সেনা ও পুলিশপ্রধানের যৌথ সংবাদ সম্মেলন

সিনহার মৃত্যু দুই বাহিনীতে প্রভাব ফেলবে না

  কক্সবাজার প্রতিনিধি ০৬ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা মো. রাশেদ খানের মৃত্যু একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। এ ঘটনা সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর মধ্যে কোনো প্রভাব ফেলবে না। এতে দুই বাহিনীর পারস্পরিক আস্থায় কোনো ঘাটতি তৈরি হবে না। বুধবার বিকালে কক্সবাজারে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে সেনাপ্রধান ও পুলিশপ্রধান এমন মন্তব্য করেন। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে সেনাবাহিনীর বাংলো জলতরঙ্গে যৌথ সংবাদ সম্মেলন করেন সেনাবাহিনীপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ এবং পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ। এর আগে তারা দুই বাহিনীর সিনিয়র কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

সংবাদ সম্মেলনে সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেন, সেনাবাহিনী ও পুলিশ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছে। সম্প্রতি যে ঘটনা ঘটেছে তাতে সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনী অবশ্যই মর্মাহত। এটাকে আমরা বিচ্ছিন্ন ঘটনা হিসেবেই দেখতে চাই। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে একটি ‘জয়েন্ট ইনকোয়ারি টিম’ (যৌথ তদন্ত দল) গঠিত হয়েছে। মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খানের মাকে প্রধানমন্ত্রী ফোন করে সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন। তার কথায় সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর আস্থা আছে। যৌথ তদন্ত দলের প্রতিও দুই বাহিনী আস্থাশীল।

জেনারেল আজিজ বলেন, ‘দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলতে চাই- দুই বাহিনীর সম্পর্কে চিড় ধরে এমন কিছু হবে না। এ ঘটনা নিয়ে যেন সেনাবাহিনী ও পুলিশের ভেতর অনাকাক্সিক্ষত চিড় ধরানোর মতো ঘটনা না ঘটে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকার অনুরোধ করছি। তিনি বলেন, এ ঘটনা দুই বাহিনীর সম্পর্কের ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না। তিনি আরও বলেন, আমাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে একটা জিনিস আমরা নিশ্চিত করতে চাই, যে ঘটনাটা ঘটেছে ওই ঘটনার সঙ্গে যে যে সম্পৃক্ত থাকবে, ইনকোয়ারি টিম যাদের চিহ্নিত করবে, তারা সেই দোষের প্রায়শ্চিত্ত করবে। এটার দায়-দায়িত্ব কোনো সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের ওপর বর্তাবে না। এখানে কোনো প্রতিষ্ঠান কাউকে সহযোগিতা করবে না আবার কারও বিপক্ষেও যাবে না। তিনি বলেন, বিগত ৫০ বছরে এই দেশে যে উন্নতি-অগ্রগতি এসেছে, দেশি-বিদেশি যেসব ঝুঁকি এসেছে আমরা সশস্ত্রবাহিনী এবং পুলিশসহ অন্য সংস্থাগুলোর মতো কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করেছি। আমাদের মধ্যে যে মিউচুয়াল ট্রাস্ট, কনফিডেন্ট অ্যান্ড কো-অপারেশন অনেক বছর ধরে তৈরি হয়েছে এটা অটুট থাকবে, এটাতে কোনো রকমের চিড় ধরে এমন কোনো কিছু সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকেও হবে না এবং পুলিশ বাহিনী বলেছে তাদের মধ্য থেকেও হবে না।

আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, আমাদেরও একই কথা। সেনাবাহিনী ও পুলিশের ৫০ বছর ধরে একসঙ্গে কাজ করার ইতিহাস রয়েছে। গত ৫০ বছরে দেশের অনেক ক্রাইসিস মুহূর্তে এই দুটি বাহিনী কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করেছে। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ আধুনিক গণতান্ত্রিক দেশ। এখানে আইনের শাসন আছে। সংবাদমাধ্যম সর্বোচ্চ স্বাধীনতা ভোগ করছে। বিচার বিভাগ মুক্ত। এ ঘটনা নিয়ে অনেকে উসকানিমূলক কথা বলার চেষ্টা করছেন। যারা উসকানি দিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে, তাদের উদ্দেশ্য সফল হবে না। তিনি বলেন, সেনাবাহিনীর সঙ্গে তাদের পারস্পরিক শ্রদ্ধা, বিশ্বাস ও আস্থার সম্পর্ক। মেজর (অব.) সিনহার মৃত্যু পারস্পরিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে কোনো ব্যত্যয় হবে না। কমিটি প্রভাবমুক্ত পরিবেশে তদন্ত করবে। কমিটি যে সুপারিশ দেবে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত