দিনে চার নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার
jugantor
দিনে চার নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দিনে চার নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার

সারা দেশে ধর্ষণের ঘটনা বাড়ছে। এ বছর প্রতিদিন গড়ে চার নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ২০১৮ সালে দিনে দু’জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হলেও পরের বছর তা বেড়ে দ্বিগুণ হয়।

গত বছর দিনে চার নারী-শিশু ধর্ষিত হয়েছেন। বিশ্লেষকরা বলছেন, ৯৭ শতাংশ ধর্ষণের ঘটনায় শাস্তি না হওয়ায় সমাজের জঘন্য এ অপরাধ বাড়ছে।

সিলেটের এমসি কলেজ হোস্টেলে দলবেঁধে গণধর্ষণের ঘটনা বাংলাদেশকে ফের লজ্জা ও আতঙ্কে ফেলে দিয়েছে। আইন ও সালিশ কেন্দ্রের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালে দেশে ৭৩২টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

এ সময় ধর্ষণের পর ৬৩ জনকে হত্যা করা হয়। আর ২০১৯ সালে ১৪১৩টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ওই সময়ে ধর্ষণের পর ৭৬ জনকে হত্যা করা হয়।

আট মাসে ৮৮৯টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের পর ৪১ জনকে হত্যা করা হয়েছে। চলতি মাসে ২৫ দিনে ৫৯টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, আট মাসে ছয় বছরের নিচে ৫৯ জন, সাত থেকে ১২ বছর বয়সী ১২৭ জন, ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সী ১২০ জন, ১৯ থেকে ২৪ বছর বয়সী ৩০ জন, ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সী নয়জন এবং ৩০ বছরের বেশি বয়সী ১৬ জন ধর্ষণের শিকার হন।

এছাড়া সাত থেকে ১২ বছর বয়সী ছয়জন, ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সী ৫০ জন, ১৯ থেকে ২৪ বছর বয়সী ২১ জন, ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সী সাতজন এবং ৩০ বছরের ঊর্ধ্বে চারজন গণধর্ষণের শিকার হয়েছে।

দিনে চার নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
দিনে চার নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার
প্রতীকী ছবি

সারা দেশে ধর্ষণের ঘটনা বাড়ছে। এ বছর প্রতিদিন গড়ে চার নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ২০১৮ সালে দিনে দু’জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হলেও পরের বছর তা বেড়ে দ্বিগুণ হয়।

গত বছর দিনে চার নারী-শিশু ধর্ষিত হয়েছেন। বিশ্লেষকরা বলছেন, ৯৭ শতাংশ ধর্ষণের ঘটনায় শাস্তি না হওয়ায় সমাজের জঘন্য এ অপরাধ বাড়ছে।

সিলেটের এমসি কলেজ হোস্টেলে দলবেঁধে গণধর্ষণের ঘটনা বাংলাদেশকে ফের লজ্জা ও আতঙ্কে ফেলে দিয়েছে। আইন ও সালিশ কেন্দ্রের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালে দেশে ৭৩২টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

এ সময় ধর্ষণের পর ৬৩ জনকে হত্যা করা হয়। আর ২০১৯ সালে ১৪১৩টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ওই সময়ে ধর্ষণের পর ৭৬ জনকে হত্যা করা হয়।

আট মাসে ৮৮৯টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের পর ৪১ জনকে হত্যা করা হয়েছে। চলতি মাসে ২৫ দিনে ৫৯টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, আট মাসে ছয় বছরের নিচে ৫৯ জন, সাত থেকে ১২ বছর বয়সী ১২৭ জন, ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সী ১২০ জন, ১৯ থেকে ২৪ বছর বয়সী ৩০ জন, ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সী নয়জন এবং ৩০ বছরের বেশি বয়সী ১৬ জন ধর্ষণের শিকার হন।

এছাড়া সাত থেকে ১২ বছর বয়সী ছয়জন, ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সী ৫০ জন, ১৯ থেকে ২৪ বছর বয়সী ২১ জন, ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সী সাতজন এবং ৩০ বছরের ঊর্ধ্বে চারজন গণধর্ষণের শিকার হয়েছে।