করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু শনাক্ত ২৯৯৬
jugantor
করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু শনাক্ত ২৯৯৬
আজ থেকে বন্ধ নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিন

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১২ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশে করোনাভাইরাসে আরও ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩৪৭১। ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ২৯৯৬ জন। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০ দশমিক ২২ শতাংশ। সোমবার এ হার ছিল ২২ দশমিক ৬২ শতাংশ। ওইদিন মারা যায় ৩৯ জন। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত দেশে মোট করোনা শনাক্ত হলেন দুই লাখ ৬৩ হাজার ৫০৩ জন। একদিনে এক হাজার ৫৩৫ জনসহ মোট সুস্থ হলেন এক লাখ ৫১ হাজার ৯৭২ জন।

মঙ্গলবার কোভিড-১৯ সম্পর্কিত নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

এদিকে কয়েকমাস ধরে চলে আসা নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিন আজ থেকে আর হচ্ছে না। প্রতিদিন দুপুর আড়াইটায় অনলাইন ব্রিফিংয়ে করোনা পরিস্থিতির সর্বশেষ তথ্য তুলে ধরা হত। অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, স্বাস্থ্য বুলেটিনটি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। বুধবার থেকে এ অনলাইন ব্রিফিংটি আর হবে না। তবে যথারীতি প্রেস রিলিজ সবাইকে পাঠিয়ে দেয়া হবে। আপনারা সব তথ্যই জানতে পারবেন, তথ্য প্রবাহে কোনো অসুবিধা হবে না। নিয়মিতভাবে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে তথ্য পাঠানো হবে।

অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা জানান, দেশে ৮৬টি পরীক্ষাগারে বর্তমানে করোনার নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫ হাজার ৩১৭টি নমুনা সংগ্রহ হয়েছে। ১৪ হাজার ৮২০টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ১২ লাখ ৮৭ হাজার ৯৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৬৭ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩২ শতাংশ।

বুলেটিনে তিনি জানান, ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ২৮ জন পুরুষ এবং ৫ জন নারী। এখন পর্যন্ত পুরুষ ২ হাজার ৭৪৯ এবং ৭২২ জন নারী মারা গেছেন। ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৪ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন। বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা যায়, ঢাকা বিভাগে ১৫ জন, চট্টগ্রামে ৫ জন, রাজশাহীতে ৫ জন, খুলনায় ৩ জন, ময়মনসিংহে একজন এবং রংপুরে ৪ জন রয়েছেন। ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ৩০ এবং বাড়িতে ৩ জন মারা গেছেন।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৮৬৩ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৫৮ হাজার ৩৪৫ জন। প্রতিষ্ঠানিক ও হোম মিলিয়ে ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে ২ হাজার ৮৮৪ জনকে। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫২ হাজার ৮০৭ জন।

 

করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু শনাক্ত ২৯৯৬

আজ থেকে বন্ধ নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিন
 যুগান্তর রিপোর্ট 
১২ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশে করোনাভাইরাসে আরও ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩৪৭১। ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ২৯৯৬ জন। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০ দশমিক ২২ শতাংশ। সোমবার এ হার ছিল ২২ দশমিক ৬২ শতাংশ। ওইদিন মারা যায় ৩৯ জন। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত দেশে মোট করোনা শনাক্ত হলেন দুই লাখ ৬৩ হাজার ৫০৩ জন। একদিনে এক হাজার ৫৩৫ জনসহ মোট সুস্থ হলেন এক লাখ ৫১ হাজার ৯৭২ জন।

মঙ্গলবার কোভিড-১৯ সম্পর্কিত নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

এদিকে কয়েকমাস ধরে চলে আসা নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিন আজ থেকে আর হচ্ছে না। প্রতিদিন দুপুর আড়াইটায় অনলাইন ব্রিফিংয়ে করোনা পরিস্থিতির সর্বশেষ তথ্য তুলে ধরা হত। অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, স্বাস্থ্য বুলেটিনটি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। বুধবার থেকে এ অনলাইন ব্রিফিংটি আর হবে না। তবে যথারীতি প্রেস রিলিজ সবাইকে পাঠিয়ে দেয়া হবে। আপনারা সব তথ্যই জানতে পারবেন, তথ্য প্রবাহে কোনো অসুবিধা হবে না। নিয়মিতভাবে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে তথ্য পাঠানো হবে।

অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা জানান, দেশে ৮৬টি পরীক্ষাগারে বর্তমানে করোনার নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫ হাজার ৩১৭টি নমুনা সংগ্রহ হয়েছে। ১৪ হাজার ৮২০টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ১২ লাখ ৮৭ হাজার ৯৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৬৭ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩২ শতাংশ।

বুলেটিনে তিনি জানান, ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ২৮ জন পুরুষ এবং ৫ জন নারী। এখন পর্যন্ত পুরুষ ২ হাজার ৭৪৯ এবং ৭২২ জন নারী মারা গেছেন। ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৪ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন। বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা যায়, ঢাকা বিভাগে ১৫ জন, চট্টগ্রামে ৫ জন, রাজশাহীতে ৫ জন, খুলনায় ৩ জন, ময়মনসিংহে একজন এবং রংপুরে ৪ জন রয়েছেন। ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ৩০ এবং বাড়িতে ৩ জন মারা গেছেন।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৮৬৩ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৫৮ হাজার ৩৪৫ জন। প্রতিষ্ঠানিক ও হোম মিলিয়ে ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে ২ হাজার ৮৮৪ জনকে। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫২ হাজার ৮০৭ জন।