করোনা আক্রান্ত এক কোটি ৮৭ লাখ ছাড়াল

  যুগান্তর ডেস্ক ০৬ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৮৭ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন ৭ লাখের বেশি মানুষ। যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, ভারত ও মেক্সিকোতেই এখন প্রতিদিন সবচেয়ে বেশি মৃত্যু দেখা যাচ্ছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজন করোনায় মারা যাচ্ছেন।

অঞ্চলভিত্তিক হিসাবে মৃত্যুতে ইউরোপকে ছাড়িয়ে গেছে লাতিন আমেরিকা। দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রায় ২৪ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ফিলিপাইনে নতুন করে সংক্রমণ দেখা দেয়ায় ফের লকডাউন জারি করা হয়েছে। হংকংয়ে দেখা দিয়েছে করোনার তৃতীয় ঢেউ।

দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৫ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। এদিকে করোনা নিয়ে আলোচনায় দীর্ঘ কয়েক দশক পর তাইওয়ান সফরে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধি দল। খবর রয়টার্স, এনডিটিভি, বিবিসি ও এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের।

বাংলাদেশ সময় বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৮৭ লাখ ৪০ হাজার ৬২০ জন। মারা গেছেন ৭ লাখ ৫ হাজার ১১০ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ৬৫ হাজার ৪০৪ জনের।

সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ১৯ লাখ ৪৭ হাজার ৩৬৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৫৫ হাজার ৮৭১, মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ২৯৭ জনের।

বিশ্ব তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় ৫৪ হাজার ৫০৪ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩৬২ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৪৯ লাখ ১৯ হাজার ১২৬ জন, মারা গেছেন ১ লাখ ৬০ হাজার ৩৩৫ জন।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬ হাজার ৪১১ জন, মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩৯৪ জনের। এতে দেশটিতে মোট রোগীর সংখ্যা ২৮ লাখ ৮ হাজার ১৬৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ৯৬ হাজার ১০২ জনের।

বিশ্বে তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫১ হাজার ২৮২ জন। একই সময়ে মারা গেছেন ৮৪৯ জন। এ নিয়ে দেশটিতে টানা ছয়দিন ৫০ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে।

ভারতে মোট রোগীর সংখ্যা ১৯ লাখ ১০ হাজার ৭৯৫ জন, মারা গেছেন ৩৯ হাজার ৮৫৬ জন। চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় মোট রোগীর সংখ্যা ৮ লাখ ৬৬ হাজার ৬২৭ জন, মারা গেছেন ১৪ হাজার ৪৯০ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকায় মোট আক্রান্ত ৫ লাখ ২১ হাজার ৩১৮ জন, মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৮৮৪ জনের। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটিতে প্রায় ২৪ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন।

যাদের মধ্যে ১৮১ জন মারা গেছেন। ষষ্ঠ স্থানে মেক্সিকোয় মোট রোগী ৪ লাখ ৪৯ হাজার ৯৬১ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪৮ হাজার ৮৬৯ জনের। সপ্তম স্থানে থাকা পেরুতে মোট আক্রান্ত ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৮৯০ জন, মৃত্যু হয়েছে ২০ হাজার ৭ জনের।

হংকংয়ে বুধবার ৮৫ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যদিও এর মধ্যে বেশির ভাগই বিদেশি। তবে তিনজন স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত হয়েছেন। হংকং কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সেখানে করোনার তৃতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে।

জানুয়ারির পর থেকে এ অঞ্চলে ৩ হাজার ৭০০ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৪২ জন।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের একটি উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধি দল করোনা নিয়ে আলোচনার জন্য তাইওয়ান সফরে যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ও মানবসেবাবিষয়ক সম্পাদক আলেক্স আজার এই প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন।

ওয়াশিংটন বেইজিংয়ের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের জন্য ১৯৭৯ সালে তাইওয়ানের সঙ্গে সরকারি সম্পর্ক ছিন্ন করেছিল। আজার এক বিবৃতিতে বলেন, করোনা মোকাবেলায় তাইওয়ান বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও সহযোগিতার একটি মডেল।

বিশ্বে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজনের মৃত্যু : করোনাভাইরাসে বিশ্বে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজনের মৃত্যু হচ্ছে। দুই সপ্তাহের তথ্য বিশ্লেষণ করে এই খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনায় বিশ্বজুড়ে গড়ে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৯০০ জনের মৃত্যু হচ্ছে। এতে প্রতি ঘণ্টায় দাঁড়ায় ২৪৭ জন বা প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজন।

ফিলিপাইনে ফের লকডাউন : নতুন করে করোনা সংক্রমণ দেখা দিয়েছে ফিলিপাইনে। এতে দেশের ভঙ্গুর স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থা ধসে পড়তে পারে বলে চিকিৎসকরা সতর্ক করে দেয়ার পর এক কোটিরও বেশি মানুষকে ফের লকডাউন করে রেখেছে ফিলিপাইনের সরকার।

একদিনের নোটিশে মঙ্গলবার থেকে দুই সপ্তাহের এই লকডাউন শুরু হয়েছে দেশটির লুজান দ্বীপে অবস্থিত রাজধানী ম্যানিলা ছাড়াও আশপাশের আরও চারটি প্রদেশে।

করোনার বিস্তার রোধে জারি লকডাউন থেকে গত জুনে মুক্তি মেলে দেশটির মানুষের; কিন্তু নতুন করে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ফের লকডাউন করা হল।

দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত সংখ্যা এখন লক্ষাধিক। এর মধ্যে ২ হাজার ১১৫ জন ইতোমধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত