বিশ্বে প্রাণহানি ৪ লাখ

ব্রাজিলে প্রতি মিনিটে একজনের মৃত্যু

৮৬ দিন পর মৃত্যুশূন্য দিন দেখল নিউইয়র্ক * ইতালিকেও ছাড়িয়ে গেল ভারত

  যুগান্তর ডেস্ক ০৭ জুন ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রাজিলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতি মিনিটে একজনের মৃত্যু হচ্ছে। দেশটির প্রসিদ্ধ দৈনিক ফলহা ডিএস পাওলোর প্রথম পাতাজুড়ে প্রকাশিত এক সম্পাদকীয়তে এই দাবি করা হয়েছে।

পত্রিকাটি লিখেছে, আপনি যখন এই লেখাটি পড়ছেন, তখন আরেকজন ব্রাজিলিয়ানের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে। এদিকে বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৯ লাখ ২০ হাজার ছাড়িয়েছে।

এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় ৪ লাখ মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে করোনার ভয়াবহতা কমে এসেছে। ৮৬ দিন পর প্রথম মৃত্যুশূন্য দিন দেখল শহরটি। ভারত ও পাকিস্তানে প্রতিদিনই করোনা-আক্রান্তের নতুন রেকর্ড হচ্ছে। আক্রান্তের তালিকায় ইতালিকেও ছাড়িয়ে গেছে ভারত। খবর রয়টার্স, বিবিসি, এএফপি, রয়টার্স ও গার্ডিয়ানসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের।

ফলহা ডিএস পাওলোর সম্পাদকীয়তে বলা হয়েছে, মাত্র ১০০ দিন আগে ব্রাজিল প্রেসিডেন্ট জইর বোলসোনারো যেটিকে ‘লিটল ফ্লু’ বলে আখ্যায়িত করেছিলেন, সেটিই এখন প্রতি মিনিটে একজন ব্রাজিলিয়ানের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে।

টানা তৃতীয় দিন মৃত্যুর রেকর্ড গড়ে ব্রাজিল। বৃহস্পতিবার মারা যান ১ হাজার ৪৩৭ জন। আক্রান্ত প্রায় সাড়ে ৬ লাখ। শুক্রবার রাতে আরও ১ হাজার ৫ জনের মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে।

এ নিয়ে মোট মৃত্যু ৩৫ হাজার ৩৭ জন। এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতেও দ্রুত লকডাউন প্রত্যাহারের পক্ষেই সাফাই গাইছেন বোলসোনারো। এ নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করেছিল ব্রাজিলিয়ান সরকারকে।

এর জেরে শনিবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) থেকে ব্রাজিলের বেরিয়ে যাওয়ার হুমকি দেন প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ডব্লিউএইচও ‘একটি বিশেষ গোষ্ঠীর অনুগত’ ও ‘রাজনৈতিক’ প্রতিষ্ঠান। এই সংস্থা ‘আদর্শগত পক্ষপাতিত্ব ছাড়া’ কাজ বন্ধ না করলে ব্রাজিল সদস্যপদ বাতিলের কথা ভাববে।

এদিকে বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৯ লাখ ২০ হাজার ৪৭৬ জন। মারা গেছেন ৪ লাখ ১৩০ জন।

অবস্থা আশঙ্কাজনক ৫৩ হাজার ৭৯৬ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৩৩ লাখ ৮৮ হাজার ২৮৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩০ হাজার ৫২৯ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৯০৬ জন।

বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে রোগী ১৯ লাখ ৭৭ হাজার ১২৬ জন, মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ১১ হাজার ৭২৫ জনের। রাশিয়ায় মোট রোগীর সংখ্যা ৪ লাখ ৫৮ হাজার ৬৮৯ জন, মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৭২৫ জনের।

স্পেনে আক্রান্ত ২ লাখ ৮৮ হাজার ৩৯০ জন, মারা গেছেন ২৭ হাজার ১৩৫ জন। এরপর যুক্তরাজ্যে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৮৪ হাজার ৮৬৮ জন, মারা গেছেন ৪০ হাজার ৪৬৫ জন।

নিউইয়র্কে মৃত্যুহীন দিন : করোনায় বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত ও হটস্পট নিউইয়র্ক শহরে ২৪ ঘণ্টায় কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। ১১ মার্চের পর বুধবার প্রথম মৃত্যুশূন্য দিন দেখল নিউইয়র্কবাসী।

নগরীর মেয়র ডি ব্লাজিওর মুখপাত্র ফ্রেডি গোল্ডস্টেইন বলেন, এদিন আমরা করোনাভাইরাসে মৃত্যুর কোনো খবর পাইনি। এ শহরে করোনা সংক্রমণ হ্রাস পেয়েছে বলেও জানান তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গরাজ্য নিউইয়র্কে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৩ লাখ ৮৪ হাজার জন। মৃত্যু হয়েছে ৩০ হাজারেরও বেশি মানুষের। বিশ্বের মধ্যে নিউইয়র্কের অবস্থাই সবচেয়ে শোচনীয়। তবে পরিস্থিতির উন্নতি হতে শুরু করেছে, এটা আবশ্যই নিউইয়র্কবাসীর জন্য সুখবর।

করোনার টিকার ২০ লাখ ডোজ প্রস্তুত -ট্রাম্প : ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে ‘কার্যকরী ও নিরাপদ’ প্রমাণিত হলেই যুক্তরাষ্ট্র বাজারে ছাড়বে কোভিড-১৯ রোগের টিকা। ২০ লাখ ডোজ প্রস্তুত রাখা হয়েছে বললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউসে শুক্রবারের প্রেস ব্রিফিংয়ে ট্রাম্প বলেন, টিকা নিয়ে আমরা একটা সভা করেছিলাম। আমরা দারুণ করছি। বেশকিছু ইতিবাচক বিস্ময় আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে।

টিকা তৈরিতে অবিশ্বাস্য অগ্রগতি আমাদের। এমনকি পরিবহন ও সরবরাহের ক্ষেত্রেও আমরা তৈরি। যদি ট্রায়ালে টিকা নিরাপদ প্রমাণিত হয়, তাহলে আমরা ২০ লাখের বেশি টিকার ডোজ বাজারে ছাড়তে পারব।

ইতালিকে ছাড়িয়েছে ভারত : করোনাভাইরাসে টানা তৃতীয় দিন ৯ হাজারের বেশি আক্রান্ত হল ভারতে। তাতে বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যায় ইতালিকেও পেছনে ফেলল দেশটি।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, শুক্রবার একদিনে ৯ হাজার ৮৮৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৪৬ হাজার ৪৫৪ জন, মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৯৪৬ জনের।

আর ইতালিতে মোট কোভিড-১৯ রোগ হয়েছে ২ লাখ ৩৪ হাজার ৮০১ জনের। ইউরোপের দেশটিকে ছাড়িয়ে বিশ্বে আক্রান্তের তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে উঠে এলো ভারত। এই তালিকায় তাদের উপরে আছে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য ও স্পেন। মাত্র এক সপ্তাহ আগে আক্রান্তের সংখ্যায় চীনকে টপকে নবম স্থানে উঠেছিল ভারত। এরপর ক’দিনের মধ্যে জার্মানি, ফ্রান্স ও ইতালিকে ছাড়িয়ে গেল দেশটি।

পাকিস্তানে একদিনে রেকর্ড মৃত্যু : পাকিস্তানে করোনাভাইরাসে গেল ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ তথ্য দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃত্যু ১ হাজার ৯৩৫ জন।

এদিকে চার দিনে তৃতীয়বার ৪ হাজার ছাড়াল দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা। শেষ ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৭৩৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত ৯৩ হাজার ৯৮৩ জন।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত