২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৭ শনাক্ত ২৯১১

সর্বোচ্চ শনাক্তের দিনে আক্রান্ত ছাড়াল অর্ধলাখ

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৩ জুন ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সর্বোচ্চ শনাক্তের দিনে করোনাভাইরাসে সংক্রমিতের সংখ্যা ছাড়াল ৫০ হাজার ও মৃত্যু সাতশ’। মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ২ হাজার ৯১১ জনের মধ্যে নতুন করে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তাতে দেশে এ পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫২ হাজার ৪৪৫। এর আগে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের সংখ্যা ছিল দুই হাজার ৫৪৫ । গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৯১ শতাংশ। আগের দিন ছিল ২০ দশমিক ৮১ শতাংশ। গত এক দিনে আরও ৩৭ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে দেশে মৃতের সংখ্যা ৭০৯। সারা দেশে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন আরও ৫২৩ জন। সব মিলে এ পর্যন্ত মোট ১১ হাজার ১২০ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন। ৮ মার্চ প্রথম করোনারোগী শনাক্ত হওয়ার পর ৮৬তম দিনে এসে দেশের এ চিত্র দাঁড়িয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত বুলেটিনে যুক্ত হয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা মঙ্গলবার দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির সর্বশেষ তথ্য তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫২টি ল্যাবের মধ্যে নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৪ হাজার ৯৫০টি। এরমধ্যে ১২ হাজার ৭০৪টি নমুনা পরীক্ষায় ২ হাজার ৯১১ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়ে। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৩ লাখ ৩৩ হাজার ৭৩টি। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২১ শতাংশ। আর মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩৫ শতাংশ। নাসিমা বলেন, গত এক দিনে যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ৩৩ জন পুরুষ এবং ৪ জন নারী। হাসপাতালে মারা গেছেন ২৮ জন, আর ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে বাড়িতে। মৃতদের মধ্যে ১০ জন ঢাকা বিভাগের, ১৫ জন চট্টগ্রামের, ৩ জন বরিশালের, ৪ জন সিলেট, ২ জন রাজশাহী, ২ জন রংপুর এবং ১ জন ময়মনসিংহ বিভাগের। বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, মৃতদের মধ্যে ২ জনের বয়স ছিল ৮০ বছরের বেশি। এছাড়া ১০ জনের বয়স ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে, ৯ জনের বয়স ৬১ থেকে ৭০ বছর, ১০ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছর, ১ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছর, ৪ জন ৩১ থেকে ৪০ বছর এবং ১ জনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ছিল।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৩৮৮ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৬ হাজার ২৪০ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ১৬৯ জন, এখন পর্যন্ত মোট ছাড় পেয়েছেন ৩ হাজার ৪০৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিন মিলে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে ২ হাজার ৫০৬ জনকে। এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৯০ হাজার ৩৮৫ জনকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে। কোয়ারেন্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ৯৭ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট ২ লাখ ৩১ হাজার ৮৪০ জন ছাড় পেয়েছেন। বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫৮ হাজার ৫৪৫ জন।

স্বাস্থ্যবিধির কথা ফের স্মরণ করিয়ে দিয়ে নাসিমা সুলতানা বলেন, শুধু কথা বলার মাধ্যমেই আক্রান্ত ব্যক্তি ভাইরাস ছড়াতে পারেন। তাই মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। ঘরে তৈরি কাপড়ের মাস্ক পরলেই হবে।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত