃত্যুতে এখনও শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

সংক্রমণে চীনকে ছাড়াল ভারত * এক মাসে মৃত্যু দেখেনি চীন * ব্রাজিলে একদিনে আক্রান্তের রেকর্ড

  যুগান্তর ডেস্ক ১৬ মে ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাসে বিধ্বস্ত যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মৃত্যু আর আক্রান্তের এ দেশটি দৈনিক মৃত্যুতেও শীর্ষে। প্রতিদিনই গড়ে দুই হাজারের কাছাকাছি মানুষ মারা যাচ্ছেন। এক মাসের মধ্যে মাত্র দু’দিন হাজারের নিচে নেমেছিল প্রাণহানি। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১ হাজার ৭১৫ জন।

আসছে শীতে দেশটির করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের পর দৈনিক মৃত্যুতে সবচেয়ে এগিয়ে ব্রাজিল। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮শ’র বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। রাশিয়ায় আবারও একদিনে সংক্রমণ ১০ হাজার ছাড়িয়েছে।

এক মাসে করোনায় কোনো মৃত্যু দেখেনি চীন। সংক্রমণে দেশটিকে ছাড়িয়ে গেছে ভারত। শুক্রবার রাত ১২টা পর্যন্ত দেশটিতে ৮৫ হাজার ৭৬০ জন আক্রান্ত হয়েছেন, যেখানে চীনে আক্রান্তের সংখ্যা ৮২ হাজার ৯৩৩ জন।

এদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার নৈশক্লাব থেকে আরও ১৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। খবর বিবিসি, এএফপি ও রয়টার্সসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের।

বাংলাদেশ সময় শুক্রবার রাত ১২টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৫ লাখ ৮৬ হাজার ২৭৬ জন। মারা গেছেন ৩ লাখ ৬ হাজার ৬৪ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ৪৫ হাজার ১৮৯ জনের।

সুস্থ হয়েছেন ১৭ লাখ ৩৪ হাজার ৯০৩ জন। শুক্রবার এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৪ হাজার ২৮৭ জন, মারা গেছেন ২ হাজার ৯৮২ জন, যা আগের ২৪ ঘণ্টায় ছিল ৫ হাজার ৩১৭।

যুক্তরাষ্ট্রে বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৭১৫ জন প্রাণ হারিয়েছেন। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ১২টা পর্যন্ত সেখানে মারা যান ৭৫০ জন। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৮৭ হাজার ৬৬২ জন। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ১৪ লাখ ৬৯ হাজার ৩০৭ জন।

স্পেনে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৭৪ হাজার ৩৬৭ জন, মারা গেছেন ২৭ হাজার ৪৫৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ২১৭ জনের। যুক্তরাজ্যে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৩৬ হাজার ৭১১ জন, মারা গেছেন ৩৩ হাজার ৯৯৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৪৯৪ জনের। ইতালিতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৮৫ জন, মারা গেছেন ৩১ হাজার ৬১০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ২৬২ জনের।

করোনাভাইরাসের কারণে ‘সবচেয়ে ভয়ংকর শীতকালের’ মুখোমুখি হতে যাচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার দেশটির কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্বাস্থ্যবিষয়ক উপকমিটির শুনানিতে সাবেক শীর্ষ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রিক ব্রাইট এ হুশিয়ারি দিয়েছেন।

বায়োমেডিকেল অ্যাডভান্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের সাবেক এ পরিচালক উপকমিটিকে বলেছেন, করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ‘নিষ্ক্রিয়তার’ কারণেই এ ‘বিপুল পরিমাণ প্রাণহানি’ হয়েছে।

তিনি জানান, ভাইরাস মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জামের ঘাটতির বিষয়ে জানুয়ারিতেই স্বাস্থ্য ও মানবসেবা মন্ত্রণালয়ের ‘সর্বোচ্চ পর্যায়কে’ সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু তাদের কাছ থেকে কোনো জবাব পাওয়া যায়নি।

চীনে এক মাস করোনায় মৃত্যু নেই : চীনে গেল এক মাসে করোনাভাইরাসে নতুন করে কোনো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। শেষবার ১৪ এপ্রিল দেশটিতে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছিল। জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন শুক্রবার নতুন করে চারজনের দেহে ভাইরাস শনাক্ত করেছে।

দ্বিতীয় দফার সংক্রমণ ঠেকাতে করোনার উৎপত্তিস্থল উহানের সব বাসিন্দার পরীক্ষা শুরু করেছে সরকার। চীনে মোট ৪ হাজার ৬৩৩ জনের করোনায় মৃত্যু হয়েছে, আর আক্রান্ত হয়েছে ৮২ হাজার ৯৩৩ জন।

রাশিয়ায় একদিনে ফের ১০ হাজারের বেশি আক্রান্ত : রাশিয়ায় আবারও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আগের দিনের চেয়ে বাড়ল। টানা ১১ দিন পর বৃহস্পতিবার আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজারের নিচে নেমেছিল।

শুক্রবার আবারও তা আগের অবস্থায় ফিরল। এদিন নতুন করে ১০ হাজার ৫৯৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৬২ হাজার ৮৪৩ জন। ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ৯৩ জনের। এ নিয়ে মোট মৃত্যু ২ হাজার ৪১৮।

সিউলের নৈশক্লাব থেকে আক্রান্ত আরও ১৭ : দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলের নৈশক্লাব থেকে আরও ১৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সেখান থেকে ১৪৮ জন আক্রান্ত হলেন। শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন দেশটির উপ-স্বাস্থ্যমন্ত্রী কিম গাং-লিপ।

করোনার সংক্রমণ একের ঘরে নামার কিছুদিন পরই নৈশক্লাবে আনাগোনার কারণে আবার তা বাড়তে থাকে। এরপর সব নৈশক্লাব ও বার বন্ধ করে দেয়া হয়। দেশটিতে এ পর্যন্ত ১১ হাজার ১৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং মৃত্যু হয়েছে ২৬০ জনের।

ব্রাজিলে দৈনিক আক্রান্তের রেকর্ড : বৃহস্পতিবার একদিনে ব্রাজিলে ১৩ হাজার ৯৪৪ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৪ হাজার ৭৯৫ জন। গেল ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৮৩৫ জন।

ল্যাটিন আমেরিকায় মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়া দেশটিতে এ নিয়ে মোট প্রাণহানি ১৪ হাজার ৫৮ জন। সংক্রমণ আর মৃত্যু প্রতিদিন বাড়লেও লকডাউন প্রত্যাহার করতে গভর্নরদের প্রতিনিয়ত চাপ দিয়ে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট জেয়ার বোলসোনারো।

ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫ হাজার ছাড়াল : ভারতে নতুন করে ৩ হাজার ৭৬৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫ হাজার ৭৬০ জনে দাঁড়িয়েছে। শুক্রবার মারা গেছেন ১০৪ জন। এ নিয়ে দেশটিতে ২ হাজার ৭৫৩ জনের মৃত্যু হল।

মেক্সিকোয় একদিনে সর্বোচ্চ করোনা শনাক্ত : মেক্সিকোয় বৃহস্পতিবার নতুন করে ২ হাজার ৪০৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মহামারী শুরুর পর দেশটিতে একদিনে এটাই সর্বোচ্চ কোভিড-১৯ রোগী পাওয়ার খবর।

মেক্সিকান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এদিন ২৫৭ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে। এতে দেশটিতে মোট ৪ হাজার ৪৭৭ জনের প্রাণহানি হল করোনায় আর আক্রান্ত ৪২ হাজার ৫৯৫ জন।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত