বিশ্বে করোনা রোগী এক কোটি ১৪ লাখ ছাড়াল

  যুগান্তর ডেস্ক ০৬ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ফাইল ছবি

বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। প্রতিদিন দেড় লাখ থেকে দুই লাখ নতুন রোগী যুক্ত হচ্ছে তালিকায়। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ১৪ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। প্রাণ হারিয়েছেন ৫ লাখ ৩৪ হাজার। মৃতের সংখ্যায় ফ্রান্সকে ছাড়িয়ে গেছে লাতিন আমেরিকার দেশ মেক্সিকো। যুক্তরাষ্ট্রে দৈনিক মৃত্যুর হার কিছুটা কমলেও শনাক্তের গড় বেড়েছে। ভারতে প্রতি ঘণ্টায় এক হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন। খবর বিবিসি, গার্ডিয়ান, এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের।

বাংলাদেশ সময় রোববার রাত ১টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ১৪ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪৪ জন। মারা গেছেন ৫ লাখ ৩৫ হাজার ৩৭০ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ৫৮ হাজার ৫১১ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৬৪ লাখ ৬১ হাজার ১৩০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮৯ হাজার ৬২৬, মৃত্যু হয়েছে ৫৪ হাজার ৪৯২ জনের। যা আগের ২৪ ঘণ্টায় ছিল ২ লাখ ৯ হাজার ২৮ ও ৫ হাজার ১৭০ জন।

বিশ্ব তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৫ হাজার ১৮২ জন, মৃত্যু হয়েছে ২৫৪ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে মোট রোগীর সংখ্যা ২৯ লাখ ৬৯ হাজার ২৪ জন, মারা গেছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ৫০২ জন। তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দাবি, অনেক বেশি পরীক্ষার কারণেই দেশটিতে শনাক্তের সংখ্যা বাড়ছে।

শনিবার হোয়াইট হাউসে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে দেয়া ভাষণে তিনি বলেন, আমরা প্রায় চার কোটি মানুষের পরীক্ষা করেছি। এটা করার মাধ্যমে দেখতে পেয়েছি, এর ৯৯ শতাংশই বিপদমুক্ত। এই ফল অন্য কোনো দেশ দেখাতে পারবে না। কারণ আমাদের যে টেস্টিং সুবিধা আছে তা কোনো দেশের নেই- সেটা সংখ্যার দিক থেকে কিংবা মানের দিক থেকে।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ হাজার ৩৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১১১ জনের। দেশটিতে মোট রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৭৯ হাজার ৮৩৭ জন, মৃত্যু হয়েছে ৬৪ হাজার ৩৮৩ জনের। তৃতীয় স্থানে উঠে আসা ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় রোববার সকালে জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ২৪ হাজার ৮৫০ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। অর্থাৎ প্রতি ঘণ্টায় এক হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন।

একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ৬১০ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ৯৭ হাজার ৮৩৬ জন, মৃত্যু হয়েছে ১৯ হাজার ৭০০ জনের। চতুর্থ স্থানে নেমে যাওয়া রাশিয়ায় মোট রোগীর সংখ্যা ৬ লাখ ৮১ হাজার ২৫১ জন, মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ১৬১ জনের।

এদিকে আক্রান্তের সংখ্যায় বিশ্ব তালিকায় যুক্তরাজ্য ও স্পেনকে পেছনে ফেলে পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে পেরু। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৯৯ হাজার ৮০ জন, মারা গেছেন ১০ হাজার ৪১২ জন। ষষ্ঠ স্থানে থাকা স্পেনে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৯৭ হাজার ৫২৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ২৮ হাজার ৩৮৫ জনের।

মৃতের সংখ্যায় ফ্রান্সকে ছাড়িয়ে মেক্সিকো : করোনা আক্রান্তের উপকেন্দ্র হয়ে ওঠা মেক্সিকোতে শনিবার ৫২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা হয়েছে ৩০ হাজার ৩৬৬ জন। এর ফলে বিশ্বে করোনায় মৃতের তালিকায় ফ্রান্সকে সরিয়ে পঞ্চম স্থানে চলে এসেছে মেক্সিকো। ইউরোপে করোনার সবচেয়ে ভয়াবহ প্রাদুর্ভাবের শিকার যে কয়টি দেশ হয়েছিল, তার অন্যতম ফ্রান্স। অবশ্য দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা সম্প্রতি অনেক কমে এসেছে। ফ্রান্সে এ পর্যন্ত ২৯ হাজার ৮৯৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

সৌদিতে বাড়ছে করোনার প্রকোপ : সৌদি আরবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ১২৮ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে মারা গেছেন ৫৬ জন। এতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ায় ২ লাখ ৫০ হাজার ৯১৯ জনে। সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রিয়াদে ৩৬০ জন, দাম্মামে ৩১৫ জন, হুফোপ ২১৭ জন, কাতিপ ২১৪ জন, মক্কা মুকাররমা ২১২ জন, তায়েফে ২০৪ জন, খামিস মুশাইত ২০১ জন, আল মুবারাজ ১৭৫ জন, জেদ্দায় ১৬৯ জন, আল খোবার ১৫১ জন, মদিনা মুনাওয়ারা ১৪২ জন, জাহারান ১৪০ জন, আবহা ১২৫ জন ও আল খারিজে ১০৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

জাপানে প্রতি লাখে মারা গেছেন একজনেরও কম : জাপানে প্রতি ১ লাখে ০.৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বলা হচ্ছে, জাপানিদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেশি। তাই দেশটিতে করোনায় মৃত্যুহার অনেক কম। করোনা মোকাবেলায় অন্যান্য দেশের মতো কড়া লকডাউনেও যায়নি জাপান।

এমনকি দেশটিতে খুব বেশি টেস্টও করা হয়নি। টেস্ট হয়েছে ৩ লাখ ৪৮ হাজার, যা মোট জনসংখ্যার মাত্র ০.২৭ শতাংশ। এ নিয়ে টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক টাটসুহিকো কোদামা বলেন, জাপানের মানুষের মধ্যে ঐতিহাসিকভাবেই একটা ইমিউনিটি শক্তি আছে। একটা ভাইরাস যখন দেহে আঘাত হানে, তখন শরীর সে অনুযায়ী সাড়া দেয় এবং ভাইরাসের কার্যক্ষমতা কমে যায়।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত