বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন আসছে ১২ আগস্ট

  যুগান্তর ডেস্ক ০৯ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে আসছে রাশিয়া। আর মাত্র ৩ দিন পর এ ভ্যাকসিন প্রকাশ্যে আনার ঘোষণা দিয়েছে দেশটি। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দাবি, রাশিয়ার হাত ধরে বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন আসছে ১২ আগস্ট। এর মাধ্যমে পুরো বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিতে চান রাশিয়ার বিজ্ঞানীরা।

এদিকে রাশিয়ার তৈরি ভ্যাকসিন ইতোমধ্যে সাড়া জাগালেও বিশ্বে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে নির্ভরশীলতার পথে হাঁটছে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন (টিকা)। এ ভ্যাকসিন উৎপাদনের দায়িত্ব পাওয়া ভারতের সিরাম ইন্সটিটিউট জানিয়েছে, এ ভ্যাকসিনের প্রতি ডোজের দাম হবে ৩ ডলার বা ২৫৪ টাকা।

রাশিয়ার সেচেনভ বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক দাবি করছে, তাদের তৈরি করোনাভাইরাসের একটি ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের সবক’টি ধাপ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। এর আগে তারা জানিয়েছিলেন, ১২ থেকে ১৪ আগস্টের মধ্যেই এ ভ্যাকসিন বাজারে আসবে। এর মধ্যেই নিশ্চিত করা হয়েছে যে, ১২ আগস্টই এটি আসছে।

রুশ গবেষকদের দাবি অনুযায়ী, বিশ্বের যেসব দেশ ভ্যাকসিন তৈরির দৌড়ে এগিয়ে, তাদের মধ্যে অন্যতম রাশিয়া। তারা বলছেন, রাশিয়া ছাড়া এখন পর্যন্ত বিশ্বের কোনো দেশই করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ ও সফল করার দাবি করতে পারেনি।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে এ ভ্যাকসিন তৈরি করেছে গামালেয়া রিসার্চ ইন্সটিটিউট। শুক্রবার একথা জানিয়ে দেশটির উপ-স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওলেগ গ্রিডনেভ বলেন, সাফল্যের সঙ্গে এ ভ্যাকসিন আনা সম্ভব হলে এটিই হবে বিশ্বের প্রথম করোনার ভ্যাকসিন। আপাতত এ ভ্যাকসিনের তৃতীয় বা শেষ পর্যায়ের ট্রায়াল চলছে। উপ-স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চিকিৎসার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তি ও বয়স্ক লোকদেরই এ ভ্যাকসিন আগে দেয়া হবে। মস্কোর তরফ থেকে পরিকল্পনা করা হয়েছে যে, অক্টোবরেই এ ভ্যাকসিন দেয়া শুরু হবে। একসঙ্গে অনেক মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, গামালেয়ার ভ্যাকসিনটি শর্তসাপেক্ষে আগস্টে নথিভুক্ত করা হবে। এর অর্থ হল ব্যবহারের জন্য অনুমতি দেয়া হচ্ছে; পাশাপাশি তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা-নিরীক্ষার কাজও চলবে। ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল যতদিন না সম্পূর্ণ হচ্ছে ততদিন তা শুধু চিকিৎসকরাই নিয়ন্ত্রণ করবেন।

রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের (আরডিআইএফ) প্রধান ক্রিমিল দিমিত্রিভ আগেই জানিয়েছিলেন, প্রথম দেশ হিসেবে রাশিয়া তাদের করোনা টিকা বাজারে আনবে। তিনি বলেন, স্পুটনিক ১-এর মহাকাশ যাত্রা দেখে মার্কিনিরা যেমন অবাক হয়েছিল একই ঘটনা ঘটবে করোনার ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রেও। বিশ্ববাসী অবাক হয়ে রাশিয়ার সাফল্য দেখবে।

অক্সফোর্ডের টিকার দাম হবে ২২৫ রুপি : অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার যৌথ প্রচেষ্টায় তৈরি করোনা ভ্যাকসিন কয়েক ধাপে সাফল্যের পরই পুনের সিরাম ইন্সটিটিউট অব ইন্ডিয়াও বেশ পরিচিতি পাচ্ছে। কারণ ভারতে এ ভ্যাকসিন তৈরির দায়িত্ব নিয়েছে এ সংস্থাটি। তারা জানায়, অক্সফোর্ডের এ ভ্যাকসিনের প্রতি ডোজের দাম হতে পারে ৩ ডলার বা ২৫৪ টাকা। ভারত ছাড়াও বিশ্বের আরও ৯২টি দেশে ভ্যাকসিন পৌঁছে দেয়ার দায়িত্ব নিয়েছে সিরাম।

সেজন্য ১০ কোটি ভ্যাকসিন তৈরির জন্য গেভি এবং বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন ১৫ কোটি ডলার তুলে দিয়েছে ভারতের ওই সংস্থাটির হাতে। তবে শুধু অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনই নয়, ভারতের আইসিএমআর-ভারত বায়োটেকের যৌথ উদ্যোগে তৈরি কোভ্যাকসিন, জাইডাস ক্যাডিলার জাইকোভ-ডি, মডার্না, ফাইজারের মতো সংস্থাও ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করে চলেছে। কিন্তু অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনটিকেই আপাতত সবচেয়ে এগিয়ে রেখেছেন বিশেষজ্ঞরা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছেও এগিয়ে এ ভ্যাকসিন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত