বাবার গড়া উন্নয়নের চাকা এগিয়ে নেয়াই আমাদের দায়িত্ব

-শামীম ইসলাম

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৫ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের জানাজার আগে বাবার জন্য দোয়া চাইছেন গ্রুপের এমডি শামীম ইসলাম। ছবি: যুগান্তর

যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের বিদেহী আত্মার শান্তি ও বেহেশত কামনায় সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তার ছেলে শামীম ইসলাম। মঙ্গলবার বাদ জোহর যমুনা ফিউচার পার্ক প্রাঙ্গণে নুরুল ইসলামের জানাজার আগে সমবেত শোকার্ত মানুষের উদ্দেশে তিনি এ দোয়া চান।

এ সময় যমুনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) শামীম ইসলাম দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে তার বাবার অবদানের কথা স্মরণ করেন। পাশাপাশি একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও পরবর্তী সময়ে দেশের কল্যাণে নুরুল ইসলামের অবদানের কথাও তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, যে উন্নয়নের চাকা তিনি গড়ে দিয়ে গেছেন, আমাদের দায়িত্ব সেই চাকাকে আরও সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। আমরা দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করছি, যাতে আমার বাবা যা করে গেছেন, তা ধরে রাখতে পারি এবং এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি।

শামীম ইসলাম বলেন, ‘আপনারা যারা আমার বাবার কাছাকাছি ছিলেন, যারা কাছ থেকে দেখেছেন, তারা নিশ্চয়ই জানেন যে, উনি কাজকে প্রচণ্ড ভালোবাসতেন। জীবনের শেষ পর্যন্ত আমাদের ভবিষ্যৎ পথচলার দিকনির্দেশনা দিয়ে গেছেন তিনি। বাবা মিথ্যা অপছন্দ করতেন। কাউকে কোনো প্রতিশ্রুতি দিলে তা রক্ষা করতেন। সেটি নিশ্চয়ই আপনারা স্বীকার করবেন।’

তিনি বলেন, আমার বাবা আজকে এ পর্যন্ত এসেছেন, তার এই অগ্রযাত্রা অত সহজ ছিল না। অনেক সংগ্রাম করেছেন। ত্যাগ-তিতিক্ষার মাধ্যমে তাকে এ পর্যন্ত আসতে হয়েছে। কোনো মানুষ ভুল-ত্রুটির ঊর্ধ্বে নয়। মানুষেরই মানবীয় দুর্বলতা থাকে।

তার এই জীবন চলার পথে আপনাদের কেউ তার কাছে মনে আঘাত পেতে পারেন। তাকে কেউ হয়তো ভুল বুঝতে পারেন। আজকে এই শেষ বিদায়লগ্নে আমি তার ছেলে হিসেবে তার পক্ষ থেকে সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি। আশা করি, আপনারা সবাই আমার বাবাকে ক্ষমা করে দেবেন।

শামীম ইসলাম আরও বলেন, আজকে আমরা যেখানে এই জানাজায় দাঁড়িয়েছি, সেটি আমার বাবার নিজ হাতে তৈরি করা প্রতিষ্ঠান। গত ৪৫ বছরে অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে তিল তিল করে এমন আরও বহু প্রতিষ্ঠান তিনি গড়ে তুলেছেন।

তার এই কর্মপ্রয়াস ছিল দেশকে এগিয়ে নেয়ার এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির মহান উদ্যোগের অংশ। তার নিজ হাতে গড়ে তোলা এসব প্রতিষ্ঠান মানুষের কর্মসংস্থান ও মানবকল্যাণের বড় ভিত্তিপ্রস্তর হিসেবে কাজ করছে।

যমুনা গ্রুপের এমডি বলেন, আমার বাবা ছিলেন একজন দেশপ্রেমিক ব্যবসায়ী। তার কাছে যদি কারও ব্যক্তিগত বা ব্যবসায়িক কোনো পাওনা-দাওনা থাকে তা আমাদের জানাবেন। ইনশাআল্লাহ আমরা অবশ্যই পরিবারের পক্ষ থেকে সুন্দরভাবে পরিশোধ করব।

তিনি বাবার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করে বলেন, বাবাকে যেন আল্লাহ বেহেশত নসিব করেন, তার মাগফিরাত কামনা করে সবাই দোয়া করবেন। তিনি দেশবাসী ও সরকারের কাছে পরিবারের পক্ষ থেকে আন্তরিকতা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, সবাইকে একদিন না একদিন চলে যেতে হবে। আজকে সময় আসায় আমার বাবা চলে গেছেন।

তিনি যমুনা গ্রুপের কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা কেউ মনবল ভাঙবেন না। আমরা একটি পরিবার। পারিবারিক স্পৃহা নিয়ে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে আমরা অতীতে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করেছি। ভবিষ্যতেও আমাদের এই স্পৃহা অটুট থাকবে। আগামীতেও একসঙ্গে থেকে এগিয়ে যাব ইনশাআল্লাহ। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন। আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন।

ঘটনাপ্রবাহ : যমুনা গ্রুপ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত